বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স এইট ওড়া বন্ধ করলো ভারতের এয়ারলাইন্সগুলোও

ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১৫৭ জন আরোহীর সবাই মারা যায় ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১৫৭ জন আরোহীর সবাই মারা যায়

পর পর দুটি দুর্ঘটনার পর বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স এইট বিমানটি নিরাপদ কিনা - এ সংশয়ের মধ্যে অনেকগুলো এয়ারলাইনের মত ভারতও এই বিমানটি ওড়ানো বন্ধ করে দিয়েছে।

ভারতের যে এয়ারলাইনগুলোর কাছে এই ধরনের বিমান আছে, বুধবার মধ্যরাতে দেশের বিমান চলাচল মন্ত্রণালয় এই সিদ্ধান্তের কথা তাদের জানিয়ে দিয়েছে - এবং এর ফলে ভারতে প্রতিদিন অন্তত আশিটি রুটের বিমান চলাচল প্রভাবিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মাত্র কয়েক মাসের ব্যবধানে ইন্দোনেশিয়া ও ইথিওপিয়াতে পর পর দুটি বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স এইট বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর বহু দেশই এই বিমান চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ।

সেই তালিকাতে ভারতের নামও এখন যুক্ত হলো।

ভারতের দুটি প্রথম সারির বেসরকারি এয়ারলাইন - স্পাইসজেট ও জেট এয়ারওয়েজের হাতে এই মুহুর্তে মোট আঠারোটি বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স বিমান রয়েছে, যে এয়ারক্র্যাফট নিয়ে বিতর্ক আর সন্দেহ এখন সারা দুনিয়া জুড়ে। বুধবার থেকে সেগুলো আকাশে উড়ছে না, ভারতের আকাশেও ঢুকতে পারছে না এই বিমান।

ভারতে ক্রমবর্ধমান এভিয়েশন সেক্টরের জন্য এই সিদ্ধান্ত একটা বড় ধাক্কা, কিন্তু এছাড়া কোনও উপায় ছিল না বলেই মনে করছেন এই খাতের বিশেষজ্ঞ হর্ষ বর্ধন।

বোয়িং-এর স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে

তিনি বলছেন, "সুরক্ষার স্বার্থেই এই বিমানগুলোকে গ্রাউন্ড করার সিদ্ধান্ত যথাযথ হয়েছে বলে আমি মনে করি। এখন এগুলোকে আবার পুরোদস্তুর পরীক্ষা করা দরকার, কোনও ত্রুটি পাওয়া গেলে সেগুলো শোধরানো দরকার। পাইলটদের এগুলো চালানোর প্রশিক্ষণে কোনও ফাঁকফোকর থাকলে সেটাও দেখতে হবে।"

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

একের পর এক দেশ নিষিদ্ধ করছে বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption অনেকগুলো এয়ারলাইন্স ইতোমধ্যেই বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স এইট বিমান ওড়ানো বন্ধ করে দিয়েছে।

"এমনিতে বোয়িং একটি দারুণ সংস্থা - বিশ্বে এভিয়েশনের সম্প্রসারণ ও বিপ্লবে তাদের অনেক অবদান অনেক - কিন্তু তার মানে এই নয় যে এই পরিস্থিতিতে সুরক্ষার সঙ্গে কোনও আপস করতে হবে।"

সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স নিয়ে নানা ধরনের প্রশ্ন উঠলেও বোয়িং সেগুলোর জবাব দিতে এখনও স্বচ্ছতার পরিচয় দিতে পারছে না বলেই মনে করছেন দিল্লির সঙ্গীতা সুনেজা - যার ছেলে ভাব্যে সুনেজা ছিলেন গত অক্টোবরে জাভা সাগরে বিধ্বস্ত হওয়া লায়ন এয়ার ফ্লাইটটির পাইলট।

তার কাছে জানতে চেয়েছিলাম ওই ঘটনার পর বোয়িং বা লায়ন এয়ার তাদের পরিবারের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ করেছিল কি না।

মিসেস সুনেজা জানাচ্ছেন, "বোয়িং তো আমাদের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ করেইনি - বরং তারা এই এয়ারক্র্যাফট নিয়ে যাবতীয় প্রশ্নই এড়িয়ে যাচ্ছে। আমি তো বলব তারা ভীষণ উদ্ধত একটি কোম্পানির মতো আচরণ করছে।"

"আমি নিজে একটি এয়ারলাইন সংস্থায় তেত্রিশ বছর কাজ করেছি - এবং আমি জানি যখনই কোনও নতুন উড়োজাহাজ কেনা হয়, তখন নানা ছোটখাটো টেকনিক্যাল গ্লিচ বা ত্রুটি অস্বাভাবিক কিছু নয়। কিন্তু এটা তো একটা মারাত্মক ত্রুটি - তারপরেও আমরা বোয়িংয়ের কথা কেন বিনা প্রশ্নে মেনে নিচ্ছি, কেন অন্ধভাবে তাদের বিশ্বাস করছি?"

বোয়িংয়ের পক্ষে এই মুহুর্তে এখন একমাত্র যুক্তি হল, আমেরিকার প্রায় সব এয়ারলাইনই এখনও সেভেনথ্রিসেভেন ম্যাক্স আকাশে ওড়াচ্ছে, এটিকে নিষিদ্ধ করেনি এয়ার কানাডাও।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption লন্ডনের হিথরো বিমান বন্দরেও বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন ম্যাক্স এইট ওঠানামা বন্ধ

কিন্তু কীসের ভিত্তিতে তারা সেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সেটা স্পষ্ট নয় বলেই বলছেন এভিয়েশন বিশেষজ্ঞ সত্যেন্দ্র পান্ডে।

মি. পান্ডের কথায়, "উত্তর আমেরিকার রেগুলেটররা যদি সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন তারা এই বিমান গ্রাউন্ড করবেন না তাহলে তাদের কিন্তু জানানো দরকার অমুক অমুক কারণে আমরা বোয়িং সেভেনথ্রিসেভেন ম্যাক্স গ্রাউন্ড করছি না। সেটা না বলে তারা শুধু এটুকু বলেই দায় সারছেন, যে এই বিমান যে বিপজ্জনক তার পক্ষে যথেষ্ট ডেটা নেই।"

"কিন্তু এটাই কি যথেষ্ট ডেটা নয় যে এভিয়েশনের ইতিহাসে আর কখনও একই ধরনের দুটো বিমান মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে একইভাবে ভূপাতিত হয়নি? আর তাতে মারাও গেছেন প্রায় সাড়ে তিনশো মানুষ?"

ভারতও প্রথমে সেভেনথ্রিসেভেন ম্যাক্স-কে পুরোপুরি গ্রাউন্ড না-করিয়ে এক হাজার ঘন্টারও বেশি বিমান চালানোর অভিজ্ঞতাসম্পন্ন পাইলটদের দিয়েই কেবল তা চালানো যাবে বলে ঘোষণা করেছিল।

কিন্তু সুরক্ষার প্রশ্নটি ক্রমে এতটাই বড় আকার নেয় যে মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যেই তারাও সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া বা ইউরোপের পথেই হাঁটতে বাধ্য হলো।

আরো পড়ুন:

'সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ছাত্রলীগ একটি পদও পাবে না' - নূর

ডাকসু নির্বাচন: যে সমীকরণে দাঁড়ালো এমন ফলাফল

ডাকসুতে ছাত্রলীগের শোভন পরাজিত, নুরুল ভিপি