বাংলাদেশে মানহানির মামলায় মইনুল হোসেন গ্রেপ্তার

মইনুল হোসেন
Image caption মইনুল হোসেন

লাইভ টিভিতে একজন নারী সাংবাদিককে 'চরিত্রহীন' বলে গালি দিয়ে বিতর্কের ঝড় তোলা আইনজীবী এবং সংবাদপত্র মালিক মইনুল হোসেনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের মুখপাত্র মাসুদুর রহমান নিশ্চিত করেছেন, রংপুর শহরে দায়ের করা এক মানহানির মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পর রাতের বেলা মইনুল হোসেনকে গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

ঢাকার উত্তরা এলাকায় জাসদের একাংশের নেতা আ স ম আব্দুর রবের বাসা থেকে গোয়েন্দা পুলিশ তাকে আটক করে তাদের কার্যালয়ে নিয়ে যায়। তারা দু'জনই বিএনপি সহ কয়েকটি দলের নতুন জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে সক্রিয় রয়েছেন।

ড: কামাল হোসেনের নেতৃত্বে এই জোটের নেতাদের বৈঠকগুলোতে মইনুল হোসেন নিয়মিত যোগ দিতেন।

গত ১৬ই অক্টোবর একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের লাইভ টক শোতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে 'চরিত্রহীন' বলে গালি দেওয়ার ঘটনায় সাবেক তত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মি. হোসেনের বিরুদ্ধে রংপুরে স্থানীয় একজন নারী মানহানির ঐ মামলাটি করেন।

তার বক্তব্য নিয়ে তুমুল সমালোচনার মুখে মি. হোসেন বিবৃতি দিয়ে দু:খ প্রকাশ করেন। কিন্তু প্রকাশ্যে তার ক্ষমা চাওয়ার দাবি ওঠে।

এরইমধ্যে তার বিরুদ্ধে গত কয়েকদিনে মানহানির অভিযোগে ছয়টি মামলা হয়েছে।

ঢাকা, জামালপুর, কুমিল্লা, কুড়িগ্রাম, ভোলা এবং রংপুরে এই মামলাগুলো হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, পাঁচটি মামলায় উচ্চ আদালত থেকে আগাম জামিন পেয়েছেন মইনুল হোসেন। কিন্তু রংপুরের মামলাটিতে জামিন না থাকায় সেই মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে।

মঙ্গলবার তাকে আদালতে হাজির করা হতে পারে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

মইনুল হোসেনের পরিবারের সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা কোন মন্তব্য করেননি।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

মামলা রাজনৈতিক: মইনুল হোসেন, ভুল স্বীকারে মাফ: মাসুদা ভাট্টি

মাসুদা-মইনুল বিতর্কে ঢুকে পড়লেন তসলিমা নাসরিন