হরমুজ প্রণালীতে গুলি করে মার্কিন ড্রোন ফেলে দিল ইরান

মার্কিন ড্রোন ছবির কপিরাইট US NAVY/KELLY SCHINDLER
Image caption মার্কিন ড্রোন

ইরান জানিয়েছে, হরমুজ প্রণালীর ওপর দিয়ে উড়ে যাওয়ার সময় একটি মার্কিন ড্রোন তারা গুলি করে ফেলে দিয়েছে।

ইরানের সবচেয়ে সুসজ্জিত সশস্ত্র বাহিনী রেভ্যুলিশনারী গার্ডস দাবি করছে, মার্কিন ড্রোনটি ইরানের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছিল।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের দাবি হচ্ছে, এটি আন্তর্জাতিক আকাশসীমাতেই ছিল।

বিবিসির সংবাদদাতারা জানাচ্ছেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই ড্রোনটি আকাশের অনেক ওপর থেকে গোয়েন্দা নজরদারির কাজে ব্যবহার করা হচ্ছিল।

তবে ড্রোনটি কোথায় ছিল তা নিয়ে পরস্পরবিরোধী কথা শোনা যাচ্ছে।

ইরান বলছে, ড্রোনটি তাদের আকাশসীমায় ঢুকে পড়েছিল।

Image caption হরমুজ প্রণালী দিয়ে পৃথিবীর এক পঞ্চমাংশ তেল সরবরাহ হয়।

আরও পড়তে পারেন:

হরমুজ প্রণালী ইরানের কাছে কেন এতো গুরুত্বপূর্ণ?

আর যুক্তরাষ্ট্র বলছে, এটিকে যখন হরমুজ প্রণালীর ওপর একটি ভূমি থেকে ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়, তখন এটি আন্তর্জাতিক আকাশসীমাতেই ছিল।

এই হরমুজ প্রণালীতেই গত সপ্তাহে দুটি তেলের ট্যাংকারে হামলা হয়েছিল।

সেই হামলার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ইরানকেই দায়ী করে।

তবে তেহরান কর্তৃপক্ষ এর দায়িত্ব অস্বীকার করেছিল।

হরমুজ প্রণালী বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে তেল সরবরাহের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি সমুদ্রপথ।

কিন্তু সেখানে ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক উত্তেজনা ক্রমেই বাড়ছে।

ইরানের রেভ্যুলিউশনারি গার্ডসের প্রধান বলেছেন, মার্কিন ড্রোন ফেলে দিয়ে তারা যুক্তরাষ্ট্রকে খুব স্পষ্ট একটি বার্তা দিতে চেয়েছেন।

সেটি হলো: ইরান যুদ্ধ চায় না, কিন্তু দরকার হলে যুদ্ধের জন্য তারা প্রস্তুত।

বিবিসি বাংলায় আরও খবর:

'আর কোন পরিবারের সঙ্গে যেন এমনটা না হয়'

'ওষুধের মেয়াদের ডেট কোথায় লেখা থাকে সেটাই জানি না'

নেক্সিয়াম সেক্স কাল্ট: যৌন গুরু রনিয়্যারির যত অপরাধ