সংবিধান নিয়ে ঐকমত্য চায় বিএনপি

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছবির কপিরাইট Focus Bangla
Image caption মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বাংলাদশে প্রধান বিরোধীদল বিএনপি দেশের সংবিধান সংশোধনের প্রক্রীয়ায় সংসদের বাইরেও বিভিন্ন পক্ষের সাথে আলোচনার দাবি জানিয়েছে।

দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার একতরফাভাবে সংবিধান সংশোধন করলে তা জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সংবিধানের নিয়ম অনুযায়ী তা সংশোধন করা হবে, সংসদে আলোচনার মাধ্যমে ।

সংসদের বাইরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল বা শ্রেণী-পেশার প্রতিনিধিদের মতামত নেওয়ার দাবি তুলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সংবিধান সংশোধনের ব্যাপারে জাতীয় ঐকমত্য সৃষ্টির ক্ষেত্রে সরকারকেই ভূমিকা নিতে হবে।

বিভিন্ন পর্যায়ে মতামত নিতে কনভেনশনের আয়োজন করা যেতে পারে বলে মি আলমগীর মন্তব্য করেন৻

‘‘সংসদে সরকারের ব্রুট মেজোরিটি রয়েছে, আদালতের রায়ও তারা নিয়ে এসেছে। ফলে সরকার সংবিধান সংশোধন করতে পারে,‘‘ মি আলমগীর বিবিসিকে বলেন৻

‘‘কিন্তু তা হবে একতরফা এবং জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না, ‘‘ মি আলমগীর বলেন৻

দু‘দিন আগে গণফোরাম নেতা ড: কামাল হোসেন সংবিধান সংশোধনের ক্ষেত্রে জাতীয় ঐকমত্য সৃষ্টির আহ্বান জানান৻

এখন বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর একই ধরনের দাবি তুলে ধরার ক্ষেত্রে ড: কামাল হোসেনের ঐ বক্তব্যের কথাও উল্লেখ করেছেন।

এদিকে , সামরিক শাসন সম্পর্কিত সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনী আদালত থেকে বাতিল হওয়ার প্রেক্ষাপটে সংবিধান সংশোধনের ব্যাপারে সংসদে একটি বিশেষ কমিটি কাজ করছে।

ছবির কপিরাইট bd govt
Image caption সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত

যে কমিটিতে বিএনপি প্রতিনিধি দেয়নি।

ঐ কমিটির কো-চেয়ারম্যান এবং আওয়ামীলীগ নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছেন, কনভেনশন করার কোন সাংবিধানিক স্বীকৃতি বর্তমান সংবিধানে নেই৻

‘‘সংবিধান সংশোধন কিভাবে করতে হবে , তা সংবিধানেই লেখা আছে। সেই অনুযায়ী বিশেষ কমিটি করা হয়েছে। এই কমিটিতে বিএনপিরও প্রতিনিধির জায়গা রয়েছে,‘‘ মি সেনগুপ্ত বিবিসিকে বলেন৻

‘‘বিএনপি সংসদে আসে এবং সংসদীয় সব কমিটিতে অংশ নেয়।ফলে বিশেষ কমিটিতে এসে তাদের বক্তব্য তারা বলুক‘‘, মি সেনগুপ্ত বলেন৻

মি: সেনগুপ্ত আরও বলেছেন, বিশেষ কমিটিতে প্রতিদিন যেসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে, তার সাথে জনগণকে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে এবং প্রতিক্রিয়া যা আসছে, তা কমিটি বিবেচনায় নিচ্ছে।

একইসাথে তিনি উল্লেখ করেছেন, তারা নতুন কোন সংবিধান প্রণয়ন করছেন না। আদালত যে রায় দিয়েছে, সেটাই এখন সংবিধানে আনা হচ্ছে।

তবে বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সংসদে বিশেষ কমিটিতে বিএনপির কাছে মাত্র একজন প্রতিনিধি চাওয়া হয়েছিল, যেটা বিএনপি মানেনি।

মি: আলমগীর আরও বলেন, দলের মধ্যে এমন চিন্তাও কাজ করছে যে, আওয়ামী লীগ একতরফাভাবে অগ্রসর হলে বিএনপি বর্তমান সরকারের অধীনে সংবিধান সংশোধনের এই প্রক্রিয়ায় অংশই নেবে না।