করোনা ভাইরাস: বিশেষ বিমানে ঢাকায় আসা পৌনে তিনশো যাত্রী কোয়ারেন্টিনে না থাকার দাবিতে বিক্ষোভ করছেন

বিমানবন্দরে মাস্ক পরা যাত্রীরা

ছবির উৎস, NurPhoto/Getty

ছবির ক্যাপশান,

বিমানবন্দরে মাস্ক পরা যাত্রীরা

লেবানন থেকে পৌনে তিনশো যাত্রী নিয়ে ঢাকা আসা একটি বিমানের যাত্রীরা কোয়ারেন্টিন না করার দাবিতে বিক্ষোভ করছেন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণে বাংলাদেশ যেসব দেশের সাথে বিমান যোগাযোগ নিষিদ্ধ করেছে সম্প্রতি, সেই তালিকায় লেবাননও রয়েছে।

কিন্তু এই যাত্রীরা দেশটিতে আটকে পড়ার কারণে রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থার একটি বিশেষ ফ্লাইটে করে তাদের ঢাকায় নিয়ে আসা হয়। শর্ত ছিল ঢাকায় সবাইকে দুই সপ্তাহের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

সোমবার ভোর সাড়ে তিনটার দিকে ফ্লাইটটি ২৭৫জন শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

কিন্তু ফেরত আসা এসব ব্যক্তিরা প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে যেতে রাজি নন।

আরো পড়ুন:

ছবির উৎস, STR/Getty

ছবির ক্যাপশান,

ফাইল ফটো

ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক তৌহিদুল আহসান বিবিসিকে জানিয়েছেন, "তারা ফেরার পর থেকেই বিমান বন্দরের মধ্যে মিছিল, বিক্ষোভ করছেন। বিশৃঙ্খল অবস্থা তৈরি করেছেন"।

মি. আহসান বলছেন, "শুধু তারাই না, তাদেরকে নিতে বিমানবন্দরে যেসব আত্মীয়-স্বজন এসেছে তারাও বিশৃঙ্খলা করছেন"।

লেবাননে আর্থিক সংকট এবং করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে কয়েক লক্ষ মানুষ কর্মহীন অবস্থায় আটকা পড়েন।

এর আগে কয়েক দফায় তাদের দেশে আনা হয়েছে।

মি. আহসান বলছেন "আমরা কয়েক দফা তাদের সাথে আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। আমরা তাদের প্রস্তাব দিয়েছি হজ ক্যাম্পে সরকার যে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের ব্যবস্থা করেছে সেখানে যেতে। কিন্তু তারা কোনভাবেই রাজি হচ্ছেন না"।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ সেনাবাহিনীর সহায়তা নিয়ে তাদের হজ ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়ার জন্য আলোচনা করছে।

এ নিয়ে বিক্ষোভরত যাত্রী বা তাদের স্বজনদের বক্তব্য জানা এখন পর্যন্ত সম্ভব হয়নি।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন: