ইরানে ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ

গতমাসে ইরানে হওয়া বিক্ষোভে নিরাপত্তা রক্ষীদের সাথে সংঘর্ষে দেড় হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে বলে জানাচ্ছে রয়টার্স ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption গতমাসে ইরানে হওয়া বিক্ষোভে নিরাপত্তা রক্ষীদের সাথে সংঘর্ষে দেড় হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে বলে জানাচ্ছে রয়টার্স

বৃহস্পতিবারে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সরকারবিরোধী বিক্ষোভের আগে ইরানের বেশ কয়েকটি এলাকায় ইন্টারনেট সেবা ব্যাহত থাকার পর ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

বিবিসি পার্সিয়ানের দর্শক, পাঠক ও শ্রোতারা জানিয়েছেন যে তাদের ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ইন্টারনেট সংযোগ পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা নেটব্লকস জানিয়েছে ইন্টারনেট ব্যবহারের হার হ্রাস পেয়েছে।

আধা-সরকারি ইরানি সংবাদ সংস্থা ইলনা দেশটির একজন সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে জানিয়েছে যে ইন্টারনেট বন্ধের সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে নেয়া হয়েছে।

গতমাসে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে হওয়া বিক্ষোভের সময় সরকারি বাহিনীর সাথে সংঘর্ষে যারা নিহত হয়েছে, তাদের স্মরণে নতুন বিক্ষোভের আহ্বান জানানোর পর ইন্টারনেট বন্ধের এই সিদ্ধান্ত এলো।

মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যশনাল দাবি করছে গতমাসে চলা বিক্ষোভের সময় নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর টানা কয়েকদিনের অভিযানে অন্তত ৩০৪ জন মারা গেছে এবং কয়েক হাজারের বেশি গ্রেফতার হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করে কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের সূত্র ধরে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, বিক্ষোভে নিহতের সংখ্যা প্রায় দেড় হাজার।

নভেম্বরে ইরানের সরকার জালানি তেলের দাম ৫০% বাড়ানোর ঘোষণা দিলে ইরানের বিভিন্ন শহর এবং শহরতলীতে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের সাথে করা পরমাণু চুক্তি বাতিল করার পর ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। তারপর থেকে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে ইরানের অর্থনীতি।

বিক্ষোভ বাড়ার সাথে সাথে ইন্টারনেট সংযোগ প্রায় সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেয়া হয়।

কিছু মোবাইল ফোন ভিডিও বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে, যেখানে দেখা যায় নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নিরস্ত্র বিক্ষোভকারীদের দিকে গুলি ছুড়ছে।

কারাজ শহরের পৌইয়া বখতিয়ারি নামের ২৭ বছর বয়সী নিহত এক বিক্ষোভকারীর আত্মীয় বৃহস্পতিবার তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় মানুষকে আহ্বান জানান।

শেষকৃত্য অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ আবারো শুরু হতে পারে, সেই আশঙ্কায় বখতিয়ারির পরিবারের সদস্যদের গ্রেফতার করা হচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

আরো পড়তে পারেন:

ইরান-বিরোধী মুজাহিদিনরা কী করছে ইউরোপে?

চুক্তি ভেঙ্গে পরমাণূ কর্মসূচি চালু করছে ইরান

সৌদি আরবে হামলার ঝুঁকি ইরান কেন নেবে?

সম্পর্কিত বিষয়