নেকাব নিষিদ্ধ করার সুপারিশ

A woman wears a veil in Lyon
Image caption নেকাবের প্রশ্নে তুমুল বিতর্কের প্রেক্ষিতে সংসদীয় কমিশনের এই সুপারিশ

ফ্রান্সে সংসদীয় একটি কমিশন হাসপাতাল, স্কুল এবং জন-পরিবহনের মতো জায়গায় মুসলিম মহিলাদের মুখ ঢেকে রাখার পর্দা বা নেকাব পরার অনুমতি না দেওয়ার সুপারিশ করেছে

কারো পোশাকে উগ্র ধর্মীয় প্রথার বহিপ্রকাশ ঘটলে তাকে ফ্রান্সে স্থায়ীভাবে বসবাসের অধিকার এবং নাগরিকত্ব না দেওয়ারও সুপারিশ করা হয়েছে

কমিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, মহিলাদের এই মুখ ঢেকে রাখার আচার ধর্ম নিরপেক্ষতা ও নারী পুরুষের সমানাধিকারের বিষয়ে ফরাসী মূল্যবোধের পরিপন্থী

ফরাসী প্রেসিডেন্ট নিকোলাস সারকোজি কয়েক মাস আগে বলে দিয়েছিলেন নেকাবের পক্ষে ফ্রান্সে তেমন সমর্থন নেই তারপর, নেকাব নিষিদ্ধ করা উচিত কিনা, সে নিয়ে ফ্রান্সে মাসের পর মাস বিতর্ক চলেছে

ফরাসী সংসদের স্পিকার বার্নার্ড আকইয়ে সভায় এই রিপোর্ট পেশ করার সময়ে বলেন নেকাব পরার বেশ কযেকটি নেতিবাচক দিক রয়েছে

ফ্রান্সে পঞ্চাশ লক্ষ মুসলমান বসবাস করেন বলে আন্দাজ করা হয় বিভিন্ন জনমত জরিপে দেখা গেছে ফ্রান্সে বেশীরভাগ মানুষই নেকাব পুরোপুরি নিষিদ্ধ করার পক্ষে

তবে এই কমিটির সদস্যরা অবশ্য তাঁদের সুপারিশে বলেছেন, আপাতত এই নিষেধাজ্ঞা কিছুটা সীমিত আকারে বলব করা উচিত তাঁদের সুপারিশ হলো স্কুল বা হাসপাতালের মতো জায়গায়, বা জন-পরিবহণ ব্যবস্থা ব্যবহার করার সময়ে নিকাব পরা যাবে না আর যদি কেউ এই নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করেন তাহলে ওইসব জায়গা থেকে কোনো সুবিধে বা সেবা তিনি পাবেন না

এই রিপোর্ট প্রকাশের পর, এবার মনে করা হচ্ছে এ নিয়ে একটা খসড়া বিল প্রস্তুত করা হবে এবং এ বিষয়ে সংসদে বিতর্কেরও আয়োজন করা হবে

এই খবর নিয়ে আরো তথ্য