প্রথম পর্যটক হিসেবে চাঁদে যাবেন যে জাপানি কোটিপতি

শিল্পীর কল্পনায় স্পেসএক্সের বিএফআর রকেট, যেটিতে করে পর্যটকদের চাঁদে নেয়া হবে। ছবির কপিরাইট SPACEX
Image caption শিল্পীর কল্পনায় স্পেসএক্সের বিএফআর রকেট, যেটিতে করে পর্যটকদের চাঁদে নেয়া হবে।

নিজের অর্থ খরচ করে প্রথম চাঁদে যাচ্ছেন যে পর্যটক, তার নাম প্রকাশ করেছে স্পেস এক্স। এলন মাস্কের কোম্পানি জানাচ্ছে, জাপানি কোটিপতি এবং অনলাইন ফ্যাশন টাইকুন ইয়োসাকু মায়েযাওয়া হবেন চাঁদের উদ্দেশ্যে ছাড়া তাদের প্রথম রকেটের যাত্রী।

মিস্টার মায়েযাওয়া জানিয়েছেন, তিনি চাঁদে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

পৃথিবী থেকে চাঁদের উদ্দেশে সর্বশেষ মনুষ্যবাহী রকেট গিয়েছিল ১৯৭২ সালে।

স্পেসএক্স ২০২৩ সাল নাগাদ তাদের রকেট পাঠানোর পরিকল্পনা করছে।

তবে যে রকেটে করে স্পেসএক্স এই অভিযান চালাবে, সেটিই এখনো পর্যন্ত তৈরি হয়নি। এলন মাস্ক তাই এই বলে সতর্কও করে দিয়েছেন যে, তাদের এই চন্দ্রাভিযান যে হবেই, তার শতভাগ নিশ্চয়তা তিনি দিতে পারছেন না।

মঙ্গলবার ক্যালিফোর্নিয়ার হেথোর্নে স্পেসএক্স এর সদর দফতরে তিনি এই ঘোষণা দেন।

আরও পড়ুন:

রকেটে চড়ে আধঘন্টায় লন্ডন থেকে নিউ ইয়র্ক

মহাকাশে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট

মহাকাশ থেকে ভারতের বাতাস কেন দেখতে ভিন্ন

জাপানি ধনকুবের মিস্টার মায়েযাওয়া গত বছর নিউ ইয়র্কে এক নিলামে দশ কোটি পনের লাখ ডলারে একটি চিত্রকর্ম কিনে সংবাদ শিরোনাম হয়েছিলেন।

মিস্টার মায়েযাওয়া বলছেন, তিনি চাঁদে যাবেন যে রকেটে, সেটিতে ছয় হতে আটজন শিল্পীকেও তার সহযাত্রী হতে আমন্ত্রণ জানাতে চান।

ছবির কপিরাইট SPACEX
Image caption এলন মাস্কের কাঁধে জাপানি ধনকুবের ইয়োসাকু মায়েযাওয়া

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, "পৃথিবীতে ফিরে আসার পর আমি এই শিল্পীদের কিছু একটা সৃষ্টি করতে বলবো। এসব 'মাস্টারপিস' আমাদের নতুন স্বপ্ন দেখতে উজ্জীবীত করবে।

পৃথিবী থেকে এ পর্যন্ত চাঁদে গেছেন মাত্র ২৪ জন মানুষ। এদের মধ্যে ১২ জন চাঁদের মাটিতে পা রেখেছেন। চাঁদে যাওয়া মানুষদের ২৪ জনই মার্কিন নাগরিক।

মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসা'র 'অ্যাপোলে ১৭' ছিল চাঁদে যাওয়া সর্বশেষ রকেট। এটি ১৯৭২ সালের ডিসেম্বরে চাঁদে অবতরণ করে।

তবে মিস্টার মায়েযাওয়াকে নিয়ে স্পেসএক্সের যে রকেট চাঁদে যাবে, সেটি আসলে সেখানে অবতরণ করবে না। এটি চাঁদের চারপাশ দিয়ে চক্কর দেবে এবং তারপর আবার পৃথিবীতে ফিরে আসবে।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর