ফল প্রত্যাখ্যান করে নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুন:নির্বাচনের দাবি জানালো জাতীয় ঐক্য ফ্রন্ট

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ড: কামাল হোসেন: "প্রহসনের নির্বাচন বাতিল করা হোক।"

বাংলাদেশে নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ করে এর 'কথিত ফলাফল' প্রত্যাখ্যান করেছে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্ট। জোটের নেতারা একই সঙ্গে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে পুন:নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন।

জোটের আহ্বায়ক গণফোরামের নেতা ড: কামাল হোসেন ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, তারা দেশের প্রায় সব আসন থেকেই একই রকম ভোট ডাকাতির খবর পেয়েছেন। বিভিন্ন দলের শতাধিক প্রার্থী এর প্রতিবাদে নির্বাচন বর্জন করেছেন।

তিনি বলেন, "আমরা নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি, অবিলম্বে এই প্রহসনের নির্বাচন বাতিল করা হোক। এই নির্বাচনের কথিত ফলাফল আমরা প্রত্যাখ্যান করছি এবং নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুননির্বাচন দাবি করছি।"

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ করছে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্ট

জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের নেতারা জানিয়েছেন, আগামীকাল জোটের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকে তারা পরবর্তী কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করবেন।

ঐক্য ফ্রন্টের কোন কোন প্রার্থী যদি নির্বাচনে জয়ী হয়ে আসেন, সেক্ষেত্রে তারা কী করবেন - এ প্রশ্নের উত্তরে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, "আমরা পুরো নির্বাচনটাই প্রত্যাখ্যান করছি। এটা কোন নির্বাচন হয়নি। এটা ছিল নির্বাচনের নামে এক নিষ্ঠুর প্রহসন।"

আরও পড়ুন:

বিভিন্ন জেলায় এখনো পর্যন্ত নিহত ১৫ জন

'নির্বাচন ছিল তামাশা, প্রতিপক্ষ ছিল রাষ্ট্রযন্ত্র'

আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না
শেওড়াপাড়ার ভোটকেন্দ্রে যা ঘটেছিল

জাতীয় ঐক্য ফ্রন্ট যে সাত দফা দাবি জানিয়েছিল, তার কোনটিই সরকারের মানেনি, তারপরও যে তারা নির্বাচনে গিয়েছেন, সেটি ভুল ছিল কীনা এই প্রশ্নের উত্তরে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, "অনেকে বলেন যে ২০১৪ সালে আমাদের নির্বাচন বর্জন ভুল ছিল। এই নির্বাচন প্রমাণ করলো যে সেটি ভুল ছিল না।"

"আমরা সঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছিলাম। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে জেতা কখনোই সম্ভব নয়" - বলেন তিনি।