নারয়ণগঞ্জের দলিত সম্প্রদায়ের প্রথম নারী গ্র্যাজুয়েট
আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না

সনু রানী দাস: নারায়ণগঞ্জের দলিত সম্প্রদায়ের প্রথম নারী গ্র্যাজুয়েট - 'স্কুলে আমরা পরিচয় গোপন রাখতাম যদি পড়তে না দেয়’

নারায়ণগঞ্জের সুইপার কলোনীতে জন্ম এবং বেড়ে ওঠা সনু রানী দাসের।

তার সম্প্রদায়ের লোকজন হিন্দি সংস্কৃতি লালন করেন। নিচু বর্ণের লোক হিসেবে পরিচিত হওয়ায় সমাজে নিগ্রহেরও শিকার হতে হয় তাদের।

ফলে স্কুলে গিয়ে পড়াশোনা করা, বড় চাকরি করা এসব তাদের কাছে স্বপ্নের মতো।

এই সম্প্রদায়ের নারীরা আরো বেশি নিগৃহিত। তাদের পড়াশোনা করাকে বিলাসিতা মনে করা হয়।

সে পরিবেশ থেকে উঠে এসে ২০১৪ সালে স্নাতক পাশ করেছেন সনু রানী দাস।

নারায়ণগঞ্জের দলিত সম্প্রদায়ের প্রথম গ্র্যাজুয়েট তিনি।

২০০৬ সালে এসএসসি এবং ২০০৮ সালে এইএএসসি পাশ করেন। এক বছর বিরতি দিয়ে দিয়ে ২০১০ সালে ডিগ্রীতে ভর্তি হন।

কীভাবে তিনি বৈরি পরিবেশে থেকেও পড়ালেখা চালিয়ে গেছেন, কী কারণে দলিত সম্প্রদায়ের ছেলেমেয়েরা স্কুল থেকে ছিটকে পড়ে এসব নিয়ে কথা বলেছেন বিবিসির শাহনেওয়াজ রকির সাথে।

আরো পড়ুন:

খালেদাকে কেরানীগঞ্জে স্থানান্তর: আইনমন্ত্রী যা বললেন

যে ৫২টি পণ্য সরিয়ে নিতে বলেছে হাইকোর্ট

বাংলাদেশ ও কানাডার অর্থনীতির পার্থক্য কতটা?