মধ্যপ্রাচ্য সফরে হিলারী ক্লিনটন

Image caption হিলারী ক্লিনটন

ইরানের বিরুদ্ধে কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারির ব্যাপারে উপসাগরীয় দেশগুলোর সমর্থন আদায়ের লক্ষ্যে ঐ অঞ্চলে এক গুরুত্বপূর্ণ সফর শুরু করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিলারী ক্লিনটন৻

কাতারের রাজধানী দোহায় তিনি এক ইসলামী সম্মেলনে যোগ দেবেন৻ এই সম্মেলনের আয়োজন করেছে প্রভাবশালী মার্কিন গবেষণা প্রতিষ্ঠান ব্রুকিংস ইনস্টিটিউশন৻ মিসেস ক্লিনটন কাতারে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও বৈঠক করবেন বলে কথা রয়েছে৻ সফরের পরবর্তী ধাপে কাতার থেকে তিনি যাবেন সৌদী আরবে৻

ইরানকে পরমাণু কর্মসূচী থেকে নিবৃত্ত করতে ওবামা প্রশাসন এখন মধ্যপ্রাচ্যে জোর কূটনৈতিক তৎপরতা চালাচ্ছে৻ হিলারী ক্লিনটন এবং অন্যান্য উচ্চপদস্থ মার্কিন কর্মকর্তাদের মধ্যপ্রাচ্য সফরকে সেই আলোকেই দেখা হচ্ছে৻

সৌদী আরবে হিলারী ক্লিনটনের এটাই হবে প্রথম সফর৻ সেখানে তিনি বাদশাহ আবদুল্লাহ্‌র সাথে আলোচনা করবেন৻ এসব আলোচনায় মূলত প্রাধান্য পাবে ইরানের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের চতুর্থ দফা নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়টি৻

ইরানের বিরুদ্ধে নতুন এই নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাবের পথে বড় বাধা হচ্ছে চীন৻ ইরানের বিরুদ্ধে এখনই আরেক দফা নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে চীন শক্ত অবস্থান নিয়েছে৻ এর পেছনে চীনের অর্থনৈতিক স্বার্থও রয়েছে৻

চীন ইরানে অনেক পুঁজি বিনিয়োগ করেছে৻ তাদের আশংকা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলে তাদের এই বিনিয়োগের ক্ষতি হতে পারে এবং ইরান থেকে যে তেলের সরবরাহ চীনে যায় তাও বিঘ্নিত হতে পারে৻

সৌদী আরবের সাথেও চীনের দৃঢ় বাণিজ্যিক সম্পর্ক রয়েছে৻ যুক্তরাষ্ট্র এখন চাইছে সৌদী আরব চীনকে এই বলে আশ্বস্ত করুক যে ইরান থেকে তেলের সরবরাহ বন্ধ হলেও তাদের ক্ষতি হবে না, সেই ঘাটতি সৌদী আরব পূরণ করে দেবে৻

বিবিসির সংবাদদাতা বব ট্রেভেলিয়ান বলছেন ইরান তার পারমাণবিক কর্মসূচী সম্পর্কে যে আশ্বাস দিয়েছে সে ব্যাপারে উপসাগরীয় দেশগুলোর খুব একটা আস্থা নেই৻ তাছাড়া এই অঞ্চলে ইরানের প্রভাব যে বাড়ছে তারা সেটাও পছন্দ করে না৻

উপসাগরীয় অঞ্চলে কূটনৈতিক তৎপরতা চালানোর সময় ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা বিষয়টিও উঠে আসবে৻ তার আরব মিত্রদের আশ্বস্ত করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ঐ অঞ্চলে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করছে৻