করোনা ভাইরাস: এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ও মৃত্যু হলো আজ

নমুনা পরীক্ষা

ছবির উৎস, Getty Images

ছবির ক্যাপশান,

গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪,৬৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩, ১৭১ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এই সময়ের মধ্যে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪৫ জন।

সব মিলে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৭১,৬৭৫ জন।

বাংলাদেশে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৯৭৫ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে এসব তথ্য দিয়েছেন অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৪,৬৬৪ জনের।

এ পর্যন্ত মোট পরীক্ষা হয়েছে চার লাখ ২৫ হাজার ৫৯৫টি।

কোভিড-১৯ রোগী শনাক্তের হার ২১.৬২ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ৭৭৭ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হওয়া মানুষের সংখ্যা ১৫,৩৩৬ জন।

মারা যাওয়া মানুষের মধ্যে পুরুষ ৩৩ জন, নারী ১২ জন।

মৃত ব্যক্তিদের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে দুইজন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে দুইজন।

৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিনজন।

৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১০ জন এবং ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে আটজন।

মৃত্যুর সংখ্যার বিচারে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে ঢাকা বিভাগে, গত ২৪ ঘণ্টায় ২৮ জন মারা গেছেন কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে।

চট্টগ্রাম বিভাগে ১১ জন, রাজশাহী বিভাগে দুইজন, সিলেট বিভাগে দুইজন, রংপুর বিভাগে দুইজন মৃত্যুবরণ করেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে ৫৫৭ জনকে, আইসোলেশন থেকে মুক্ত হয়েছেন ২১৬জন।

২৪ ঘণ্টায় ২,৬০২ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত তিন লাখ ছয় হাজার ২৭ জনকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে।

ছবির উৎস, Getty Images

কোয়ারেন্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড়া পেয়েছেন ২,০৩৬ জন, এখন পর্যন্ত ছাড়া পেয়েছেন দুই লাখ ৪৯ হাজার ৩৮৯ জন।

বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫৬ হাজার ৬৩৮ জন।

এদিকে, করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার জন্য শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ গাজীপুরে নতুন আরেকটি ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে, ফলে এখন দেশে সর্বমোট ৫৬টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

বাংলাদেশে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় অনেকেই বাসায় অক্সিজেন সিলিন্ডার কিনে রাখছেন, যা 'অনভিপ্রেত' এবং 'বিপজ্জনক' বলে অনলাইন ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা।

তিনি বলেছেন, অক্সিজেন থেরাপি কারিগরি বিষয় হওয়ায়, চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া নিজে নিজে দেয়া বিপজ্জনক।

যে কারণে ব্যক্তি পর্যায়ে অক্সিজেন সিলিন্ডার কিনে মজুত করতে নিরুৎসাহিত করেছেন তিনি। অক্সিজেন দেওয়া উচিত নয়।