রাঙামাটিতে সংঘর্ষে নিহত অন্তত ২

বাংলাদেশের দক্ষিন-পূর্বাঞ্চলীয় জেলা রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় পাহাড়ী ও বাঙালীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত আরো একজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে৻

ফলে ঐ ঘটনায় নিশ্চিত মৃত্যুর সংখ্যা দাড়ালো দুই জনে। পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার এক সপ্তাহের মধ্যে ঘটনার তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন।

এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে এখনো এবং বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ী ভাংচুর করা হয়েছে রবিবার।

Image caption বিগত বছরগুলোতে, বহু পাহাড়ীর বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে

ঢাকা থেকে সংবাদদাতা ওয়ালিউর রহমান মিরাজ জানাচ্ছেন আরো একটা লাশ উদ্ধার করার পর স্থানীয় প্রশাসন এ নিয়ে দুটি মৃত্যুর ঘটনা নিশ্চিত করলো, যদিও পাহাড়ীরা দাবী করছে যে ঐ সংঘর্ষের ঘটনায় আরো বেশী সংখ্যক মানুষের মৃত্যু ঘটেছে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার রবিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং সেখানকার পাহাড়ী ও বাঙালীদের সংগে কয়েকদফা বৈঠক করেছেন।

এসব বৈঠকের সময় তিনি এক সপ্তাহের মধ্যে ঘটনার তদন্তের আশ্বাস দিয়ে বলেছেন যে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্থানীয় সূত্রগুলো বলছে যে বাঘাইহাট বাজার এবং আশেপাশের এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পুলিশ বলছে যে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সময় মি. তালুকদারের গাড়ীবহরে থাকা বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ী ভাংচুর করা হয়েছে।

ভূমি বিরোধকে কেন্দ্র করে শুত্রবার রাতে বাঘাইছড়ির গঙ্গারামমুখ এলাকায় পাহাড়ী ও বাঙালীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয় এবং সেসময় বেশ কিছু বাড়ী-ঘরে আগুন দেয়া হয়। এরপর শনিবার সেখানে সেনাবাহিনী এবং পাহাড়ীদের মধ্যে গুলি বিনিময় হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

সংবাদদাতা ওয়ালিউর রহমান মিরাজের প্রতিবেদনটি শুনুন৻

আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না

রাঙামাটির স্থানীয় প্রশাসন বলছে, ভূমি বিরোধের জের ধরে শুক্রবার রাতে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটেছে৻ পার্বত্য চট্টগ্রামের তিনটি জেলায় পাহাড়ি ও বাঙালিদের ভূমি বিরোধ মেটানোর লক্ষ্যে, শান্তি চুক্তি অনুসারে গঠন করা করা হয়েছে ভূমি কমিশন৻

ঐ তিনটি জেলার সাধারণ মানুষের মধ্যে এই বিরোধ কতোটা তীব্র, জানতে কমিশনের চেয়ারম্যান খাদেমুল ইসলাম চৌধুরীর সাথে কথা বলেছেন বিবিসি বাংলার মিজানুর রহমান খান:

আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না