রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮: লম্বা চুলের পুয়লকে আমন্ত্রণ জানিয়েও কেন ইরানি টেলিভিশনে ঢুকতে দেওয়া হয়নি

পেপ গার্দিওয়ালার সাথে কার্লেস পুয়ল। ছবির কপিরাইট EPA
Image caption পেপ গার্দিওয়ালার সাথে কার্লেস পুয়ল (ডানে)।

স্পেনের জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড় কার্লেস পুয়লকে ইরানের একটি টেলিভিশনে আমন্ত্রন করে নিয়ে গিয়েও অনুষ্ঠানের সেটে ঢুকতে দেয়া হয়নি।

বিশ্বকাপের খেলায় ইরান ও স্পেনের ম্যাচ ছিল বুধবারে। এই ম্যাচে ইরানের আইআরটিভি-থ্রিতে ধারাবর্ণনা দেয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়ে ইরানে নিয়ে যাওয়া হয় এই বার্সেলোনা তারকাকে।

কিন্তু স্পেন থেকে ইরানে যাবার পর সেই টিভি স্টেশনে মি. পুয়লকে ঢুকতে দেয়া হয়নি। বলা হয়েছে, পুয়লের চুল বড় থাকায় তা ইসলামী সংস্কৃতির সাথে মানানসই নয়। তাই, তাকে প্রবেশ করতে অনুমতি দেয়া হয়নি।

এই অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হিসেবে ছিলেন আদেল ফেরদোসপৌর। এই ঘটনার পর মি. পুয়লকে ছাড়াই ফেরদোসপৌর অনুষ্ঠান শুরু করেন বলে জানিয়েছে ইরানের সংবাদ সংস্থা আইএসএনএ।

আইএসএনএ আরো জানায় অনুষ্ঠানের শুরুতে উপস্থাপক ফেরদোসপৌর এক ঘোষণায় বলেন "মি. পুয়ল আজ রাতে এখানে থাকার কথা ছিল। কিন্তু তিনি এখন হোটেল কক্ষে রয়েছেন। তাকে আনতে সর্বোচ্চ চেষ্টা আমি করেছি। আমি ক্ষমা প্রার্থী।"

স্পেনের জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড় কার্লেস পুয়লকে ইরানের একটি টেলিভিশনে আমন্ত্রণ করে নিয়ে গিয়েও অনুষ্ঠানের সেটে ঢুকতে দেয়া হয়নি।

তারকা এই ফুটবলার অনুষ্ঠানে না থাকায় তাৎক্ষণিকভাবে দর্শকরা তার উঁচুদরের ফি-এর বিষয়ে বলাবলি করছিলো।

কিন্তু বৃহস্পতিবারে এক ভিন্ন ঘটনা জানা যায়। আর তখনই স্পষ্ট হয়ে উঠে যে, দাওয়াত দিয়ে নিয়ে গিয়েও কেবল লম্বা চুলের কারণে তাকে টিভি সেটে যেতে দেয়া হয়নি।

ইরানের কোথাও কোনো অফিসিয়াল চুলের ছাঁটের কথা উল্লেখ নেই। তবে, ইসলামী সংস্কৃতির পরিপন্থী হলে সেটিকে টিভিতে প্রচারের ক্ষেত্রে কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়।

লম্বা চুলের এই বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ইরানের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিন্দার ঝড় ওঠে।

আরো পড়তে পারেন:

শেখ হাসিনা যেভাবে আওয়ামী লীগের নেতা হলেন

নেইমারের ডাইভ ও কান্না নিয়ে এত কথা কেন?

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে জাতীয় রাজনীতির আঁচ

সংস্কারবাদী সাংবাদিক সাবা আজরাপেক লিখেছেন, "তুমি আমাদের বেইজ্জতি করেছো, আইআরটিভি-থ্রি।"

আর আমিরাজ নামে একজন তো সরাসরি এটিই বলেছেন যে, "কাড়ি কাড়ি টাকা খরচ করে পুয়লকে আমন্ত্রণ জানিয়ে, ডেকে এনে টেলিভিশনে অনুষ্ঠান করতে না দেয়ার আগে তোমরা কি তাকে দেখনি?"

আমিরাজ এমনকি এই প্রশ্নও তুলেছেন যে, "ইসলামের নবীজীরও কি চুল লম্বা ছিল না"?

লম্বা চুলের এই বিষয়টি নিয়ে বেশ ব্যাঙ্গ বিদ্রূপও চলছে।

একজন টুইটার ব্যবহারকারী শার্ট পরিহিত এক নারী মডেলের ছবি দিয়েছেন যার রয়েছে মাথা ভর্তি ঘন-সোনালী লম্বা কোঁকড়া চুল। এই ছবি দিয়ে তিনি লিখেছেন, "পুয়ল, এটা ইসলামিক ইরান। তোমার অমন বুনো চুল দেখিয়ে আমরা ইসলামকে বিপদে ফেলতে দেবো না।"

পারভেজী নামে আরেকজন ফটোশপ করে পুয়লকে বোরকা দিয়ে মাথা ঢেকে একটি ছবি প্রকাশ করে লিখেছেন, "পুয়লকে টিভিতে দেখানোর প্রথম শর্ত হিসেবে একটি চাদর দিয়ে ওর মাথা ঢেকে দেয়া উচিত ছিল।"