মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে হবে অবৈধ অভিবাসীদের থাকার ব্যবস্থা

নিজেদের দেশে দারিদ্র ও সহিংসতার কারণে বহু নারী ও শিশু পালিয়ে মার্কিন সীমান্তে পৌঁছেছে।

ছবির উৎস, Getty Images

ছবির ক্যাপশান,

নিজেদের দেশে দারিদ্র ও সহিংসতার কারণে বহু নারী ও শিশু পালিয়ে মার্কিন সীমান্তে পৌঁছেছে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জিম মাটিস নিশ্চিত করেছেন, আমেরিকার দুটি সামরিক ঘাঁটিতে যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধভাবে ঢোকা অভিবাসীদের জন্য অস্থায়ী থাকার ব্যবস্থা করা হবে।

আলাস্কায় মি মাটিস টেক্সাসের দুটি ঘাঁটির নাম ঘোষণা করেন। তবে সেখানে অভিবাসী শিশুরা এবং তাদের পরিবারগুলো একসাথে থাকবে কিনা সেটি তিনি বলেননি।

হেফাজতে নেয়ার সময় অভিবাসী শিশুদেরকে তাদের পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন করার বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এক নির্বাহী আদেশে সই করার পর এই খবর এলো।

গত সপ্তাহে পেন্টাগন জানিয়েছে যে, তারা আটক দুই হাজারেরও বেশি শিশুকে সামরিক ঘাঁটিতে আশ্রয় দেয়ার পরিকল্পনা করছে।

যদিও ল্যাটিন আমেরিকান নেতারা মার্কিন অভিবাসন নীতির বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছেন।

এই সামরিক ঘাঁটিগুলো কোথায়?

মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মি. মাটিস সোমবার সাংবাদিকদের জানান, এল পাসোতে ফোর্ট ব্লিস এবং সান অ্যাঞ্জেলোতে গুডফেলো বিমান ঘাঁটিকে এজন্য বাছাই করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, সেনাবাবাহিনী এ বিষয়ে বিশদ কাজ করছে। সেইসাথে কতখানি ধারণক্ষমতা প্রয়োজন সেটাও যাচাই করা হচ্ছে, কারণ অভিবাসীদের সংখ্যা ক্রমবর্ধমান।

স্বাস্থ্য ও মানবিক সহায়তা বিভাগের কর্মকর্তারা গত সপ্তাহে টেক্সাসের তিনটি ঘাঁটি পরিদর্শন করেন সেগুলো অভিবাসী শিশুদের বাসস্থান হিসেবে ব্যবহার করা যাবে কি-না তা যাচাইয়ের উদ্দেশ্যে, মার্কিন গণমাধ্যমে এমন খবর দেয়।

চীন, কোরিয়া এবং জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীদের সাথে বৈঠকের উদ্দেশ্যে এশিয়া সফরের পথে মি: মাটিস বলেন, এর মধ্যে থেকে দুটি বাছাই করা হয়েছে।

ছবির উৎস, Getty Images

ছবির ক্যাপশান,

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প পরিবারগুলোর মধ্যে বিচ্ছিন্নতা বন্ধে একটি নির্বাহী আদেশে সই করলেও হাজার হাজার শিশু তাদের পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

আরো পড়তে পারেন:

এর আগে খবরে বলা হয়, ফোর্ট ব্লিস ঘাঁটি ব্যবহার করা হবে অভিবাসী পরিবারগুলোর বাসস্থানের জন্য। এবং গুডফেলো ঘাঁটিতে অবিবাহিত অভিবাসী শিশুদের জন্য আবাসনের ব্যবস্থা করা হবে। যদিও কর্মকর্তাদের তরফ থেকে এখনো এ বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলা হয়নি।

মার্কিন অভিবাসন কর্মকর্তারা বলছেন, প্রায় আড়াই হাজার শিশুকে তাদের বাবা-মায়ের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে গত ৫ই মে থেকে ৯ই জুনের মধ্যে।

হেলথ অ্যান্ড হিউম্যান সার্ভিস ডিপার্টমেন্ট মার্কিন-মেক্সিকো সীমান্তে আটক হওয়া হাজার হাজার অ-নিবন্ধিত অভিবাসীর জন্য থাকার বন্দোবস্ত করতে সামরিক বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানায়।

এই আশ্রয়-শিবিরগুলো এই ডিপার্টমেন্টের অধীনে পরিচালিত হবে এবং জুলাই নাগাদ সেগুলো চালু হতে পারে।

কী বলছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প?

এদিকে কোনও ধরনের বিচার প্রক্রিয়া ছাড়াই অভিবাসীদের বিতাড়িত করার বিষয়ে বারবার বলছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প । সোমবার এক টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, হাজার হাজার বিচারক নিয়োগ, এবং জটিল ও দীর্ঘ বিচার প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাওয়া কোনও পন্থা হতে পারে না। লোকজনকে সীমান্তেই আটকে দিতে হবে এবং বলতে হবে যে মার্কিন ভূখণ্ডে অবৈধভাবে কেউ ঢুকতে পারবে না।

তিনি আরও বলেন, "এটা যদি করা হয় অবৈধ অভিবাসন বন্ধ করা যাবে এবং তুলনামুলকভাবে খুবই অল্প খরচে। এটাই একমাত্র সঠিক উত্তর এবং আমরা অবশ্যই দেয়াল তোলার বিষয়ে এগিয়ে যাবো।"

ছবির ক্যাপশান,

ডোনাল্ড ট্রাম্পের টুইট

২০১৬ সালে মি ট্রাম্পের নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে সীমান্ত পারাপারের সময় অবৈধ অভিবাসী আটকের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় কমে গেছে।

তবে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে অভিবাসী পারাপারের সংখ্যা বেড়ে গেছে।