কে এই নেসামানি যার জন্য টুইটারে সারাবিশ্ব প্রার্থনা করছে?

ছবির কপিরাইট BBC Tamil
Image caption কী হয়েছিল নেসামানির?

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাইট টুইটারে সবাই কেন নেসামানি নামের এক ব্যক্তির জন্য প্রার্থনা করছে?

ভারতে নেসামানির সুস্থতা কামনা করে #প্রে_ফর-নেসামানি এবং #নেসামানি হ্যাশট্যাগগুলো যখন টুইটারে জনপ্রিয় হওয়া শুরু করলো তখন অনেক ভারতীয় নাগরিকের মধ্যেও প্রশ্ন জাগে যে 'কে এই নেসামানি?'

শুরুতে ভারতে জনপ্রিয় হলেও কিছুদিনের মধ্যেই বিশ্বব্যাপী টুইটারে জনপ্রিয়তা লাভ করে ঐ হ্যাশটাগ দু'টো।

কন্ট্রাকটর নেসামানি অঅসলে ২০০১ সালের একটি তামিল সিনেমার এক চরিত্র।

তামিল নাড়ুর একজন জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা ঐ চরিত্রটিতে অভিনয় করেছিলেন।

সামন্প্রতিক সময়ে জনপ্রিয় একটি সিনেমা 'ফ্রেন্ডস'এর একটি দৃশ্যের ওপর ভিত্তি করে তার জন্য প্রার্থনা করার ব্যাপারটি ছড়িয়ে পড়ে।

ঐ দৃশ্যে, বিল্ডিং কন্ট্রাকটর নেসামানি'র চরিত্রে অভিনয় করেন তামিল অভিনেতা বৈদিভেলু।

সেখানে একটি ঐতিহাসিক দালান সংস্কারের চেষ্টা করেন নেসামানি, কিন্তু তার বোকা সহযোগীদের ভীষণ ঝামেলা পোহাতে হয় তাঁকে।

এক পর্যায়ে সহযোগীদের একজনের কারণে দুর্ঘটনাবশত নেসামানি'র মাথায় একটি হাতুড়ি পড়ে এবং তিনি নাটকীয়ভাবে পড়ে যান।

এখনও ভারতের শীর্ষ টুইটার ট্রেন্ড নেসামানি এবং বিশ্বব্যাপী দ্বিতীয় শীর্ষ।

এখন কেন ট্রেন্ডিং নেসামানি?

দক্ষিণ ভারতের ওয়েবসাইট নিউজ মিনিটকে চলচ্চিত্রটির একজন সম্পাদক সৌম্য রাজেন্দ্রন জানান, পাকিস্তানের একটি মিম পেইজের মাধ্যমে বুধবার শুরু হয় এই ট্রেন্ড ছড়িয়ে পড়া।

সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং লার্নার্স নামের ঐ পেইজে হাতুড়ির একটি ছবি পোস্ট করে একজন প্রশ্ন করেন, "তোমাদের দেশে এই যন্ত্রটিকে কী বলা হয়?'।

এই প্রশ্নের উত্তের এক তামিল ফেসবুক ব্যবহারকারী জানান যে এটিকে তাদের ভাষায় সুথিয়াল বলা হয় এবং 'কন্ট্রাকটর নেসামানির মাথা এর আঘাতে ভেঙে গিয়েছিল।'

আরেক তামিল ফেসবুক ব্যবহারকারী এই মন্তব্যের জবাবে মজা করেই লিখেছিল যে 'তিনি (নেসামানি) কি এখন সুস্থ আছেন?' - আর সেখান থেকেই এই ট্রেন্ড ভাইরাল হওয়া শুরু হয় বলে দাবি করেন মিজ রাজেন্দ্র।

অন্যান্য তামিল ব্যবহারকারীরাও এরপর হ্যাশট্যাগ নেসামানি ব্যবহার করা শুরু করেন এবং ঐ সিনেমাটির প্রসঙ্গ টানেন।

এর ফলে ধীরে ধীরে নেসামানি চরিত্রটি আলাদা একটি জীবন পাওয়া শুরু করে।

টুইটারে ব্যবহারকারীরা নেসামানি'র জন্য 'প্রার্থনা করা' শুরু করেন এবং দ্রুত এই বিষয় সংক্রান্ত অসংখ্য মিম ছড়িয়ে পড়া শুরু করে।

নেসামানি'র দ্রুত আরোগ্য লাভের জন্য বিশ্বনেতারা টুইট করছেন - ফটোশপ এডিট করা এরকম মিমও ছড়িয়ে পড়ে টুইটারে।

একপর্যায়ে রাজনীতিবিদ থেকে শুরু করে সিনিয়র সাংবাদিক এবং চলচ্চিত্রের সাথে জড়িতরাও নেসামানিকে নিয়ে টুইট করতে থাকেন এবং নেসামানি টুইটারে ট্রেন্ডিং হতে থাকে।

সম্পর্কিত বিষয়