চাঁদ দেখা গেছে, বাংলাদেশে ঈদ বুধবার - ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর নতুন ঘোষণা

নতুন চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ঈদের তারিখ ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption চাঁদ দেখা গেছে, বুধবারই ঈদ বাংলাদেশে

বাংলাদেশে শাওয়ালের চাঁদ দেখা গেছে, এবং এর ফলে বুধবারই ঈদুল ফিতর পালিত হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির দ্বিতীয় একটি বৈঠক শেষে বাংলাদেশ সময় রাত সোয়া এগারোটার দিকে সংবাদমাধ্যমকে একথা জানিয়েছেন।

তিনি জানান, উত্তরবঙ্গের লালমনির হাট এবং কুড়িগ্রাম থেকে স্থানীয় লোকেরা চাঁদ দেখতে পেয়েছেন বলে কমিটিকে খবর দিয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি প্রথম বৈঠকের পর বলেছিল - বাংলাদেশের কোথাও চাঁদ দেখা যায় নি, তাই বৃহস্পতিবার ঈদ পালিত হবে।

তবে এর কয়েক ঘন্টা পর কমিটি আরেকটি বৈঠকে বসে। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোঃ আব্দুল্লাহর সভাপতিত্বে ওই বৈঠকে উত্তরবঙ্গে চাঁদ দেখা যাবার খবর নিয়ে আলোচনা হয়।

মূল চাঁদ দেখা কমিটির সাথে একযোগে প্রতিটি জেলায় একটি করে কমিটি কাজ করে। দেশের কোথাও চাঁদ দেখা গেলে সেটি স্থানীয় প্রশাসন বা ইসলামিক ফাউন্ডেশন সংশ্লিষ্টদের মাধ্যমে জেলা কমিটির কাছে পৌঁছায়।

আরো পড়ুন:

চাঁদ দেখার বিষয়টি চূড়ান্ত হয় কীভাবে?

ঈদ: তারিখ জানতে বিজ্ঞানের দ্বারস্থ হতে সমস্যা কোথায়

কোন দেশে কিভাবে নির্ধারিত হয় ঈদের দিন

মুসলিম বিশ্বে ঈদুল ফিতরের দিনে জনপ্রিয় কিছু খাবার

পরে জেলা প্রশাসন দ্রুত সেটি নিশ্চিত করে বিভিন্ন ভাবে- যেমন স্থানীয় অনেকে চাঁদ দেখেছে কি-না কিংবা স্থিরচিত্র বা ভিডিও চিত্র এসব দ্রুত সংগ্রহ করে নিশ্চিত হয়ে থাকে স্থানীয় প্রশাসন।

সেক্ষেত্রে নির্ভরযোগ্য ও ভালো দৃষ্টি শক্তিসম্পন্ন কাউকে চাঁদ দেখতে হবে।

পরে সে খবরটি যাচাই হয়ে জেলা কমিটি হয়ে কেন্দ্রীয় চাঁদ দেখা কমিটির হাতে পৌঁছায়।

একই সাথে আবহাওয়া অধিদফতরের দেশজুড়ে যে ৭৪টি স্টেশন আছে সেখান থেকেও তথ্য নেয় চাঁদ দেখা কমিটি।

যদি আবহাওয়া অনুকূল না থাকে অর্থাৎ খালি চোখে চাঁদ দেখার সুযোগ না থাকলে আবহাওয়া স্টেশন থেকে পাওয়া তথ্যও চাঁদ দেশের আকাশে উঠেছে কি-না তা নিশ্চিত হতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

বিবিসি বাংলার অন্যান্য খবর:

কী ধরণের পুরুষ পছন্দ বাংলাদেশের মেয়েদের?

মাঝরাতে রান্নাঘরের মেঝেতে কুমির দেখলেন যে নারী

দুর্নীতির বিরুদ্ধে যেভাবে লড়াই করছে কেনিয়া

ট্রাম্প আর সাদিক খানের মধ্যে এই বাকযুদ্ধ কেন?