জন্মদিন পালন করে জরিমানা গুনলেন পপ তারকা

ফিরুসা খাফিজোভা ছবির কপিরাইট TV CHANNEL TOJIKISTON
Image caption ফিরুসা খাফিজোভা

পরিবার ও বন্ধুবান্ধবের সাথে জন্মদিন উদযাপন করে পাঁচ হাজার সোমোনি, অর্থাৎ প্রায় সাড়ে পাঁচশো মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ অর্থ জরিমানা দিয়েছেন তাজিকিস্তানের একজন জনপ্রিয় পপ তারকা ফিরুসা খাফিজোভা।

তাজিকিস্তানের মুদ্রার নাম সোমোনি।

জন্মদিন উদযাপনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে পোষ্ট করেছিলেন খাফিজোভা, যেখানে তাকে এবং তার বন্ধুদের মঞ্চে নাচ-গান করতে দেখা যায়।

আর এই অপরাধেই তাজিকিস্তানের রাজধানী দাশানবের এক আদালত এই দণ্ড দিয়েছে।

ছবির কপিরাইট TV CHANNEL TOJIKISTON
Image caption খাফিজোভার পোস্ট করা ভিডিও

কারণ দেশটির সংস্কার, প্রথা ও ঐহিত্য বিষয়ক আইনের আর্টিকেল আট অনুযায়ী, কেউ নিজের বাড়ির বাইরে জন্মদিনের আয়োজন করতে পারবেন না।

'আজব আইন'

মামলায় সরকারি কৌসুলি আইনটিকে জনগণের জন্য জরুরী বলে বর্ণনা করেন।

"এই আইনের উদ্দেশ্য হলো, মানুষ অপ্রয়োজনীয় আয়েশে বা বিলাসে খরচ না করে নিজের পরিবারের পেছনে অর্থ ব্যয় করবে।"

কিন্তু তাজিকিস্তানের অনেক নাগরিক সামাজিক মাধ্যমে এই আইনটির প্রতি অসন্তোষ ব্যক্ত করছেন।

একে 'আজব আইন' বলে বর্ণনা করে অনেকেই লিখছেন, এটা মানুষের ব্যক্তিগত পছন্দ, এতে রাষ্ট্রের হস্তক্ষেপ করা উচিত নয়।

আরো পড়ুন: খালেদা জিয়া: রাজনৈতিক যত সফলতা এবং ভুল

ইরানের নারীরা : ইসলামী বিপ্লবের আগে ও পরে

ওজন কমানোর ঔষধ দিয়ে মশার কামড় নিয়ন্ত্রণ?

ফেসবুকে একজন প্রশ্ন তুলেছেন, "মানে নেই এমন আইনের কী প্রয়োজন? আর এটা একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র?"

আরেকজন ব্যঙ্গ করে লিখেছেন, "জন্মদিন পালন করবেন? আপনি বরং দুর্নীতি দমন বিভাগের লোকজন, কর কর্মকর্তা এবং সরকারি কৌসুলিদের দাওয়াত দিন। তাহলে আর কোন সমস্যা থাকবে না।"

কিন্তু এই আইনে আর কী মানা?

তাজিকিস্তানের এই আইন ২০০৭ সালে প্রণয়ন করা হয়, এবং ২০১৭ সালে সংস্কার করে আইনটির পরিধি আরো বাড়ানো হয়।

শুরুতে কেবল দেশটির সংস্কার ও ঐহিত্য সংরক্ষণ এর লক্ষ্য ছিল, পরে বিবাহ, শেষকৃত্য এবং সন্তান জন্ম দেয়ার ক্ষেত্রেও এই আইনে ধারা রয়েছে।

বিয়েতে কতজন অতিথিকে দাওয়াত দেয়া যাবে, আর কত পদের খাবার পরিবেশন করা যাবে, সে বিষয়ে আইনে কঠোর বিধিনিষেধ রয়েছে।

আবার পরিবারের কোন সদস্যের মৃত্যুর পর মুসলিম পরিবারে সাধারণ গরু-ছাগল জবাই করে যে ভোজের ব্যবস্থা করা হয়, এ আইনে সেক্ষেত্রে একটি সীমা বেধে দেয়া হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, এই আইন করাই হয়েছে, যাতে মানুষ অতিরিক্ত ব্যয় না করে।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়তে পারেন: এ আর রহমানের কন্যার বোরখা নিয়ে দিনভর বিতর্ক

ভারতে প্রশিক্ষণ নিতে যাবেন আঠারোশো আমলা

কারাগারে খালেদা জিয়ার একবছর: কী বলছে বিএনপি?

আর অনেক মানুষ যেমন বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত ব্যয় করতে গিয়ে ঋণের বোঝা মাথায় নেয়, সেটি ঠেকানোর জন্যই এই আইন বলবত করা হয়েছে।

পশ্চিমা দেশের মানুষজন এই আইনটিকে নিয়ে মজা করলেও, খোদ তাজিকিস্তানের মানবাধিকার কর্মীরা আইনটিকে ব্যক্তি স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ মনে করেন।

আর খাফিজোভা আইন ভঙ্গ করার দায়ে দণ্ড পাওয়া বা জরিমানা হওয়া প্রথম তারকা নন।

দেশটির আইন মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, ২০১৮ সালে ৬৪৮ ব্যক্তিকে জরিমানা করা হয়েছে।

তাদের কাছ থেকে প্রায় সাড়ে তিন লাখ মার্কিন ডলারের মত জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

সম্পর্কিত বিষয়