ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৪৮ রানে হারিয়ে দিলো বাংলাদেশ

সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা ছবির কপিরাইট ক্রিকইনফো
Image caption সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা

টেস্টে চরম বিপর্যয়ের পর ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ক্যারিবিয়ানদের ৪৮ রানে হারিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গিয়েছে বাংলাদেশ ।

শুরুতে উইকেট হারালেও তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান মিলে দ্বিতীয় উইকেটে গড়েছেন ২০৭ রান।

দ্বিতীয় উইকেটে এটিই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড।

তামিম খেলেছেন ১৩০ রানের ইনিংস এবং এটি ওয়ানডেতে তার দশম সেঞ্চুরি।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে তামিম-সাকিবের রানের ওপর ভর করে বাংলাদেশ তুলেছিলো ২৭৯ রান।

তবে ১১ বলে ৩০ রানের একটি ছোট্ট কিন্তু কার্যকরী ইনিংস খেলেছেন মুশফিকুর রহিম।

জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৯ উইকেট পড়ে যায় ১৭২ রানেই।

শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে নয় উইকেটে ২৩১ রান তুলতে সমর্থ হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ চার উইকেট পেয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফি।

টেস্টে হারার বিপর্যয় কাটিয়ে জয় এলো কিভাবে?

গায়ানা থেকে বাংলাদেশে ক্রীড়া সাংবাদিক রাকিবুল হাসান বলেন ম্যাচের আগে তারা ঠিক এই প্রশ্নই করেছেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাকে।

রাকিবুল হাসানের মতে মাঠেও মর্তুজার নেতৃত্ব ছিলো যথারীতি প্রশংসনীয় এবং টস জিতে ব্যাটিং নেয়ার সিদ্ধান্ত সঠিক প্রমাণিত হয়েছে।

"আর তামিম সাকিবের রেকর্ড ২০৭ রানের জুটিই মূলত পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। আর গায়ানার যে উইকেটে খেলা হয়েছে সেখানে প্রথম ইনিংসে এর আগে গড় রান ছিলো ২২৯। সেখানে বাংলাদেশ ২৭৯ রান করেছে। শেষ পর্যন্ত ৪৮ রানের জয়ের মাধ্যমে দারুণ শুরু করলো বাংলাদেশ"।

ক্রিস গেইলই খলনায়ক?

টেস্টে হেসে খেলে হারিয়ে দিয়েছিলো বাংলাদেশকে আর সেই বাংলাদেশের সাথে ওয়ানডেতে এমন পরাজয় কেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের।

রাকিবুল হাসান বলছেন ২১ দশমিক ৩ ওভার খেলে ক্রিস গেইল যখন রান আউট হন তখন তার রান মাত্র ৪০, তাও আবার ৬০ বল খেলে।

"এই ম্যাচে ক্রিস গেইলকেই খলনায়ক বলতে হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দৃষ্টিকোণ থেকে। কারণ স্লিপে তার হাত থেকে দুটি ক্যাচ পড়েছে। মাঠেও তার যে মুভমেন্ট সেটা বর্তমান ক্রিকেটের গতির সাথে যায়না। এ ম্যাচের প্রেক্ষাপটে এবং ক্রিস গেইলের এসব ছিলো বেমানান"।

কন্ডিশন কেমন ছিলো বাংলাদেশের জন্য?

রাকিবুল হাসান জানান এ মূহুর্তে আবহাওয়া মোটামুটি বাংলাদেশের মতোই এবং টেস্ট সিরিজের সময়ও আবহাওয়া এমনই ছিলো।

"কোন একটা অজ্ঞাত কারণে বাংলাদেশ টেস্টের সাথে মানিয়ে নিতে পারছেনা কিন্তু ওয়ানডেতে বাংলাদেশ অনেক দিন ধরেই ভালো খেলছে ধারাবাহিকভাবে। এই বৈপরীত্য কাটিয়ে ওঠাই বড় চ্যালেঞ্জ এখন বাংলাদেশের জন্য"।

ম্যাচ শেষে কি বলছে দু দল?

রাকিবুল হাসান বলেছেন সিরিজ জেতার একটা চমৎকার সুযোগ এসেছে বাংলাদেশের সামনে।

ম্যাচ শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার বলেছেন সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় দিয়ে সিরিজে ফিরে আসতে আপ্রাণ চেষ্টা করবেন তারা।

অন্যদিকে বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলছেন আর একটি ম্যাচ জিততে পারলেই বাংলাদেশ সিরিজ জিতবে আর সেটিই করার চেষ্টা করবেন তারা।

তিনি বলেন মাশরাফি আশা করেছেন গায়ানা থেকে সিরিজ জিতে নেবে বাংলাদেশ।

আরো পড়তে পারেন:

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারানোর ৫টি মন্ত্র

ভেঙে ফেলা হতে পারে শ্রীলঙ্কার গল স্টেডিয়াম

এশিয়া কাপে উড়ছে নারী ক্রিকেটাররা, উন্নতির রহস্য

সম্পর্কিত বিষয়

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর