আফগানিস্তানে সেনা অভিযান

আফগানিস্তানে তালেবানের বিরুদ্ধে বড় ধরনের অভিযান শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন কর্মকর্তারা৻

এই অভিযানে হাজার হাজার মার্কিন সেনার সঙ্গে আফগান নিরাপত্তা বাহিনীও অংশ নিচ্ছে বলে জানানো হয়েছে৻

হেলিকপ্টার গানশীপ নিয়ে হেলমান্দ প্রদেশের মারজাহ শহরে, তালেবানের অবস্থানে হামলা চালানো হয়েছে৻

প্রেসিডেন্ট ওবামা ত্রিশ হাজার অতিরিক্ত সেনা পাঠানোর ঘোষণা দেবার পর, আফগানিস্তানে এটাই সবচাইতে বড় সামরিক অভিযানের ঘটনা৻

বিবিসির প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা বিষয়ক সংবাদদাতা নিক চাইল্ডস জানাচ্ছেন, গত কয়েক মাসের তুমুল তর্ক বিতর্কের পর প্রেসিডেন্ট ওবামার আফগান নীতির জন্য এই অভিযানকে ‘এসিড টেস্ট‘ হিসাবে বিবেচনা করা হচ্ছে৻

অভিযানের পরিকল্পনার অংশ হিসাবে বেশ কয়েকদিন আগে থেকেই জনগনকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে৻ এর মাধ্যমে বার্তা পৌঁছানো হয়েছে তালেবান জঙ্গীদের, নেটোভুক্ত দেশগুলোর জনগনকে এবং অবশ্যই আফগান সরকারকে৻

বলা হচ্ছে তালেবানের শক্ত ঘাঁটি হেলমান্দে সামরিক অভিযান চালানো যথেষ্ট দুষ্কর এবং মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনীকে এখানে শ্ক্ত প্রতিরোধের মুখোমুখি হতে হবে৻

নিক চাইল্ডস জানাচ্ছেন, বিপুল সেনা নিয়ে অভিযানের শুরুতেই বড় ধরনের সাফল্য পাওয়ার চেষ্টা করবে মার্কিন বাহিনী৻ এছাড়া ঠিক কি ধরনের এবং কতটা শক্তিশালী প্রতিরোধ গড়বে তালেবান, তা ভবিষ্যৎ মার্কিন অভিযানের পরিকল্পনায় একটা বড় ভূমিকা পালন করবে৻

ধারণা করা হচ্ছে মার্কিন, নেটো এবং আফগান বাহিনীর পনেরো হাজার সদস্য এই অভিযানে অংশ নেবে৻ নেটো কমান্ডাররা দাবী করছেন, যথেষ্ট প্রস্তুতি নিয়েই তাঁরা এই অভিযান শুরু করেছেন৻

এই অভিযানের লক্ষ্য হেলমান্দকে তালেবান মুক্ত করা এবং নিয়ন্ত্রণ দখল করার পর তা ধরে রাখা৻ আগে যথেষ্ট সেনা এবং রসদের অভাবে পশ্চিমা বাহিনী এই এলাকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে৻