সাতক্ষীরা ও দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় 'বুলবুল'

উপকূলবর্তী এলাকা থেকে বহু মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে ছবির কপিরাইট AFP
Image caption উপকূলবর্তী এলাকা থেকে বহু মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে

ঘূর্ণিঝড় 'বুলবুল' রবিবার সকালবেলা সাতক্ষীরা ও দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে আঘাত হেনেছে। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ বিশেষ বুলেটিনে বলা হয়েছে, ভোর পাঁচটায় 'বুলবুল' সুন্দরবনের কাছ থেকে পশ্চিমবঙ্গ-খুলনা উপকূল অতিক্রম করে।

ঘূর্ণিঝড় 'বুলবুলে'র প্রভাবে সাগর খুবই উত্তাল রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এর আগে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে আঘাত হানে 'বুলবুল'।

ঝড়ে সেখানে অন্তত দুই জন মানুষ নিহত হয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।

খুলনার স্থানীয় সাংবাদিক গৌরাঙ্গ নন্দী বিবিসিকে জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় 'বুলবুলে'র প্রভাবে খুলনা ও সুন্দরবন সংলগ্ন এলাকায় এই মূহুর্তে বৃষ্টি এবং প্রবল ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাচ্ছে।

এর আগে রাত তিনটা থেকে খুলনা এবং সুন্দরবন সংলগ্ন দাকোপ, পাইকগাছা, কয়রা এবং সাতক্ষীরার শ্যামনগর এলাকায় ব্যাপক বৃষ্টিপাত শুরু হয় যা এখনো চলছে।

সেই সঙ্গে ঐ এলাকার ওপর দিয়ে প্রবল ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যাচ্ছে।

তবে মিঃ নন্দী বলেছেন, 'বুলবুল' যে রকম বড় আঘাত হানতে পারে বলে আশংকা করা হয়েছিল, এখনো পর্যন্ত সে রকম লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption 'বুলবুল' খুলনা পেরিয়ে এখন সাতক্ষীরা ও দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে আঘাত হেনেছে

বাংলাদেশ সময় রাত ২টায় ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্র ছিল ভারতের 'সুন্দরবন ন্যাশনাল পার্কের' ১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ।

তবে, আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, 'বুলবুল' আরো উত্তরপূর্বে অগ্রসর হয়ে ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়বে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ বিশেষ বুলেটিনে মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

একই মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে উপকূলীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

ভারতে কী অবস্থা

ঘূর্ণিঝড় 'বুলবুলে'র প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, মেদিনীপুর, কলকাতা এবং ওড়িশা রাজ্যের উপকূলীয় এলাকায় ভারী বৃষ্টি ও দমকা হাওয়ায় বহু গাছ উপড়ে গেছে, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ঘরবাড়ি।

সেখানে এ পর্যন্ত দুইজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

'বুলবুলে'র কারণে পশ্চিমবঙ্গে বিভিন্ন সমুদ্রবন্দর এবং বিমানবন্দর বন্ধ রাখা হয়েছে, বিশেষ করে কলকাতা বিমানবন্দর বন্ধ রাখা হয়েছে। অনেক এলাকা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী এক টুইটে জনগণকে 'ভীত না হয়ে শান্ত থাকার' আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে, সমুদ্রে জলোচ্ছ্বাসের আশংকায় ভারত ও বাংলাদেশে প্রায় ৫ লাখ লোককে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

আরো খবর:

কেন মন্দির বানানোর পক্ষে রায় দিল সুপ্রিম কোর্ট?

বাবরি মসজিদ-রাম মন্দির বিতর্ক: ফিরে দেখা ইতিহাস

চীনে আত্মহত্যা ঠেকাতে দূর থেকে নিয়ন্ত্রিত প্রযুক্তি

সম্পর্কিত বিষয়