ভারতে ধর্ষিতাকে পুড়িয়ে হত্যা: মূল আসামী গ্রেফতার

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption নিহত মেয়ের পরিবারের সদস্যদের আহাজারি

ভারতের পুলিশ বলছে, তারা এক মেয়েকে দল বেঁধে ধর্ষণ এবং এরপর এ নিয়ে অভিযোগ করায় মেয়েটিকে পুড়িয়ে হত্যার চাঞ্চল্যকর মামলায় মূল আসামীকে গ্রেফতার করেছে।

ঝাড়খন্ড রাজ্যের পুলিশ বলছে, গত শুক্রবার ১৬ বছরের এক মেয়েকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় মূল আসামী ছিল ধানু ভুইয়া।

এর আগে শনিবারও পুলিশ এই মামলায় ১৪ জনকে গ্রেফতার করেছিল।

পুলিশ বলছে, মেয়েটিকে অপহরণ করে একটি জঙ্গলে নিয়ে সেখানে ধর্ষণ করা হয়েছিল। সেদিন মেয়েটির বাবা-মা বাড়িতে ছিলেন না। তারা একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলেন।

পরে ঘটনাটি জানতে পেরে মেয়েটির বাবা-মা গ্রামের গণ্য-মান্য ব্যক্তিদের কাছে অভিযোগ করেছিলেন।

অভিযোগ পেয়ে গ্রাম্য সালিশে অভিযুক্তদের কান ধরে একশোবার উঠ-বস করা এবং সাড়ে সাতশো ডলার জরিমানার শাস্তি দেয়া হয়।

ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption ভারতে ধর্ষণের বিরুদ্ধে ব্যাপক বিক্ষোভের মধ্যেই এই ঘটনা ঘটলো।

অভিযোগ করা হচ্ছে, এতে ক্ষিপ্ত অভিযুক্তরা মেয়েটির পিতামাতাকে মারধর করে এবং পরে মেয়েটির গায়ে আগুন ধরিয়ে তাকে হত্যা করে।

স্থানীয় থানার ওসি বার্তা সংস্থা এএফপি'কে জানিয়েছেন, দুই অভিযুক্ত মেয়েটির বাবা-মাকে পেটায়। এর তারা মেয়েটির গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

ভারতে বছরে প্রায় ৪০ হাজার ধর্ষণের ঘটনার ব্যাপারে অভিযোগ করা হয়। কিন্তু এর বাইরে আরও অনেক ঘটনার ব্যাপারে অভিযোগ দায়ের করা হয় না বলে মনে করা হয়।