ম্যাগসেসে পেলেন নোমান খান

A H M Noman Khan
Image caption এ এইচ এম নোমান খান (ছবি সিডিডি)

বাংলাদেশে প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার জন্য এ এইচ এম নোমান খানকে ২০১০ সালের ৠামন ম্যাগসেসে পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে৻

প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নের মূলধারায় যুক্ত করার মাধ্যমে তাদের জীবনযাত্রায় ইতিবাচক পরিবর্তন সাধনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন মি: খান এবং তার নেতৃত্বাধীন সংগঠন সেন্টার ফর ডিস্যাবিলিটি ইন ডেভেলপমেন্ট বা সিডিডি৻

আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না

মি: খান ১৯৯৪ সালে প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে কাজ শুরু করেন, যার দু বছর পরে তার নেতৃত্বে সিডিডি গঠিত হয়৻

পুরস্কার প্রদানকারীদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘‘সমাজ কোন দৃষ্টিতে প্রতিবন্ধীদের দেখবে তা নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছেন তিনি৻‘‘

তার এই উদ্যোগ বাংলাদেশের সীমা ছাড়িয়ে অন্যত্রও ছড়িয়ে পড়েছে বলে ২০১০ সালের ৠামন ম্যাগসেসে পুরস্কারের ট্রাস্টি বোর্ডের পক্ষ থেকে মন্তব্য করা হয়েছে৻

ভারত, নেপাল ও ফিলিপাইনের মতো দেশেও প্রতিবন্ধী কল্যাণে মি: নোমান খান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন৻

বিবিসি-র মোয়াজ্জেম হোসেনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মি: নোমান খান বলেন, আগে বাংলাদেশের বিভিন্ন সংগঠন প্রতিবন্ধীদের নিয়ে বিচ্ছিন্নভাবে কাজ করত যা এখন সমন্বিত করা সম্ভব হয়েছে৻

মি: খানের কথায়:‘‘প্রতিবন্ধীদের নিয়ে এখন একটি জাতীয় নীতি প্রণয়ন করা সম্ভব হয়েছে যার ফলে সাড়ে তিনশোর মতো সংগঠন একই লক্ষ্যে কাজ করে চলেছে৻‘‘

প্রতিবন্ধীদের সমস্যার কথা এখন বাংলাদেশে মূলধারার নীতি নির্ধারণেও যুক্ত করা গেছে বলে তিনি মন্তব্য করেন৻

বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ফিলিপাইনের তৃতীয় প্রেসিডেন্ট ৠামন ম্যাগসেসের স্মরণে ১৯৫৭ সাল থেকে এই পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে, যা এশিয়ার নোবেল পুরস্কার নামেও পরিচিত৻

বাংলাদেশ থেকে এ‘পর্যন্ত ন‘জন এই পুরস্কার পেয়েছেন যাদের মধ্যে মোহাম্মদ ইউনুস, ফজলে হাসান আবেদ এবং জাফরউল্লাহ চৌধুরী রয়েছেন৻