ফিফা বিশ্বকাপ ২০১৮: বাংলাদেশের দর্শকদের সমর্থন বদলে দিচ্ছে যে দলগুলো

দোদুল্যমান অনেকেই বেছে নিচ্ছেন নতুন দল। ছবির কপিরাইট Ian MacNicol
Image caption দোদুল্যমান অনেকেই বেছে নিচ্ছেন নতুন দল।

এবারের বিশ্বকাপে শুরু থেকেই একটার পর একটা অঘটন ঘটেই চলেছে।

গতবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানি ১-০ গোলে মেক্সিকোর কাছে হেরে বিশ্বকাপ শুরু করেছে।

গত ৩৬ বছরের মধ্যে এই প্রথম বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে হেরেছে জার্মানি।

বাংলাদেশের মানুষজনের প্রাণের দল আর্জেন্টিনা আর ব্রাজিলও ব্যাপক হতাশ করেছে। আইসল্যান্ডের সাথে ১-১ গোলে আর্জেন্টিনা ড্র করেছে।

ব্রাজিল ১-১ গোলে ড্র করেছে সুইজারল্যান্ডের সাথে। কিন্তু দানবদের হারের কারণ হল অপেক্ষাকৃত দুর্বল দলের চমক।

মেক্সিকো, আইসল্যান্ড বা সেনেগালের মতো দলের চমকপ্রদ খেলা রীতিমতো সমর্থন বদলে দিচ্ছে বাংলাদেশে।

দোদুল্যমান অনেকেই বেছে নিচ্ছেন তাদের। এমনকি নতুন সব পতাকা উড়তে দেখা যাচ্ছে ঢাকার শহরের দিগন্তে।

ছবির কপিরাইট Ian MacNicol
Image caption জার্মানীর সাথে জয়ের পর মেক্সিকান খেলোয়াড়দের উল্লাস।

ছোট এসব দলকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত অনেকেই বিবিসি বাংলার ফেসবুক পেইজে কমেন্ট করেছেন। তেমন কিছু মন্তব্য নিচে দেয়া হল:

শায়েখ আরেফিন: তাদের খেলার মান উন্নত হয়েছে। তারা অভিজাতদের নিয়মিত হারিয়েও দিচ্ছে। একারণে দর্শক আনন্দ পাচ্ছে। গতানুগতিকতার বাইরে তাই ওদের সমর্থন করছে।

মুহিত আহমেদ জামিল: ছোট দলগুলো ভালোই চমক দেখাচ্ছে। আমরা ভালো ফুটবলের পক্ষপাতী।

যে দলই আমাদের এটা দেখাতে পারবে, আমরা বিনা দ্বিধায় তাদেরকে সাপোর্ট করতে পারি। সাপোর্ট করতে আমাদের অত বাছবিচার করা লাগেনা। কারণ আমাদের নিজেদের দেশতো আর বিশ্বকাপে নেই।

মোঃ রাসেল আহমেদ: একদিক থেকে সেনেগাল খুব ভালো খেলো এবং শক্ত দল। আর মুসলিম রাষ্ট্র বলে সেনেগালকে আমি সাপোর্ট করি, আর্জেন্টিনার পাশাপাশি।

আরো পড়ুন:

আইসল্যান্ডের ফুটবল দলের সাফল্যের পেছনে যারা

মেক্সিকান গতিতে হোঁচট খেলো জার্মানি

ফেভারিট ব্রাজিলকে ঠেকিয়ে দিলো সুইজারল্যান্ড

ছবির কপিরাইট MLADEN ANTONOV
Image caption আইসল্যান্ডের সাথে ড্রয়ের পর মেসির প্রতিক্রিয়া।

ইউসুফ আলী: সেনেগাল ২০০২ বিশ্বকাপে ভাল খেলেছিল। তাই ফুটবল প্রেমীরা তাদের কাছে ভালো কিছু আশা করে। এজন্য তাদেরকে এখনো মনে রেখে সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছেন।।

খুরশেদ আলম: প্রথম কথা হচ্ছে,আপনাদের কাউকে 'ছোট দল' ট্যাগ দেয়ার কোনও যৌক্তিকতা নেই। র‍্যাংকিং কিম্বা পারফরমেন্সে অপেক্ষাকৃত দুর্বল বলা যেতে পারে। ব্যক্তিগতভাবে যা বুঝতেছি,দিনদিন সাপোর্টাররা ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা বিমুখী হচ্ছে।এগুলো ছাড়াও যে সাপোর্ট করার মতো দল আছে,সেটা ধীরে হলেও তাঁরা বুঝছে। দেশে জার্মানি,স্পেন,ফ্রান্স,পর্তুগাল সাপোর্টাররা বাড়ছেই। আর অপেক্ষাকৃত কম শক্তিশালী দলগুলোকে ইদানীং পারফরমেন্সের দরুন অনেকেই সাপোর্ট করে,এই'ই যা!

হাসান প্রধান: আমরা সারাজীবন সাপোর্ট করে যাবো। নিজের দেশের ফুটবলের জন্য কিছু করতে পারবো না।কোচের বেতন দিতে পারেনা বাংলাদেশ। অন্য দেশের পতাকা কেনার টাকা যদি নিজের দেশের ফুটবলের জন্য দিতে বলা হয় তখন তো কেউ দিবেন না। আমরা মানুষের ভালো দেখলে নাচানাচি করি। নিজের ভালো চাইনা।

ছবির কপিরাইট Anadolu Agency
Image caption সুইজারল্যান্ডের সাথে ড্রয়ের পর ব্রাজিল ভক্তদের এই উচ্ছ্বাস সম্ভবত মিলিয়ে গিয়েছিলো।

মোহাম্মদ কাওসারঃ ব্রাজিল আর্জেন্টিনার চেয়ে এই দলগুলোর খেলা অনেক সুন্দর এবং প্রাণবন্ত।

সজীব বড়ুয়া: আমার মতে, ফিফা ফুটবল খেলায় সব দলই ভাল খেলোয়াড় এবং ভাল খেলা উপহার দেয়ার মত ভূমিকা রাখে। তবে বড় দলগুলোর পাশাপাশি ছোট দলগুলোকেও সাপোর্ট করা উচিত। তা না হলে খেলার উৎসাহ হারিয়ে যাবে। যদিও আমি ব্রাজিল সাপোর্টার। তবুও আমি ছোট দল গুলি সাপোর্ট করি ও খেলা দেখি।

মোহাম্মাদ বিলাল হুসেইন ক্কুরাইশঃ এক ডাল ভাত আর কতো ভালো লাগে? তাই একটু রুচি পরিবর্তন আর কি। কিন্তু এসব দল আজকে আছে কালকে নেই।

আরো পড়তে পারেন:

সেনেগালের যে গোলটি নিয়ে বিতর্ক

বিশ্বকাপ ২০১৮: রাশিয়ার জন্মহার বাড়াবে ফুটবল?

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর