সৌদি আরবের একটি অ্যাপ নিয়ে তদন্ত করবে অ্যাপল

নারীকে বিদেশ ভ্রমণে বাধা দিতে এই অ্যাপটি ব্যবহৃত হয় বলে বলছেন মানবাধিকার কর্মীরা ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption নারীকে বিদেশ ভ্রমণে বাধা দিতে এই অ্যাপটি ব্যবহৃত হয় বলে বলছেন মানবাধিকার কর্মীরা

সৌদি আরবের এই অ্যাপটি ব্যবহার করা হতো নারীদের বিশেষ করে তাদের ভ্রমণ থেকে বিরত থাকার জন্য।

অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী বলছেন নারীদের ট্র্যাক করা কিংবা তাদের ভ্রমণ থেকে বিরত রাখার জন্য সৌদি অ্যারাবিয়ান এই অ্যাপটি ব্যবহৃত হয়ে থাকতে পারে।

এক সাক্ষাতকারে টিম কুক বলেন 'আবশের অ্যাপ' সম্পর্কে তারা আগে জানতেননা। তবে এখন তারা বিষয়টি দেখছেন।

মাত্র পাঁচ মিনিটে স্মার্ট ফোন চার্জ করা যাবে!

শিশুকে কতোক্ষণ স্ক্রিন ব্যবহার করতে দেওয়া উচিত?

যে যৌনপল্লীতে নেই যৌনকর্মী, আছে শুধু সেক্স ডল

এই অ্যাপটি সরকারী সংস্থাগুলোকে প্রবেশাধিকার দিয়ে থাকে ফলে ব্যবহারকারীদের অজান্তেই তারা কি করছেন সেটি সরকার সংস্থাগুলো জানতে পারে।

এ কারণে মানবাধিকার সংগঠনগুলো এর তীব্র সমালোচনা করছিলো।

যুক্তরাষ্ট্রের একজন ডেমোক্রেটিক সিনেটর অ্যাপল ও গুগলকে এই অ্যাপটি তাদের স্টোর থেকে সরিয়ে ফেলার আহবান জানিয়েছেন।

সৌদি আরবের নারীদের দেশের বাইরে যেতে হলে একজন পুরুষ অভিভাবক বিশেষত স্বামী বা বাবার অনুমতি নিতে হয়।

ছবির কপিরাইট STOREDOT
Image caption অ্যাপটি স্মার্ট ফোনে ব্যবহার করা হয়

আবশের অ্যাপটি, যেটি ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন, ভ্রমণের অনুমতি দেয়া বা না দেয়ার মতো সরকারী সেবার জন্যই ডিজাইন করা হয়েছিলো।

এটি স্মার্ট ফোনে ব্যবহার করা হয়।

মূলত এটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন্য করা হয়েছিলো।

গত কয়েক বছরে লাখ লাখ বার এটি ডাউনলোড করা হয়েছে।

এক তদন্তে দেখা যায় কিভাবে পুরুষ অভিভাবকরা স্ত্রী, বোন ও কন্যাদের আন্তর্জাতিক ভ্রমণের অনুমতি দিতে এটি ব্যবহার করছেন।

কোন নারী বিদেশে যেতে চাইলে সংশ্লিষ্ট পুরুষ অভিভাবক একটি নোটিফিকেশন পেয়ে থাকেন।

আর এটিকেই মানবাধিকার লঙ্ঘন কিংবা নারীর বিরুদ্ধে বৈষম্য বলছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো।

গুগল অবশ্য বিষয়টি নিয়ে বিবিসি কাছে কোনো মন্তব্য করেনি।