নিরাপদ সড়ক আন্দোলন: রিমান্ড থেকে কারাগারে ফিরলেন আলোকচিত্রী শহিদুল আলম

পুলিশী হেফাজতে শহিদুল আলম

ছবির উৎস, AFP

ছবির ক্যাপশান,

পুলিশী হেফাজতে শহিদুল আলম

বাংলাদেশে সড়ক নিরাপত্তার দাবীতে ছাত্র আন্দোলনের মাঝে গ্রেপ্তার আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

তার বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে উসকানি দেয়ার অভিযোগ রয়েছে।

মি. আলমকে গোয়েন্দা পুলিশ গত ৫ই অগাস্টের রাতে তার ধানমণ্ডির বাসা থেকে আটক করে।

পরে তথ্য প্রযুক্তি আইনের একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাকে পুলিশ সাত দিনের রিমান্ডে নেয়।

দৃক গ্যালারির প্রতিষ্ঠাতা শহিদুল আলমের গ্রেফতারের খবরে বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়।

পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মি. আলমকে রোববার আদালতে হাজির করা হয়।

গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তা তার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত মি. আলমকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করলে ঢাকার মহানগর হাকিম সেই আবেদন গ্রহণ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

ওদিকে শহিদুল আলমের রিমান্ড চ্যালেঞ্জ করে তার স্ত্রী অধ্যাপক রেহনুমা আহমেদ এর আগে হাইকোর্টে একটি রিট দায়ের করেছিলেন।

আদালত তখন পুলিশের হেফাজত থেকে তাকে দ্রুত হাসপাতালে সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দিয়েছিল।

নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের সময় শহিদুল আলম বেশ ক'বার ফেসবুক লাইভে এসে তখনকার পরিস্থিতি নিয়ে তার মতামত প্রকাশ করেছিলেন।

পাশাপাশি কাতার-ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল জাজিরাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ঐ আন্দোলনের প্রসঙ্গে তিনি সরকারের কঠোর সমালোচনা করেছিলেন।

আরো পড়তে পারেন: