কুমিল্লা: পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা ও হামলা সাম্প্রদায়িক অপশক্তির কাজ, বলেছেন মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের

ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক
ছবির ক্যাপশান,

ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক

কুমিল্লায় একটি পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা এবং এই ঘটনার জের ধরে দেশের কয়েকটি জায়গায় মণ্ডপে হামলার ঘটনাগুলোকে 'সাম্প্রদায়িক অপশক্তির কাজ' বলে মন্তব্য করেছেন যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, "সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চায় এমন ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে সরকার বদ্ধপরিকর।"

বৃহস্পতিবার ঢাকায় রামকৃষ্ণ মিশন পূজামণ্ডপ পরিদর্শন শেষে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এই শীর্ষস্থানীয় নেতা আরও বলেন, এ ঘটনার জের ধরে যাতে আর কোন ঘটনা না ঘটে সেজন্য সরকার সতর্ক থাকবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, "আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চায় একটি মহল। আমি মনে করি এই ঘৃণ্যতম কাজ, কুমিল্লায় যেটা সংঘটিত হয়েছে, সেটা সাম্প্রদায়িক অপশক্তিরই কাজ।"

"সাম্প্রদায়িক অপশক্তি এই তাণ্ডব চালাতে চেয়েছিল, এবং পূজামণ্ডপে কোরআন শরীফ রেখে আজকে এত বড় উৎসবকে তারা কালিমালিপ্ত করতে চেয়েছিল। উৎসবমুখর পরিবেশকে নষ্ট করতে চেয়েছিল," তিনি বলেন।

মন্ত্রী বলেন, "আমরা সতর্ক রয়েছি। আমরা এখন সর্বোচ্চ সতর্ক থাকব যাতে এই অপশক্তি মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে।"

একই সঙ্গে সামাজিকমাধ্যমে গুজব ছড়ানো নিয়েও সতর্ক করেন তিনি। "আপনারা গুজবে কান দেবেন না। গুজব সৃষ্টি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। এর বিরুদ্ধেও সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।"

বিবিসি বাংলায় অন্যান্য খবর:

"যে কোন সাম্প্রদায়িক উস্কানির বিরুদ্ধে আমাদের আরও সচেতন হতে হবে," বলেন মি. কাদের।

বুধবার কুমিল্লার একটি পূজামণ্ডপে কোরআন পাওয়া এবং সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সহিংসতার জের ধরে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে বেশ কয়েকটি মন্দিরে হামলা ও পুলিশের সাথে হামলাকারীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

হাজীগঞ্জের ওই ঘটনায় তিন ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

এছাড়া নোয়াখালীর হাতিয়া, চট্টগ্রামের বাঁশখালী এবং কক্সবাজারের পেকুয়াসহ বেশ কয়েকটি স্থানে পূজামণ্ডপে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।