চাকুরির ইন্টারভিউ বোর্ডে রোবট যখন আপনার পরীক্ষা নেবে

ইন্টারভিউ বোর্ডে সামনের দিনগুলোতে হয়তো রোবটকেই দেখা যাবে প্রধান ভূমিকায়। ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ইন্টারভিউ বোর্ডে সামনের দিনগুলোতে হয়তো রোবটকেই দেখা যাবে প্রধান ভূমিকায়।

মানুষের পরিবর্তে রোবট যদি আপনার চাকুরির ইন্টারভিউ নিতে শুরু করে, সেটি আপনার কেমন লাগবে?

সুইডেনে ঠিক তাই করা হচ্ছে। চাকুরির ইন্টারভিউতে যেন কারও প্রতি বিশেষ পক্ষপাত দেখানো না হয়, সেটি নিশ্চিত করতে সুইডেনে এই ইন্টারভিউ নেয়ার জন্য একটি বিশেষ রোবট তৈরি করা হয়েছে। এটির নাম টেংগাই।

পরীক্ষামূলকভাবে এই রোবটের ব্যবহারও শুরু করেছে দেশটির বড়চেয়ে বড় একটি রিক্রুটিং এজেন্সী।

বুলগেরিয়ার মেয়ে ইক্যাটেরিনা মার্কেটিং এ কাজ করেন। গত ছয়মাস ধরে নতুন একটি কাজ খুঁজছেন। কিন্তু কপাল মন্দ, এখনো পাননি।

"আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি। ইন্টারভিউ দিচ্ছি। কিন্তু লাভ হচ্ছে না", বলছেন তিনি।

ইক্যাটেরিনা ভালো সুইডিশ বলতে পারেন। কিন্তু তারপরও যে অনেক ইন্টারভিউতে তাকে বাদ দেয়া হয়েছে, তার পেছনে বিদেশিদের ব্যাপারে বৈষম্য এবং অবচেতনে লালন করা পক্ষপাত দায়ী বলে মনে করেন তিনি।

Image caption কর্মী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে পক্ষপাত এবং বৈষম্যের অভিযোগ আছে সুইডেনে।

"মানুষ যা চেনে, জানে, তাই বেছে নেয়। আমার মনে হয়, সুইডিশরা, বেশিরভাগ সুইডিশ, তারা ঝুঁকি নিতে চায় না। একজন বিদেশিকে কাজে নেয়া তারা একটা ঝুঁকি হিসেবে দেখে।"

সুইডেনের শ্রম বাজারে সব জাতি-বর্ণের মানুষ সমান সুযোগ পাচ্ছে কিনা, তা নিয়ে বিতর্ক অনেকদিনের। সুইডেনে থাকা যেসব মানুষের জন্ম বিদেশে, তাদের ক্ষেত্রে বেকারত্বের হার ১৫ শতাংশের বেশি। ইউরোপে কোন জনগোষ্ঠীর মধ্যে এটাই বেকারত্বের সর্বোচ্চ হার।

সুইডেনের সবচেয়ে বড় একটি রিক্রুটিং এজেন্সী টিএনজি প্রধান উদ্ভাবনী কর্মকর্তা

এলিনা ওবারমার্টিনজন । তিনি বলছেন, চাকুরির ইন্টারভিউতে পক্ষপাত, বিদ্বেষ, বিশেষ করে অবচেতনে থাকা পক্ষপাত একটা সত্যিকারের সমস্যা।

আরও পড়ুন:

রোবট কেড়ে নেবে ৭ কোটি কাজ, তৈরি করবে ১৩ কোটি

চোখের ডাক্তারের কাজ করবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স

ভবিষ্যতের নগরী: যেভাবে কাজে ছুটবে মানুষ

টিএনজি মনে করে এই সমস্যার সমাধান দেবে রোবট। টেংগাই নামের যে রোবটটি তারা ব্যবহার করছে, সেটি মানুষের মতো চোখের পাতা ফেলতে পারে, হাসতে পারে এবং আরও নানা ধরণের অনুভূতি প্রকাশ করতে পারে। টেংগাই এখন সুইডিশ ভাষায় চাকুরির ইন্টারভিউও নিতে পারে।

টেংগাই কোন পক্ষপাত ছাড়াই যারা ইন্টারভিউ দিতে আসছে তাদের উত্তরের ভিত্তিতেই যোগ্য প্রার্থী খুঁজে বের করবে, এটাই আশা করা হচ্ছে।

এলিনা ওবারমার্টিনজন বলেন, পরীক্ষামূলকভাবে রোবট ব্যবহার করে তারা বেশ ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পেয়েছেন।

Image caption চাকুরিপ্রার্থীরা কি রোবটের কাছে ইন্টারভিউ দিতে রাজী হবেন?

"কারও প্রতি কোন অবচেতন পক্ষপাত দেখায় না টেংগাই। সবাইকে ও সমানভাবে দেখে। কাজেই চাকুরির ইন্টারভিউতে টেংগাইকে ব্যবহারের জন্য কিন্তু একটা বিরাট আগ্রহ তৈরি হয়েছে।"

এই রোবটটি তৈরি করেছে স্টকহোমের রয়্যাল ইনষ্টিটিউট অব টেকনোলজির একটি স্টার্ট আপ কোম্পানি। টেংগাই এর মধ্যে যেন কোনভাবেই কোন পক্ষপাত তৈরি না হয়, সেটি তারা সবসময় যাচাই করে দেখছে। কিন্তু চাকুরির ইন্টারভিউতে রোবট ব্যবহারের এই ধারণাটি সবাই মেনে নিতে পারছেন না।

ড: মার্টিন লিন্ডলা তাদের একজন।

"কোন পদের জন্য কর্মী নিয়োগের কাজটি এক ধরণের আস্থা বা বিশ্বাসের প্রকাশ। এটা কিন্তু একটা বড় বিনিয়োগ, বড় অঙ্গীকার। এটা আমার বিশ্বাস করতেই কষ্ট হচ্ছে যে রিক্রুটিং ম্যানেজাররা একটি রোবটের ওপর নির্ভর করবেন তাদের কর্মী বাছাইয়ের জন্য।"

Image caption টেংগাই: সুইডেনে চাকুরির ইন্টারভিউ নিতে এই রোবটটি ব্যবহার করা হচ্ছে।

তবে টেংগাই এর সঙ্গে কথা বলে চাকুরিপ্রার্থী ইক্যাটেরিনা বেশ খুশি।

"প্রথমে বেশ অদ্ভুত লাগলো, আপনি একটি রোবটের দিকে তাকিয়ে আছেন। কিন্তু তারপরই কিন্তু আপনি ব্যাপারটা ভুলে যান, আপনি তার করার প্রশ্নের দিকে মনোযোগ দেন। আমার মনে হয় ইন্টারভিউর প্রথম ধাপে প্রার্থীদের যোগ্যতা যাচাইয়ের জন্য এটা ঠিক আছে। কিন্তু দ্বিতীয় ধাপে অবশ্যই নিয়োগদাতার সঙ্গে মুখোমুখি সাক্ষাতের ব্যবস্থা থাকা উচিৎ।"

চাকুরির ইন্টারভিউতে টেংগাই কতটা ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হবে তা এখনই বলা মুশকিল। কিন্তু এর মধ্যেই টেংগাইকে ইংরেজী ভাষা রপ্ত করানো হচ্ছে যাতে করে তাকে আন্তর্জাতিক বাজারেও পাঠানো যায়