এক আঙুল নিয়ে এভারেস্টে উঠতে গিয়ে জাপানি পর্বতারোহীর মৃত্যু

এভারেস্ট জাপান ছবির কপিরাইট AFP
Image caption নোবুকাজু কুরিকি

জাপানের একজন পর্বতারোহী - যার হাতের নয়টি আঙুল ঠান্ডায় জমে ঘা হয়ে যাওয়ায় কেটে বাদ দিতে হয়েছিল - তিনি অষ্টম বারের মতো এভারেস্টের শৃঙ্গে আরোহণের চেষ্টা করতে গিয়ে মারা গেছেন।

নোবুকাজু কুরিকি নামে ৩৫ বছর বয়েসের এই পর্বতারোহীকে সোমবার সকালে তার তাঁবুর বাইরে মৃত অবস্থায় খুঁজে পান শেরপারা। নেপাল সরকারের একজন কর্মকর্তা এ খবর জানিয়েছেন।

তার মৃতদেহ এখন রাজধানী কাঠমান্ডুতে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

পৃথিবীর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্ট জয় করার জন্য মি. কুরিকির এটি ছিল অষ্টম চেষ্টা।

ঠিক কী পরিস্থিতিতে তার মৃত্যু হয় তা জানা যায় নি।

এর আগে ২০১২ সালে এভারেস্টে ওঠার চেষ্টার সময় প্রচন্ড ঠান্ডায় মি. কুরিকির হাতের আঙুলে ফ্রস্টবাইট বা ঠান্ডাজনিত ক্ষত দেখা দেয়। এর পর তার নয়টি আঙুলই কেটে বাদ দিতে হয়।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

'বাংলাদেশে মাদকাসক্ত ফিলিপিনের চেয়েও বেশি'

ফটো শেয়ার: 'বাচ্চাদের ঝুঁকিতে ফেলছেন বাবা-মা'

ঈদের বাজারে জাল নোটের ঝুঁকি, কীভাবে চিনবেন?

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption মাউন্ট এভারেস্ট পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ

কিন্তু তাতেও তিনি উদ্যম হারান নি। ২০১৫ সালে তিনি মাত্র একটি আঙুল নিয়েই এভারেস্টে আরোহণের জন্য আবার নেপালে ফিরে আসেন।

সবশেষ এ বছরের চেষ্টার বিবরণ তিনি ফেসবুকে ভিডিও আপডেট দিয়ে জানাচ্ছিলেন। সবশেষ বার্তাটি তিনি দেন রোববার। তাতে তিনি লেখেন, এ পর্বতে ওঠা কত কষ্টকর তা তিনি অনুভব করতে পারছেন।

সোমবার সকালে এভারেস্টের ২৯ হাজার ২৯ ফিট উঁচু শৃঙ্গের ৪ হাজার ৬শ ফিট নিচে ক্যাম্প-টুতে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়।

এ মাসেই এমন একজন চীনা পর্বতারোহী এভারেস্টে ওঠেন - যিনি ১৯৭৫ সালে ফ্রস্টবাইটের কারণে তার দুই পা হারিয়েছিলেন।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

চাকরিতে বিদেশীদের নিয়োগ নিয়ে কী বলছে মানুষ?

নারীর পেটে যেভাবে এলো একশোর বেশি কোকেন ক্যাপসুল

হৃদরোগ ঠেকাতে সপ্তাহে অন্তত চারদিন ব্যায়াম

সম্পর্কিত বিষয়