পাক-ভারত পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক

কুরেশি-কৃষ্ণা বৈঠক
Image caption ইসলামাবাদে এস এম কৃষ্ণা ও শাহ মাহমুদ কুরেশি

মুম্বইতে ২০০৮ সালের জঙ্গী হামলার পর এই প্রথম ভারত ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা নিজেদের মধ্যে ইসলামাবাদে মুখোমুখি বৈঠকে বসেছেন৻

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস এম কৃষ্ণা ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশির মধ্যে এই বৈঠক দুদেশের মধ্যে থমকে যাওয়া আলোচনার প্রক্রিয়ায় গতি আনতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে৻

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অবশ্য বৈঠকের আগেই জানিয়ে দিয়েছিল আলোচনার কোনও বাঁধাধরা নির্দিষ্ট আলোচ্যসূচী থাকছে না - তাদের ভাষায় আলোচনা হতে পারে সব বিষয় নিয়েই৻

ভারতের পক্ষ থেকে বৈঠকে জঙ্গীবাদের প্রসঙ্গ উত্থাপন করা হয়োছিল, কারণ ভারত মনে করে পাকিস্তানে বসে যে জঙ্গীরা ভারতের মাটিতে জঙ্গী হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে তাদের ঠেকাতে পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ যতেষ্ট ব্যবস্থা নিচ্ছে না৻

বস্তুত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস এম কৃষ্ণা পাকিস্তানে এসেই বলেন, ডেভিড হ্যাডলি - যে মুম্বইয়ের জঙ্গী হামলায় জড়িত বলে ভারত বিশ্বাস করে - তার সঙ্গে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই-এর যোগসাজস নিয়ে তারা পাকিস্তানের কাছে কিছু প্রশ্নের জবাব চাইবেন৻

তবে বিবিসি-র সংবাদদাতা আসিফ ফারুকি, যিনি আগাগোড়া ইসলামাবাদে এই বৈঠকের দিকে নজর রাখছিলেন, তিনি বলছেন মি কৃষ্ণার এই বিবৃতিতে বৈঠক শুরুর আগেই তাল কিছুটা কেটে গিয়েছিল এবং সম্ভবত এই কারণেই বৈঠক গড়িয়েছে নির্ধারিত সময়ের তিন ঘন্টা পরেও৻

তবে দুদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা যে শেষ পর্যন্ত মুখোমুখি বৈঠকে বসতে সক্ষম হলেন, সেটাকেই এই আলোচনার সবচেয়ে বড় অর্জন হিসেবে দেখো হচ্ছে৻

পরবর্তীতে দুদেশের আলোচনার কাঠামোটা কী হবে, তার রূপরেখা স্থির করাই ছিল এই বৈঠকের প্রধান উদ্দেশ্য৻

পাকিস্তান যেমন চায় যে কম্পোসিট ডায়ালগ প্রসেস বা বিষয়ভিত্তিক সুসংহত একটা আলোচনার প্রক্রিয়ায় বিগত বহু বছর ধরে দুদেশের মধ্যে আলোচনা হয়ে এসেছে তাকেই আবার পুনরুজ্জীবিত করে তুলতে৻

উল্টোদিকে ভারত আবার দ্বিপাক্ষিক আলোচনা সম্পূর্ণ নতুন একটা কাঠামোতে নতুনভাবে শুরু করার কথা বলছে৻