কাল থেকে কাজ না করলে মজুরি বা বেতন পাবেননা: আন্দোলনরত শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে বিজিএমইএ'র হুঁশিয়ারি

আন্দোলনরত শ্রমিকদের একটি অংশ ছবির কপিরাইট NURPHOTO
Image caption আন্দোলনরত শ্রমিকদের একটি অংশ।

বাংলাদেশ মজুরি কাঠামো নিয়ে অসন্তোষের জের ধরে গার্মেন্টস শ্রমিকদের কয়েকদিনের বিক্ষোভের পর মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ আগামীকাল থেকেই শ্রমিকদের কাজে ফেরার আল্টিমেটাম দিয়েছে।

সংকট নিরসনে সরকার একটি পর্যালোচনা কমিটি গঠন করে শ্রমিকদের কাজে ফেরার আহবান জানিয়েছিলো কিন্তু তারপরেও বিক্ষোভ অব্যাহত থাকার প্রেক্ষাপটে আজ রবিবার কঠোর হুঁশিয়ারি আসলো মালিকদের তরফ থেকে।

আজও আশুলিয়া, মিরপুরসহ বিভিন্ন জায়গায় কাজ বন্ধ রেখে সড়কে নানা ধরনের প্রতিবাদ কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে শ্রমিকরা।

পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে শ্রমিকদের কালকের মধ্যে কাজে ফিরে যাওয়ার আল্টিমেটাম দিয়ে বলেছেন, "যেসব শ্রমিক কাজে ফিরবেনা তারা কোনো মজুরি বা বেতন পাবেনা।"

আন্দোলনরত শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, "আপনারা কর্মস্থলে ফিরে যান, উৎপাদন কাজে অংশগ্রহণ করুন। আগামীকাল থেকে কারখানায় কাজ না করলে আপনাদের কোনো মজুরি দেয়া হবেনা।"

"যদি কোনো কারখানায় শ্রমিকরা কাজ না করেন তাহলে শ্রম আইনর ১৩(১) ধারা অনুযায়ী 'নো ওয়ার্ক নো পে'। কোনোভাবেই শ্রমিকদের আর কোনো বেতন প্রদান করা হবেনা," তিনি বলেন।

মিস্টার রহমান বলেন, যারা কাজ করবেনা তারা কোনোভাবেই বেতন পাবেনা।

আরো পড়ুন:

গার্মেন্টস শ্রমিকদের মজুরি সমস্যার সমাধান হচ্ছে না কেন

ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে কোন বিভক্তির আঁচ পাওয়া যাচ্ছে?

গণতান্ত্রিক দেশের তালিকায় নেই বাংলাদেশ: ইকোনমিস্ট

যে শ্রমিকদের সর্বনিন্ম মজুরী সবচেয়ে বেশি

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption মজুরি কাঠামো নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করছে শ্রমিকরা।

"আবার বলছি কাজে যোগ দেন। কাজ করুন। কাল থেকে কাজ না করলে কেউ বেতন পাবেননা"।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, শ্রমিকদের নতুন মজুরি কাঠামো নিয়ে ভিন্নমত রয়েছে। সমস্যা সমাধানে সরকার গঠিত ত্রিপক্ষীয় কমিটি কাজ করছে।

"কমিটি মজুরি কাঠামোর ব্যত্যয় থাকলে তা পুনর্বিবেচনা করবে। তার জন্য আন্দোলন ভাংচুর করার কোনো প্রয়োজন নেই"।

শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, "দেশের অর্থনীতির প্রাণ ও প্রধান কর্মসংস্থান খাত নিয়ে কেউ ছিনিমিনি খেলবে, তা হতে দিবেননা।"

"এ খাত ধ্বংস হলে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন আপনারা। আপনারা কর্মহীন হবেন। আপনাদের জন্য কর্মসংস্থান হতে পারে এমন আর কোনো খাত এখনো বাংলাদেশে গড়ে উঠেনি"।

ছবির কপিরাইট BBC Bangla
Image caption মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ ভবন ।