রশিদ খান বর্তমান বিশ্বের সেরা স্পিনার?

আফগান ক্রিকেটার রশিদ খান ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption আফগান ক্রিকেটার রশিদ খান

গত বছর আইপিএলের আগে হায়দ্রাবাদ যখন চার কোটি রুপি দিয়ে প্রায় অচেনা এই তরুণকে কেনে, অনেকেই অবাক হয়ে কপালে চোখ তুলেছিলেন।

কিন্তু দুবছর না যেতেই মাত্র ১৯ বছরের আফগান ক্রিকেটার আইপিএল তো বটেই, বিশ্ব ক্রিকেটের নতুন সুপার স্টার হয়ে উঠছেন।

বিশেষ করে, শুক্রবার আইপিএলের প্লে-অফ ম্যাচে হায়দ্রাবাদের পক্ষে তার অসামান্য পারফরমেন্সের পর ফ্যানরা ছাড়াও বিশ্বের বড় বড় কিকেটোরদেরও অকুন্ঠ প্রশংসায় ভাসছেন রশিদ খান। ঐ ম্যাচে ব্যাট হাতে তার ১০ বলে ৩৪ রান এবং বল হাতে মাত্র ১৯ রানে তিনটি উইকেটের বদৌলতে হায়দ্রাবাদ কলকাতাকে হারায়।

ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার সচিন টেন্ডুলকার বলেছেন, টি-২০ ফরম্যাটের ক্রিকেটে রশিদ খান এখন নিঃসন্দেহে সেরা।

সচিন টেন্ডুলকার টুইট করেছেন, "আমি সবসময়ই মনে করতাম সে একজন ভালো স্পিনার, কিন্তু এখন আমার বলতে দ্বিধা নেই যে এই (টি-২০) ফরম্যাটে সে বিশ্বের সেরা।"

আরেক কিংবদন্তি লেগ স্পিনার শেন ওয়ার্ন বলেছেন, রশিদ খানের স্পিন বোলিং তাকে বিশেষভাবে উদ্বীপ্ত করে।

মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন ভিভিএস লাক্সমান এবং ইরফান পাঠানসহ ভারতের বহু সাবেক ক্রিকেটার।

ছবির কপিরাইট Twitter
Image caption রশিদ খান সেরা টি-২০ স্পিনার - টেন্ডুলকারের টুইট

২০১৭ সালে চার কোটি রুপি দিয়ে প্রায়-অচেনা আফগান এই তরুণকে কিনে ঝুঁকি নিয়েছিল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ ।

প্রথম মৌসুমেই তিনি তার প্রতিভার ছটা দেখিয়েছিলেন। কিন্তু এবারের আইপিএলে নিঃসন্দেহে সবচেয়ে আলোচিত ক্রিকেটারে পরিণত হয়েছেন যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানের এই তরুণ।

আফগানিস্তানের যে শহরে তিনি বড় হয়েছেন, গত ২০ তারিখেও সেই জালালাবাদে এক ঘরোয়া ক্রিকেট ম্যাচে সন্ত্রাসী হামলায় আট জন মারা গেছে। এমন এক পরিবেশ থেকে উঠে এসে ক্রিকেট বিশ্বে তার ঝড় তোলাকে অনেকেই রুপকথার সাথে তুলনা করছেন।

হায়দ্রাবাদের ফ্যানরা ছাড়াও ভারতের অনেক ক্রিকেট ভক্ত টুইটারসহ সোশাল মিডিয়ায় সরকারের প্রতি আবেদন করছেন রশিদ খানকে যেন ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হয়। তারা বলছেন- আদনান সামি (গায়ক) যদি ভারতের নাগরিকত্ব পায়, রশিদ খান কেন নয়?

তাকে নাগরিকত্ব দেওয়ার দাবিতে টুইটারে ঝড় ওঠার পর ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এবং আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ গানি তাতে সাড়া দিয়েছেন।

সুষমা স্বরাজ অনেকটা মজা করে টুইট করেছেন, "নাগরিকত্ব দেওয়ার দায়িত্ব ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের।"

পরপরই আফগান প্রেসিডন্ট আশরাফ ঘানি টুইট করেন, "আফগানরা আমাদের নায়ক রশিদ খানকে নিয়ে গর্বিত। তাকে প্রতিভা বিকাশের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য ভারতীয় বন্ধুদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ...কিন্তু আমরা তাকে কোনাভাবেই (ভারতকে) দেব না।"