অলিম্পিকস: টোকিও ২০২০ আয়োজক কমিটির প্রধান প্রতিযোগিতা বাতিলের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না

তোশিরো মুতো

ছবির উৎস, Getty Images

ছবির ক্যাপশান,

টোকিও অলিম্পিকস আয়োজক কমিটির প্রধান তোশিরো মুতো বলেছেন তিনি সংক্রমণের সংখ্যার ওপর নজর রাখছেন

টোকিও ২০২০ অলিম্পিকস আয়োজক কমিটির প্রধান বলেছেন প্রতিযোগিতা বাতিলের সম্ভাবনা তিনি উড়িয়ে দিচ্ছেন না।

তোশিরো মুতো বলেছেন তিনি শনাক্ত হওয়া অ্যাথলেটদের সংখ্যার দিকে নজর রাখছেন এবং প্রয়োজনে তিনি বিষয়টি নিয়ে "আলোচনা'' করবেন।

প্রতিযোগিতার সাথে সংশ্লিষ্ট ৭০ জনের বেশি এখন কোভিড পজিটিভ হয়েছেন। শুক্রবার অলিম্পিকসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হতে যাচ্ছে।

মি. মুতো যেদিন এই মন্তব্য করলেন সেই একই দিনে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট টমাস বাখ বলেছেন প্রতিযোগিতা "বাতিল করার কথা কখনই ভাবা হয়নি"।

এ মাসের গোড়ার দিকে, জাপান ঘোষণা করেছিল যে, খালি স্টেডিয়ামেই গেমস অনুষ্ঠিত হবে। দেশটিতে কোভিড পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার কারণে ক্রমবর্ধমান উদ্বেগের মধ্যেই জাপান এই ঘোষণা দিয়েছিল।

এই শেষ সময়ে এসে অলিম্পিকস বাতিল করার সম্ভাবনা আছে কিনা এক সংবাদ সম্মেলনে এ প্রশ্ন করা হলে মি. মুতো বলেন, "কেস খুব বাড়লে আমরা বিষয়টা নিয়ে আলোচনা অব্যাহত রাখব।"

তিনি বলেছিলেন, "এই মুহূর্তে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তেও পারে আবার কমতেও পারে। যখন সেই পরিস্থিতি আসবে তখন আমরা বিষয়টি বিবেচনা করব।"

সম্পর্কিত খবর:

ছবির উৎস, Getty Images

ছবির ক্যাপশান,

জিমনাস্টিকের রুটিন অনুশীলন করছেন জার্মান অ্যাথলেট

প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে গেছে

আনুষ্ঠানিকভাবে যদিও অলিম্পিকস শুক্রবারের আগে শুরু হচ্ছে না, কিন্তু মেয়েদের সফটবল এবং ফুটবল প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে গেছে বুধবারই।

জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে মেয়েদের সফটবল খেলা ছিল বুধবার। শুক্রবার ২৩শে জুলাই অলিম্পিকসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন।

এ সপ্তাহের গোড়ার দিকে, অ্যাথলেটদের থাকার জন্য নির্ধারিত অলিম্পিকস ভিলেজে দক্ষিণ আফ্রিকার দুজন ফুটবলার কোভিড শনাক্ত হন। চেক একজন বিচ ভলিবল প্রতিযোগীর শরীরেও ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

টোকিও অলিম্পিকসের সাথে জড়িত সর্বমোট ৭১ জন কোভিড আক্রান্ত বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। এদের মধ্যে প্রতিযোগিতার সাথে সরাসরি জড়িতরাও আছেন।

অলিম্পিকসের ১২৪ বছরের ইতিহাসে এটাই প্রথম প্রতিযোগিতা পেছানোর নজির।

টোকিও অলিম্পিকস চলার কথা ৮ই অগাস্ট পর্যন্ত। প্যারালিম্পিকস শুরু হবার কথা ২৪শে অগাস্ট যা শেষ হবে ৫ই সেপ্টেম্বর।

গেমস চালু রাখা নিয়ে জনরোষ

করোনাভাইরাস বিধিনিষেধের মধ্যে এই অলিম্পিক অনুষ্ঠান নিয়ে জনসাধারণের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে।

এই গেমস উপলক্ষে বিভিন্ন দেশ থেকে হাজার হাজার মানুষ জাপানে যাওয়া নিয়ে জাপানিরা উদ্বেগ প্রকাশ করছে। সংক্রমণ বিস্তারে এটা কতটা প্রভাব ফেলবে তা নিয়ে তারা খুবই উদ্বিগ্ন।

টোকিওতে সংক্রমণ বর্তমানে উর্ধ্বমুখী। গতকাল মঙ্গলবার টোকিওতে ১৩৮৭ জনের কোভিড শনাক্ত হয়েছে।

জাপানে কোভিডের কারণে এখন জরুরি অবস্থা জারি রয়েছে যা বলবৎ থাকবে ২২শে অগাস্ট পর্যন্ত।

মি. মুতো গতকাল মঙ্গলবার তার এই মন্তব্য করার পর টোকিও ২০২০-এর একজন মুখপাত্র বলেছেন, উদ্যোক্তারা এখন "শতভাগ সফল একটা অলিম্পিকস অনুষ্ঠান আয়োজনের ওপর সব মনোযোগ নিবদ্ধ করেছেন।"

বিবিসি বাংলার আরও খবর:

ভিডিওর ক্যাপশান,

আপনার ফোনে স্পাইওয়্যার লাগানো হয়েছে কিনা সেটা কি বোঝা সম্ভব?