নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশ ক্রিকেট: প্রথম ওয়ানডেতে হার, কোথায় পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ?

ক্রিকেট, নিউজিল্যান্ড, বাংলাদেশ ছবির কপিরাইট Kerry Marshall
Image caption শুরু থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় বাংলাদেশ

বুধবার নিউজিল্যান্ডের ন্যাপিয়ারে স্বাগতিক দলের বিপক্ষে ৮ উইকেটে হেরে গিয়েছে বাংলাদেশ।

শুরুতে ব্যাট করে বাংলাদেশ ২৩২ রান তোলে।

সর্বোচ্চ ৬২ রান তোলেন মোহাম্মদ মিথুন।

লোয়ার অর্ডারে মেহেদী হাসান মিরাজ ২৬ এবং মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ৪১ রান তোলেন।

নিউজিল্যান্ড ব্যাট করতে নেমে বেশ সাবধানী শুরু করে।

ধীরে ধীরে রানের গতি বাড়িয়ে মার্টিন গাপটিল ও হেনরি নিকোলস ১০৩ রানের জুটি গড়েন।

নিকোলস ৫৩ রান এবং উইলিয়ামসন ১১ রান করে ফিরে যান।

এরপর রস টেলর এবং মার্টিন গাপটিল রানের চাকা সচল রেখে নিউজিল্যান্ডকে নিরাপদে নির্ধারিত লক্ষ্য অতিক্রম করান।

১১৭ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন গাপটিল।

আরো পড়ুন:

যেভাবে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফিরলেন সাব্বির রহমান

নিউজিল্যান্ড সফর কি বাংলাদেশের জন্য আসল পরীক্ষা?

বাংলাদেশ জাতীয় দলে ঘরোয়া ক্রিকেট তারকাদের সুযোগ কতটা?

কোন কোন জায়গায় পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ?

টপ অর্ডার

একদম ম্যাচের গোড়া থেকেই উইকেট হারাতে থাকে বাংলাদেশ।

যার মধ্যে তামিম ইকবাল ৬ বলে ৫, লিটন দাস ৮ বলে ১ রান করে আউট হয়ে যান।

সৌম্য সরকার কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করলেও ২২ বলে ৩০ রান করে তিনিও প্যাভিলিয়নে ফেরেন।

টপ অর্ডার নিউজিল্যান্ডের পেস বোলারদের গতি সামলাতে ব্যর্থ হয়।

নিখাদ ব্যাটিং উইকেট ছিল ন্যাপিয়ারে তবে শুরুর কিছু ওভার উইকেট বাঁচিয়ে খেললে পরের দিকে স্কোরিং রেট বাড়িয়ে নেয়া যেতো।

মিডল অর্ডারে একমাত্র মিথুন ৯০ বলে ৬২ রান তুলে ২০০ এর ঘরে নিয়ে যান বাংলাদেশের ইনিংস।

মুশফিকুর রহিম করেন ৫, সাব্বির রহমান ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ উভয়েই ১৩ রান করে করেন।

বোলারদের ব্যর্থতা

বোলিংয়েও বাংলাদেশ কখনোই নিউজিল্যান্ডকে চাপে ফেলতে পারেনি।

যতক্ষন উইকেটে ছিলেন নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা ততই থিতু হয়ে ব্যাট করতে থাকেন।

বাংলাদেশ আজকের ম্যাচে অলরাউন্ডার সহ নয়জন ব্যাটসম্যান নিয়ে মাঠে নামে।

ছবির কপিরাইট Kerry Marshall
Image caption পেস বা স্পিন কোনো বোলিং দিয়ে নিউজিল্যান্ডকে বিপদে ফেলতে পারেনি বাংলাদেশ

নয়জন ব্যাটসম্যান নিয়ে নামার পরও ব্যাটিং ব্যর্থতায় যে ঘাটতি ছিল, সেটা পূরণ করতে পারেননি কোন বোলারই।

মাশরাফী বিন মোত্তর্জা ও মুস্তাফিজুর রহমান ছিলেন আজকের ম্যাচের দুজন স্পেশালিস্ট পেসার, তারা কোন উইকেটই শিকার করতে পারেননি।

এছাড়া মিরাজ ও সাইফুদ্দিন বল করে খুব সুবিধা করতে পারেননি।

পঞ্চম বোলারের অভাব পূরণে কাজে লাগানো হয় সাব্বির রহমান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও সৌম্য সরকারকে।

কিন্তু এধরণের উইকেটে শুরুতে চাপে না ফেলতে পারলে ম্যাচে ঘুরে দাড়াঁনো কঠিন হয়ে পড়ে, সেখান থেকেই পরাজয়ের দিকে এগুতে থাকে বাংলাদেশ।

৩ ম্যাচ সিরিজের ২য় ওয়ানডেতে দুদল মুখোমুখি হবে শনিবার।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়তে পারেন:বাংলাদেশে গণতন্ত্র রক্ষায় ট্রাম্প প্রশাসনকে ব্যবস্থা নেবার আহ্বান

বিশ্বের কুখ্যাত অপরাধী 'এল চাপো' দোষী প্রমাণিত

বাংলাদেশে এফএম রেডিওতে কি সংবাদ চলে?

সম্পর্কিত বিষয়