বাংলাদেশে মোবাইল ফোনে থ্রি জি এবং ফোর জি সেবা বন্ধ

থ্রি জি ছবির কপিরাইট NurPhoto
Image caption বাংলাদেশে বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে ফ্রি এবং ফোর জি সেবা বন্ধ করা হয়।

বাংলাদেশে নির্বাচনের আগের দিন মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট থ্রি-জি এবং ফোর-জি সার্ভিস বন্ধ করে দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশে টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন বা বিটিআরসি।

শনিবার দুপুর দুইটা থেকে মোবাইল ফোনে থ্রি-জি এবং ফোর-জি সেবা পাচ্ছেন না গ্রাহকরা।

তবে মোবাইল ফোনে টু-জি সেবা পাওয়া যাচ্ছে।

রাষ্ট্রের নিরাপত্তার স্বার্থে এবং নির্বাচনের সময় 'গুজব প্রতিরোধ' করার জন্যই এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে।

নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে গেলে ৩১শে ডিসেম্বর রাত ১২ টার পর মোবাইল ইন্টারনেট স্বাভাবিক হয়ে আসতে পারে বলে ধারণা দিয়েছেন কর্মকর্তারা।

নির্বাচনের সময় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পরামর্শেই এ ধরণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সপ্তাহ দুয়েক আগে নির্বাচন কমিশনের সাথে এক বৈঠকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর তরফ থেকে ভোটের দিন মোবাইল ইন্টারনেট সেবা ফোর-জি থেকে টু-জিতে নামিয়ে আনার প্রস্তাব করা হয়েছিল।

এ ধরণের প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

আরো পড়ুন:

বিটিআরসির কথা ফেসবুক কি আদৌ শোনে?

ইন্টারনেটের গতি টু জি'তে নামালে কী ক্ষতি?

কীভাবে সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করছে রাজনৈতিক দলগুলো

ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption ইন্টারনেটের গতি টু জি'তে নেয়া হলে কার্যত অচল হয়ে পরবে বিভিন্ন যোগাযোগের সফটওয়্যার ও অ্যাপ

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ১১ টা থেকে শুক্রবার সকাল আটটা পর্যন্ত মোবাইল ইন্টারনেটে থ্রি-জি এবং ফোর-জি বন্ধ করে শুধু টু-জি সেবা চালু রেখেছিল বিটিআরসি।

থ্রি-জি এবং ফোর-জি সেবা না থাকায় মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারছেন না গ্রাহকরা।

কারণ, টু-জি সার্ভিস এতোটাই ধীরগতির যে তাতে ফেসবুক কিংবা টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মোবাইল ফোন থেকে ছবি কিংবা ভিডিও আপলোড করতে পারছেন না।

বাংলাদেশে অতীতে বিভিন্ন সময় যে কোন আন্দোলন মোকাবেলার জন্য সরকার মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট সার্ভিস বন্ধ করে দেবার নজির রয়েছে।