টাইগার উডস: খেলার জগতে ঘুরে দাঁড়ানোর 'সবচেয়ে দুর্দান্ত' গল্প লিখলেন যিনি

গলফ, টাইগার উডস ছবির কপিরাইট Kevin C. Cox
Image caption যুক্তরাষ্ট্রের গলফ তারকা টাইগার উডস

৩,৯৫৪ দিন পর গলফের মেজর জিতলেন অ্যামেরিকান গলফার টাইগার উডস।

টাইগার উডসের ১৫তম শিরোপা এটি।

শেষবার ২০০৮ সালে ইউএস ওপেন জেতেন এই গলফার।

নানান উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে যায় এই গলফারের ক্যারিয়ার।

পারিবারিক কলহ ও দাম্পত্য জীবনে ভাঙ্গনের প্রভাব তার ক্যারিয়ারে পড়ে।

মূলত গলফ কোর্সের বাইরের জীবন নিয়েই ব্যতিব্যস্ত থাকতে হয় তাকে।

ছবির কপিরাইট Twitter
Image caption চারবার পিঠের অস্ত্রোপচার করান তিনি

র‍্যাঙ্কিংয়ে পতন থেকে শুরু হয়, অনেকে ভেবেছিল টাইগার উডসের ক্যারিয়ারই শেষ।

২০১৭ সালে একবার গ্রেফতারও হন তিনি, অসংলগ্ন অবস্থায় গাড়ি চালানোর দায়ে।

৪৩ বছর বয়সী এই গলফারের এই কীর্তিকে বড় করেই দেখছে বিশ্ব ক্রীড়াজগৎ।

বলা হচ্ছে এটিই বিশ্বের সবচেয়ে নাটকীয় ঘুরে দাঁড়ানো।

ছবির কপিরাইট Andrew Redington
Image caption অগাস্টায় মেজর জয়ের পর টাইগার উডস

কে কী বলছেন?

সেরেনা উইলিয়ামস, যিনি ২৩টি টেনিস গ্র্যান্ডস্ল্যামের মালিক। তিনি বলেন, টাইগার উডসের খেলা দেখে তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।

"আমি সত্যিই কেঁদে ফেলেছি টাইগার উডসকে দেখার পর, এই শ্রেষ্ঠত্বে কোনো ভাগ নেই," স্বদেশী টাইগার উডসকে নিয়ে টুইটারে লেখেন সেরেনা উইলিয়ামস।

বাস্কেটবল তারকা স্টিফেন কারি বলেন, খেলায় এটাই সেরা ঘুরে দাঁড়ানো।

এছাড়া কোবে ব্রায়ান্ট, ম্যাজিক জনসনদের মতো বাস্কেটবল তারকারাও টাইগার উডসকে নিয়ে স্তুতি করেন।

ছবির কপিরাইট Twitter
Image caption কোবে ব্রায়ান্ট অভিবাদন জানান উডসকে

রেয়াল মাদ্রিদ ও ওয়েলশ ফুটবলার গ্যারেথ বেল এই জয়কে অবিশ্বাস্য আখ্যা দেন।

শুধু ক্রীড়াজগৎ না, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরাও টাইগার উডসকে নিয়ে টুইট করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা উডসের অধ্যাবসায় ও পরিশ্রমের প্রশংসা করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, "খুব চাপে থেকে এই খেলা খেললেন উডস, দারুণভাবে ফিরে এসেছেন উডস।"

বিবিসির স্পোর্ট উপস্থাপক গ্যারি লিনেকার ২০১৬ সালে লেস্টার সিটি ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ জেতার পর উডসের মেজর জয়ই সবচেয়ে বড় ঘটনা ক্রীড়া জগতে।

ছবির কপিরাইট Twitter
Image caption গ্যারেথ বেল এই জয়কে বলেন অবিশ্বাস্য

টেনিসের সাবেক এক নম্বর তারকো ক্রিস এভার্ট বলেন, টাইগার প্রমাণ করেছে যে মানুষ যেকোনো সময় ফিরে আসতে পারে, খেলায়, জীবনে।

কিংবদন্তী ক্রিকেটার ইয়ান বোথাম বলেন, বিশ্বের অন্যতম অনুপ্রেরণাদায়ি একটি পারফরম্যান্স করলেন উডস। ১৫ নম্বরটি এসেছে, আরো আসবে।

অস্ট্রেলিয়ার টেলিভিশন অভিনেতা হিউ জ্যাকম্যানও উডসের প্রশংসা করে টুইট করেন।

ছবির কপিরাইট Twitter
Image caption অস্ট্রেয়িান অভিনেতা হিউ জ্যাকম্যান।

উডসের জয় নিয়ে কিছু তথ্য

পারের চেয়ে ১৩টি শট কম খেলে অগাস্টায় জয় পান টাইগার উডস।

প্রায় ১১ বছরের অপেক্ষার পর জেতেন ক্যারিয়ারের ১৫তম মেজর।

তবে মাস্টার্স হিসেব করলে শেষবার জেতেন ২০০৫ সালে।

অগাস্টা ন্যাশনালে এটি উডসের ষষ্ঠ জয়।

এবারই প্রথমবারের মতো উডস পিছিয়ে থেকে ঘুরে দাঁড়ান।

সামগ্রিক হিসেবে নিকৌলসের মেজরের চেয়ে তিনটি মেজর পিছিয়ে আছেন উডস।

টাইগার উডস ২০১৭ সালে র‍্যাঙ্কিংয়ের ১১৯৯তম অবস্থানে ছিলেন।