তিব্বতের আধ্যাত্মিক নেতা দালাইলামার ব্যক্তিগত জীবন আসলে কেমন?

টিভি সিরিয়াল দেখছেন দালাইলামা ছবির কপিরাইট RAGHU RAI
Image caption টিভি সিরিয়াল দেখছেন দালাইলামা

তিব্বতের আধ্যাত্মিক নেতা দালাইলামাকে নিয়ে কৌতূহলের শেষ নেই। নির্বাসিত এ ব্যক্তিত্বের ব্যক্তিগত জীবন আসলে কেমন ?

ভারতীয় ফটোসাংবাদিক রাঘু রাই-এর একটি নতুন বই এসেছে বাজারে যেখনে তিনি অনেকটা নজিরবিহীন ভাবে তুলে ধরেছেন বর্তমান বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একজন আধ্যাত্মিক নেতার জীবন।

লোকচক্ষুর অন্তরালে কিভাবে কাটে দালাইলামার সময় কিংবা ঘরে বাইরে কি করে সময় কাটান তিনি তার সবকিছুই উঠে এসেছে এ বইতে।

ইতিহাসের সাক্ষী: তিব্বতের অভ্যুত্থান

অ্যা গড ইন এক্সাইল- বা নির্বাসনে একজন ঈশ্বর নামক এই বইতে আসলে ফটোসংবাদিকের অন্তদৃষ্টিতে দেখা দালাইলামার প্র্রতিফলন ঘটেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

মি. রাই তিব্বতের এই ধর্মীয় নেতার ছবি প্রথম তুলেছিলেন ১৯৭৫ সালে।

সে ঘটনার স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেছেন, "কিভাবে যেন আমি তাঁর (দালাইলামা) সাথে দৃষ্টি বিনিময়ের সুযোগ করে ফেললাম এবং তাকে বললাম যে তাঁর কিছু ছবি তুলতে পারি কি-না। তিনি হাসলেন এবং বললেন, হ্যাঁ।"

ছবির কপিরাইট RAGHU RAI
Image caption আপনমনে কাজ করছেন

আরো পড়তে পারেন:

পশ্চিমাদের সাথে সৌদি আরবের সম্পর্ক কী ঝুঁকিতে পড়েছে?

মানুষখেকো বাঘ মারা নিয়ে ভারত কেন বিভক্ত

তারেককে ফেরত আনার পথ কেন এখনও কঠিন?

এরপর তিনি দালাইলামার ছবি তুলেছেন বহুবার এবং গড়ে তুলেছেন এক 'গভীর বন্ধুত্ব'।

১৯৫৯ সালের মার্চে চীনা সেনাবাহিনীর হামলার মুখে ভারতে পালিয়ে এসেছিলেন দালাইলামা, তখন তিনি বিশের কোঠায় থাকা এক তরুণ।

পরে ভারত সরকার তাকে রাজনৈতিক আশ্রয় দেয় এবং তিনি আবাস গড়েন উত্তরাঞ্চলীয় শহর ধর্মশালায়।

ছবির কপিরাইট RAGHU RAI
Image caption কাজ করছেন দালাইলামা

তাকে অনুসরণ করে নির্বাসনে আসে তিব্বতের প্রায় ৮০,০০০ মানুষ এবং তারা একই শহরে বসবাস শুরু করে।

একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে দালাইলামা একটি অনুষ্ঠানে একজন নারীকে আশীর্বাদ করছেন।

মি. রাই বলছেন, "যখন তিনি তিব্বতের কারও দিকে তাকান। তখন তাঁর চোখ দেখা উচিত। মনে হবে দাদু তার নাতি বা নাতনীকে আদর করছেন।"

ছবির কপিরাইট RAGHU RAI
Image caption আশীর্বাদ করছেন

২০১৪ সালে মি. রাই নিজের তোলা দালাইলামার ছবি নিয়ে একটি বই প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেন।

এসব ছবির বেশিরভাগই তোলা হয়েছে দালাইলামা যখন নিজের মতো করে একান্তে সময় কাটাচ্ছিলেন তখন।

এসব ছবি দেখে অনেকেই তাঁর প্রাত্যহিক জীবনের একটি ধারণা পাবে।

রুঘু রাই বলছেন, "তিনি প্রাণীর সাথে খেলতে ভালোবাসেন। একদিন আমি তার জন্য অপেক্ষা করছিলাম তখন হঠাৎ তার সাথে একটি বিড়াল দেখতে পাই"।

ছবির কপিরাইট RAGHU RAI
Image caption প্রাণী ভালোবাসেন দালাইলামা

ধর্মশালায় ২০১৫ সালে দালাইলামার ৮০তম জন্মদিনের অনুষ্ঠানের ছবিও তোলেন মি. রাই।

সেখানে দালাইলামার বড় ভাইও এসেছিলো এবং তাকে কৌতুক করে তিনি পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন 'ট্রাবলমেকার বা সমস্যাসৃষ্টিকারী' হিসেবে।

রাঘু রাইয়ের তোলা কিছু ছবিতে দেখা যাচ্ছে দালাইলামা নিজের টেলিভিশন ঠিক করছেন কিংবা বাড়িতে বাগানের কাজ করছেন, আর এসব তিনি নিজের হাতে করতেই পছন্দ করেন।

"আসলে তিনি আমাকে বহু ভাবে ছবি তোলার সুযোগ করে দিয়েছেন"।

ছবির কপিরাইট RAGHU RAI
Image caption বাগানের কাজে ব্যস্ত

বিবিসির অন্যান্য সাইটে

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর