নিরাপদ সড়ক: ঢাকার জিগাতলা-সায়েন্স ল্যাব শান্ত, অশান্ত বাড্ডা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল
Image caption ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল

বাংলাদেশে নিরাপদ সড়ক নিয়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষুব্ধ আন্দোলন নিয়ে এক সপ্তাহরও বেশি সময় ধরে রাজধানী ঢাকার যে চিত্র ছিল, আজ হঠাৎ করেই তা বদলে গেছে।

স্কুলের ইউনিফর্ম পরা, আইডি কার্ড ঝোলানো হাজার হাজার যে কিশোর-কিশোরী গত এক সপ্তাহ ধরে কার্যত: ঢাকার রাস্তার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছিল, তারা আজ হঠাৎ উধাও।

তবে ব্যতিক্রম ছিল বাড্ডা এলাকা। সেখানে বেসরকারি ইস্ট-ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে হাঙ্গামার খবর পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, সেখানে সরকারি দলের অঙ্গ সংগঠন ছাত্রলীগের বেশ কিছু সদস্য সকালের দিকে ছাত্র-ছাত্রীদের ক্যাম্পাস ঢুকতে বাঁধা দিলে সংঘর্ষ শুরু হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র হৃদয় ইসলাম বিবিসিকে বলেছেন, ছাত্রলীগের ছেলেরা বেশ কিছু শিক্ষার্থীকে মারধর করেছে। ভাঙচুর করেছে।

পরে পুলিশ বেশ কয়েক দফা কাঁদাসে গ্যাস ছুঁড়েছে।

"সকাল সাড়ে দশটার দিকে হাঙ্গামা শুরু হয়। মনে হয়, গতকাল ছাত্রলীগের একটি মিছিলকে ধাওয়া দেওয়ার ঘটনার বদলা নিতে এই হামলা করা হয়েছে," বলেন হৃদয় ইসলাম।

তিনি জানান, বেলা তিনটা পর্যন্ত হাজার খানেক ছাত্র-ছাত্রী ক্যাম্পাসে আটকা পড়ে আছেন, ভয়ে বেরুতে পারছেন না। বাংলাদেশে নিরাপদ সড়ক নিয়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষুব্ধ আন্দোলন নিয়ে এক সপ্তাহরও বেশি সময় ধরে রাজধানী ঢাকার যে চিত্র ছিল, আজ হঠাৎ করেই তা বদলে গেছে।

Image caption ইস্ট-ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশের টিয়ার গ্যাস

জিগাতলা- ধানমন্ডি- সায়েন্স ল্যাব

তবে গত দু'দিন ঢাকার ধানমন্ডি, জিগাতলা, সায়েন্স ল্যাব এলাকায় যে তুমুল বিক্ষোভ-সংঘর্ষ-সহিংসতা হয়েছে, সোমবার তার লেশমাত্র নেই।

নিরাপদ সড়কের আন্দোলন এক সপ্তাহ ধরে চললেও ঢাকার আবাসিক-কাম-বাণিজ্যিক এই এলাকাটি শনিবার থেকে হঠাৎ করে রণক্ষেত্র হয়ে উঠেছিল । তবে আজ হঠাৎ সবকিছু শান্ত।

সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এলাকাটিতে ঘুরেছেন বিবিসি বাংলার কাদির কল্লোল।

ধানমন্ডি এলাকার যেসব ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, সেগুলো বন্ধ দেখতে পেয়েছেন তিনি।

"ছাত্র-ছাত্রীদের চোখে পড়েনি, তবে রাস্তায় প্রচুর পুলিশ" - জানান কাদির কল্লোল।

সায়েন্স ল্যাবের মোড়ে জল-কামান এবং কাঁদানে গ্যাস ছোড়ার সাঁজোয়া যান নিয়ে দাঙ্গা পুলিশ অবস্থান নিয়ে আছে। সকালের দিকে বাস তেমন না থাকলেও, রাস্তায় প্রাইভেট কার, রিকশা ছিল।

ধানমন্ডির মিরপুর রোডে একটি সরকারি হাই স্কুল খোলা ছিল। গেটের কাছে কিছু শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকের সাথে কথা বলতে চাইলে তারা কথা বলতে রাজী হননি।

আরও পড়ুন:

'শহীদুল আলমকে একদল লোক তুলে নিয়ে গেছে'

নিরাপদ সড়ক আন্দোলন নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

Image caption ইস্ট-ওয়েস্ট ক্যাম্পাসের মধ্যে পুলিশের টিয়ার শেল

শাহবাগ-কাঁটাবন-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

সায়েন্স ল্যাব থেকে মাইল খানেক দুরে কাঁটাবনের মোড়ে বেলা ১২ টার দিকে পুলিশের সাথে একদল তরুণ-যুবককে বসে থাকতে দেখা যায়।

তাদের একজন স্বীকার করেন, তারা সরকারি দলের অঙ্গ সংগঠন ছাত্র লীগের সদস্য।

কিছুটা দুরে শাহবাগের মোড়ে গিয়ে বেশ কিছু বাস চলাচল করতে দেখা যায়। মতিঝিল থেকে, প্রেস ক্লাব হয়ে মহাখালী পর্যন্ত বাস চলছে, তবে সংখ্যা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক কম।

একই সময়ে এলাকায় বেশ কিছু ছাত্রলীগ কর্মীকে মোটরবাইক নিয়ে ঘুরতে দেখা যায়।

কাদির কল্লোল জানান, বেলা তিনটা পর্যন্ত রাজধানীর কোথাও শিক্ষার্থীদের রাস্তায় নামার খবর তিনি পাননি।

Image caption সোমবার দুপুরে ধানমন্ডি এলাকা

বেলা একটার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গিয়ে দেখা যায়, কয়েকশ ছাত্র-ছাত্রী বিক্ষোভ মিছিল করছে।

নিরাপদ সড়কের দাবি এবং 'সরকারি দমন-পীড়নের' প্রতিবাদ ছিল তাদের স্লোগানে।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর