ইন্দোর টেস্ট: দলের পরিকল্পনা নিয়ে চুপচাপ মুমিনুল, কোহলি আত্মবিশ্বাসী

বাংলাদেশের নতুন টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক ছবির কপিরাইট MUNIR UZ ZAMAN
Image caption বাংলাদেশের নতুন টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক

ভারতের ইন্দোরে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার প্রথম টেস্ট।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় শুরু হবে খেলা।

ভারতের টেস্ট দলে আছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের দু নম্বরে থাকা ব্যাটসম্যান ভিরাট কোহলি।

কোহলির অধীনেই ভারত টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দল হয়েছে। আর বাংলাদেশ আছে টেস্টে ৯ নম্বরে।

শক্তিমত্তার পার্থক্য

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে এখন পর্যন্ত মোট ৯টি টেস্ট খেলা হয়েছে, যার মধ্যে তিনটি ম্যাচে বাংলাদেশ ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে।

প্রথম ম্যাচটিতে হেরেছে ৯ উইকেটে। এরপর একটি ম্যাচে ১০ উইকেটে হেরেছে। ভারত ২০১৭ সালে বাংলাদেশকে এক টেস্ট ম্যাচে হারিয়েছে ২০৮ রানে।

ভারত মোট সাতটি টেস্ট ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশের বিপক্ষে, বাকি দুটি ম্যাচ ড্র হয়েছে বৃষ্টির কারণে।

ভারতের মাটিতে সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা একটি টেস্ট সিরিজ খেলেছে যেখানে কোনো ম্যাচেই ভারতের সামনে দাঁড়াতে পারেনি দক্ষিণ আফ্রিকা।

এক সময়, ভারতে উইকেট তৈরি করা হতো স্পিন বোলারদের সুবিধা বিবেচনা করে।

কিন্তু এখন ভারতের যে পেস বোলিং লাইন আপ তাতে আর এটা নিয়ে খুব বেশি ভাবতে হয় না।

যেমন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেই মোট ২৬টি উইকেট নিয়েছেন ইশান্ত শর্মা, মোহাম্মদ শামি, উমেশ ইয়াদাভরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার মতো পেস বোলিং নির্ভর দল এর আগে কখনোই প্রতিপক্ষের ফাস্ট বোলারদের কাছে এমনভাবে হেরে যায়নি।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দল এখন ভারত

কোহলির সেরা দল

বলা হচ্ছে ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা একটি টেস্ট দলের বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। ভারতের কোচ রাভি শাস্ত্রী দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর পরই বলেন, যে তারা এখন সমীকরণ থেকে পিচ বাদ দিয়েছেন।

''এটা জোহানেসবার্গ হোক অথবা মুম্বাই, দিল্লি, অকল্যান্ড অথবা মেলবোর্ন। আমরা একটা স্বয়ংসম্পূর্ণ বোলিং ইউনিট তৈরি করেছি যেখানে ফাস্ট বোলার ও স্পিনাররা আছে,'' তিনি বলেন।

কেবল ভিরাট কোহলির অধীনে ভারতীয় পেস বোলাররা স্পিন বোলারদের সাথে তাল মিলিয়ে উইকেট নিয়েছেন।

পেস বোলাররা নিয়েছেন ৪২০ উইকেট আর স্পিন বোলাররা নিয়েছেন ৪৭২ উইকেট।

রাভিন্দ্রা জাদেজা, রাভিচন্দ্রন আশ্বিন, মোহাম্মদ শামি, ইশান্ত শর্মা প্রত্যেকের টেস্ট বোলিং গড় বেশ কম।

বাংলাদেশের স্কোয়াডে পেস বোলার আছেন চার জন- মুস্তাফিজুর রহমান, আল আমিন হোসেন, এবাদত হোসেন ও আবু জায়েদ রাহি।

যাদের মধ্যে মুস্তাফিজুর রহমান সর্বোচ্চ ১৩টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। যার মধ্যে ঘরের মাটিতে খুব কমই বল হাতে নেয়ার সুযোগ পেয়েছেন।

আল আমিন ৬টি, আবু জায়েদ ৫টি এবং এবাদত হোসেন ২টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন।

বাংলাদেশের সবচেয়ে অভিজ্ঞ টেস্ট বোলার এখন তাইজুল ইসলাম, যিনি ২৫টি টেস্ট ম্যাচ খেলে ১০৫টি উইকেট নিয়েছেন।

ইন-ফর্ম ব্যাটিং

এই টেস্টে ফর্মে থাকা এক ব্যাটিং লাইন-আপের মুখোমুখি হবে মুমিনুল হকের বাংলাদেশ।

ভিরাট কোহলি তো আছেনই, সাথে মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও রোহিত শর্মাও থাকবেন টপ অর্ডারে।

ভারতের ব্যাটিং লাইন আপের টপ অর্ডার অতিক্রম করলে আসবেন চেতেশ্বর পুজারা ও আজিঙ্কা রাহানে। যারা টেস্টে বিশ্বের অন্যতম সেরা মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সাম্প্রতিক টেস্ট সিরিজে চার ইনিংস করে ব্যাট করেছেন শর্মা, আগারওয়াল ও কোহলি।

রোহিত শর্মা করেছেন ৫২৯, মায়াঙ্ক আগারওয়াল ৩৪০ ও ভিরাট কোহলি ৩১৭ রান।

ছবির কপিরাইট BCCI
Image caption দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ৫২৯ রান তুলেছেন রোহিত শর্মা

অন্যদিকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল, কিছুদিন আগে সাকিব আল হাসানের অধীনে বাংলাদেশের মাটিতে আফগানিস্তানের সাথে টেস্ট ম্যাচ হেরে গিয়েছে।

বাংলাদেশের অন্যতম সেরা টেস্ট ব্যাটসম্যান মুমিনুল হক ও সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

টেস্ট ক্রিকেটে মুমিনুল হকের গড় ৪০ এর কিছুটা বেশি, আর মুশফিকুর রহিমের ৩৫।

সাম্প্রতিক সময়ে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ দুটি টেস্ট সেঞ্চুরি করলেও, প্রায় এক দশকের টেস্ট ক্যারিয়ারে তিনি তেমন প্রভাব ফেলতে পারেননি।

টপ অর্ডারে সাদমান ইসলাম অনিকের সাথে নামতে পারেন সাইফ হাসান যিনি এখনো বাংলাদেশের জাতীয় দলের হয়ে কোনো ম্যাচ খেলেননি। ইমরুল কায়েসও আছেন স্কোয়াডে।

সাদমান ইসলাম অনিক এক বছর হলো নিয়মিত টেস্ট ক্রিকেট খেলছেন, তিনি ইনিংসের শুরুতে উইকেটে থিতু হতে সক্ষম হলেও এখনো বড় রান করেননি।

সাত ইনিংস ব্যাট করে কেবল মাত্র একটি অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন এই ব্যাটসম্যান।

ছবির কপিরাইট রতম গোমেজ
Image caption সাদমান ইসলাম অনিক (ছবির বায়ে) ও সাইফ হাসান

সাকিব-তামিম নিয়ে প্রশ্ন

ইন্দোরে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের নতুন টেস্ট অধিায়ক মুমিনুল হককে বেশিরভাগ সময়ই 'অধিনায়কত্ব' ও 'সাকিব-তামিম' নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়েছে।

"অধিনায়কত্ব পাওয়ার পরও ব্যাটসম্যান হিসেবেই খেলবো, আমি ইতিবাচক দিকটাই দেখবো। এর ফলে হয়তো আমার ক্রিকেট জ্ঞান বাড়বে। আমি সেভাবেই ভাবছি,'' তিনি বলেন।

হঠাৎ করে অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া মুমিনুল হক সাকিব আল-হাসানকে 'একাই দুইজন' আর তামিম ইকবালকে একজন বলে বর্ণনা করে বলেন, 'মোট তিনজন' ক্রিকেটারকে তারা পাচ্ছেন না।

''একটু চ্যালেঞ্জিং হবে। আমরা এটা নিয়ে পড়ে থাকলে হবে না। এখন সবাই অনেক বেশি ফোকাসড, একটা বাড়তি দায়িত্ব নিয়ে খেলবে,'' তিনি বলেন।

তবে দুই দলের শক্তিমত্তা, টেস্ট ক্রিকেটের পারফরম্যান্স ও অভিজ্ঞতায় বেশ ফারাক লক্ষ্য করা গিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনেও সেই পার্থক্য স্পষ্ট ছিল।

টেস্টের একাদশ কেমন হতে পারে বা কী ধরণের বোলিং লাইন আপ সাজাবে বাংলাদেশ এনিয়ে অনেকটাই অপ্রস্তুত উত্তর দিয়েছেন মুমিনুল হক।

তবে ভিরাট কোহলি মনে করেন, বাংলাদেশ এই ধরণের কন্ডিশনে অভ্যস্ত এবং তারা জানে কী করতে হবে।

''আমরাও অন্য যেকোনো ম্যাচ যেভাবে জয়ের জন্য খেলি সেভাবেই খেলবো। আমরা সম্মান করি প্রতিপক্ষকে, কিন্তু তার চেয়েও বেশি নিজের দলের ওপর ভরসা রাখি,'' কোহলি বলেন।

কোহলিই সেরা?

ভিরাট কোহলি ভারতের তো বটেই টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সফলতম অধিনায়ক হওয়ার পথে আছেন।

বিশ্বের অন্তত ২৭ জন অধিনায়ক যারা কমপক্ষে ৪০টি বা তার বেশি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছেন, তাদের মধ্যে ভিরাট কোহলি তিন নম্বরে আছেন।

এই সময়ে ৬১ শতাংশ ম্যাচ জিতেছে ভারত। জয়ের যে শতকরা হার সেদিক থেকে কোহলির ওপরে আছেন দুজন অস্ট্রেলিয়ান, স্টিভ ওয়াহ ও রিকি পন্টিং।

সম্পর্কিত বিষয়