দেশে ফিরছেন ইরানী পরমাণু বিজ্ঞানী

Image caption শাহরাম আমিরী

ইরানের যে পরমাণু বিজ্ঞানী এক বছর আগে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়েছিলেন, তিনি এখন যুক্তরাষ্ট্র থেকে ইরানে ফিরে যাচ্ছেন৻

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানান, বিজ্ঞানী শাহরাম আমিরী এখন কাতার হয়ে ইরানের পথে রয়েছেন৻

ইরান অভিযোগ করছিল যে শাহরাম আমিরীকে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ অপহরণ করে৻ যুক্তরাষ্ট্র অবশ্য অপহরণের অভিযোগ অস্বীকার করে৻

কয়েকদিন আগে মিস্টার আমিরী ওয়াশিংটনে পাকিস্তান দূতাবাসে গিয়ে আশ্রয় নেন৻ এরপর বিষয়টি নিয়ে দুদেশের মধ্যে নতুন উত্তেজনা সৃষ্টি হয়৻

নিখোঁজ রহস্য নিয়ে বিতন্ডা

ওয়াশিংটনের পাকিস্তান দূতাবাসের যে ভবনে গিয়ে শাহরাম আমিরী আশ্রয় নিয়েছিলেন, কূটনীতিকদের এক গাড়ী বহরে করে তাকে সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হয়৻

ইরান এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে যেহেতু কোন সরাসরি ফ্লাইট নেই, তাই তাকে তৃতীয় দেশ হয়ে ইরানে ফিরতে হচ্ছে৻

তবে মিস্টার আমিরী দেশে ফিরে গেলেও তার নিখোঁজ রহস্য নিয়ে কূটনৈতিক বিতন্ডা অব্যাহত রয়েছে৻

ইরান এখনো দাবী করে যাচ্ছে যে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ তাকে অপহরণ করেছিল৻ স্বদেশে রওনা হওয়ার আগে ওয়াশিংটনে ডেনমার্কের এক টেলিভিশন চ্যানেলকে মিস্টার আমিরী যে সাক্ষাতকার দিয়েছেন, সেখানে তিনিও বলেছেন, সৌদী আরবে পবিত্র স্থান সফরের সময় তাকে অপহরণ করা হয়৻

শাহরাম আমিরী ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বলেন, "আমি যখন দুটি রাস্তা পেরিয়েছি, তখন একটা সাদা ভ্যানগাড়ী এসে থামলো আমার সামনে৻ গাড়ীতে তিনজন লোক ছিল৻ ড্রাইভার, স্যুট পরা দাড়ি ওয়ালা এক লোক এবং গাড়ীর পেছনে তৃতীয় আরেকজন, সে লোকটিও স্যুট পরা৻ তারা আমাকে ফার্সীতে বললো যে তারাও হজযাত্রী এবং মসজিদে যাচ্ছে, চাইলে আমিও তাদের সঙ্গে যেতে পারি৻ আমি গাড়ীতে উঠার সঙ্গে সঙ্গে এদের একজন আমার পিঠে বন্দুক ধরে বললো কোন চিৎকার না করতে, চুপ থাকতে৻"

মিস্টার আমিরী আরও বলেন, অপহরণকারীরা তাকে হুমকি দেয় যে সহযোগিতা না করলে তাকে ইসরায়েল পাঠিয়ে দেয়া হবে৻

"আমাকে বলা হলো ইসরায়েলি সরকার এই পুরো ঘটনার দায়িত্ব নিতে চায়৻ অপহরণকারীরা বলছিল যদি আমি তাদের কথামত কাজ না করি তাহলে নাকি ইসরায়েলিরা পুরো অপহরণের ঘটনার দায়িত্ব নেবে, তাদের গোপন বন্দীশালায় আমাকে আটকে রাখবে৻ তারপর বিশ্ব প্রচারমাধ্যমে আমার বরাত দিয়ে মিথ্যে তথ্য প্রচার করবে যা কিনা ইরানের বিপক্ষে ব্যবহার করা যায়৻"

কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র এখনো জোর গলাতেই এই অপহরণে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করছে৻ মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিলারী ক্লিনটন বলেছেন, শাহরাম আমিরী স্বেচ্ছায় যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিলেন, এখন নিজের ইচ্ছাতেই তিনি আবার ফিরে যাচ্ছেন৻ হোয়াইট হাউজের এক মুখপাত্র পি জে ক্রোলি ইরানের অভিযোগের জবাবে আজ একই কথার পুনরাবৃত্তি করেন৻

"মিস্টার আমিরি নিজের ইচ্ছায় এখানে এসেছেন, এখন নিজের ইচ্ছায় ফিরে যাচ্ছেন৻ যুক্তরাষ্ট্রে আমরা এভাবেই কাজ করি৻ আমরা তাকে জোর করে এখানে ধরে আনিনি, আর আমরা এখন তাকে ইরানে ফিরে যেতেও কোন বাধা দিচ্ছি না৻"

তবে শাহরাম আমিরী সত্যিই নিজের ইচ্ছায় ইরানে ফিরছেন কিনা তা নিয়ে কেউ কেউ প্রশ্ন তুলছেন৻

একটা তত্ত্ব হচ্ছে তাঁর স্ত্রী এবং সন্তান যেহেতু ইরানে থেকে গিয়েছিলেন, তাদের মাধ্যমে হয়তো ইরান সরকার হয়তো তাঁর ওপর চাপ দিয়েছে দেশে ফেরার জন্য৻

শাহরাম আমিরী ইরানের পরমাণূ কর্মসূচী সম্পর্কে কতোটা জানেন, এবং তার কাছ থেকে মার্কিনীরা কি তথ্য জানতে পেরেছে সেটাও একটা বড় প্রশ্ন৻

তবে ঘটনা যাই হোক বিশ্লেষকরা বলছেন, মিস্টার আমিরীকে নিয়ে ইরান আর যুক্তরাষ্ট্রের যে প্রচারণা যুদ্ধ, তাতে হয়তো শেষ পর্যন্ত ইরানেরই জয় হলো৻