করোনাভাইরাস: পাবনায় আইসোলেশনে থাকা রোগী পালালো, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের জিডি

আর্মি মাইকিং

ছবির উৎস, NurPhoto

ছবির ক্যাপশান,

সামাজিক দুরত্ব মেনে চলা এবং প্রয়োজন ছাড়া বাইরে না বের হবার আহ্বান জানানো হচ্ছে

পাবনায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের আইসোলেশনে থাকা রোগী পালিয়ে যাবার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছে।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাসিম আহমেদ বিবিসিকে জানিয়েছেন, সোমবার ওই রোগী সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

শরীরের অবস্থা দেখে করোনাভাইরাস সন্দেহে ডাক্তারেরা তাকে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখেন।

কিন্তু শুরু থেকেই সেখানে থাকার ব্যাপারে আপত্তি করে আসছিলেন ওই রোগী।

গতকাল বিকেলের পর হাসপাতালের সেবা কর্মীরা হঠাৎ আবিষ্কার করেন যে রোগী ওয়ার্ডে নেই।

খোঁজাখুঁজির পর বোঝা যায় রোগী পালিয়ে গেছে।

এমনকি রোগীর পরিবারের লোকেরাও জানান যে তিনি বাড়ি ফেরেননি।

মি. আহমেদ জানান, তখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থানায় জিডি করে।

তিনি জানান রোগীর খোঁজে পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছে। সেই সঙ্গে হাসপাতালে পুলিশ প্রহরা বাড়ানো হয়েছে।

বাংলাদেশে এর আগেও কয়েক জায়গায় আইসোলেশনে থাকা রোগীর পালিয়ে যাওয়ার খবর শোনা গেছে।

এ সপ্তাহেই বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ড থেকে দুইদিনে দুইজন রোগী পালিয়ে যান।

পরে তাদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

একইভাবে ভোলা সদর হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিট থেকে একজন রোগী পালিয়ে যান।

তবে মঙ্গলবার বিকেলে আগে ঢাকার দক্ষিণখান এলাকায় আইসোলেশনে থাকা একজন রোগী পালিয়ে গেছেন বলে খবর পাওয়া গেলেও, পরে তার সত্যতা পাওয়া যায়নি।