ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলায় বেঁচে যাওয়াদের অনুদানের সব অর্থ দিয়ে দিলেন 'ডিম বালক'

উইল কনোলি ছবির কপিরাইট EPA
Image caption অস্ট্রেলিয়ার সেনেটরের মাথায় ডিম ভাঙ্গার পর আলোচিত হয়ে উঠেন কিশোর উইল কনোলি।

অস্ট্রেলিয়ায় চরম ডানপন্থী এক সেনেটরের মাথায় ডিম ভেঙ্গে আলোচিত হওয়া কিশোর উইল কনোলি ক্রাইস্টচার্চ হামলায় বেঁচে যাওয়াদের জন্য এক লক্ষ অস্ট্রেলীয় ডলার দিয়েছেন।

১৭ বছর বয়সী উইল কনোলি গত মার্চ মাসে সেনেটর ফ্রেসার অ্যানিং-এর মাথায় ডিম ভাঙার পর অনলাইনে তিনি 'ডিম বালক' হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠেন।

সে ঘটনার পর তাকে আইনগত সাহায্য করার জন্য অনেকেই অনুদান দিতে শুরু করেন।

ক্রাইস্টচার্চ হামলার পর সেনেটর মি: অ্যানিং মন্তব্য করেন যে মুসলিমদের অভিবাসনের কারণেরই এ হামলা ঘটেছে। সে হামলায় ৫১ জন নিহত হয়।

১৬ই মার্চ সে সেনেটর যখন মেলবোর্নে সংবাদ সম্মেলন করেন তখন ১৭ বছর বয়সী উইল কনোলি পেছন দিক থেকে সেনেটরের সাথে 'বিতণ্ডায় লিপ্ত' হন।

সে ঘটনার ভিডিও ফুটেজ ইন্টারনেট-ভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

এরপর কিশোর উইল কনোলির জন্য অনলাইনে অর্থ সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়, যাতে করে সে আরো 'ডিম কিনতে পারে' এবং তার আইনগত সহায়তার খরচ মেটাতে পারে।

পুলিশ অবশ্য মি: কনোলির বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ আনেনি। তাকে শুধু সতর্ক করে দেয়া হয়েছিল।

আরো পড়ুন:

'ডিম বালক'কে সতর্ক করলো পুলিশ, সেনেটর নির্দোষ

সেনেটরের মাথায় ডিম ভেঙ্গে ভাইরাল 'ডিম বালক'

ধর্ম বইয়ের পাতায় ঔষধ নিয়ে পাকিস্তানে তোলপাড়

মঙ্গলবার উইল কনোলি জানায়, অনলাইনে তার জন্য যে অর্থ সংগ্রহ করা হয়েছে তার সবটুকু তিনি নিউজিল্যান্ড চ্যারিটির কাছে হস্তান্তর করেছেন।

"আমি আশা করি যে এর মাধ্যমে এই ঘটনার শিকার ব্যক্তিদের জন্য কিছুটা হলেও স্বস্তি বয়ে আনবে," বলেন মি: কনোলি।

গত মার্চ মাসে অস্ট্রেলিয়ার টেন নেটওয়ার্ককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে উইল কনোলি বলেন, "আমি বুঝতে পারছি যে আমি যা করেছি সেটা ঠিক হয়নি। কিন্তু এই ডিম মানুষকে একতাবদ্ধ করেছে।"

সেনেটর মি: অ্যানিং তার মন্তব্যের জন্য জন্য ক্ষমা চাইতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। যদিও তার ক্ষমা চাওয়ার পক্ষে ১৪ লাখ মানুষ একটি পিটিশন স্বাক্ষর করেছে।

১৮ই মে অস্ট্রেলিয়ার সেনেট নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারেননি।

সম্পর্কিত বিষয়