শর্ত দিয়ে গাদ্দাফিকে দেশত্যাগের প্রস্তাব

Libya fighting ছবির কপিরাইট bbc
Image caption বিদ্রোহীরা কর্নেল গাদ্দাফির দপ্তরে ঢুকে পড়লেও গাদ্দাফি অনুগত কিছু যোদ্ধা এখনও ভেতরে লুকিয়ে আছে

লিবিয়ায় বিদ্রোহীরা এই প্রথম কর্নেল গাদ্দাফিকে নিরাপদে দেশ ছেড়ে যাওয়ার একট প্রস্তাব দিয়েছে। তবে তার বিনিময়ে তাকে ক্ষমতা ছেড়ে দেয়ার শর্ত বেঁধে দিয়েছে তারা।

এদিকে, বিদ্রোহীরা মুয়াম্মার গাদ্দাফির সদরদপ্তর বাব আল-আজিজিয়ার ভেতরে ঢুকে পড়ার একদিন পরেও সরকারি বাহিনীর সৈন্যরা রাজধানীর কোথাও কোথাও বড়ধরণের প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে৻

বন্দুকযুদ্ধের খবর পাওয়া যাচ্ছে রাজধানীর বাইরে বিভিন্ন জায়গাতেও৻

কর্নেল গাদ্দাফির অবস্থানের বিষয়েও পরিষ্কার কোনো খবর নেই৻ তবে টেলিভিশনে প্রচারিত এক অডিও বার্তায় কর্নেল গাদ্দাফি বিজয় অথবা আমৃত্যু তার লড়াই চালিয়ে যাওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন৻

কর্নেল গাদ্দাফির অনুগত যেসব সৈন্য এখনও ত্রিপোলিতে রয়েছে তাদের সঙ্গে রাজধানীর দক্ষিণ ও মধ্যাঞ্চলে বিদ্রোহী বাহিনীর লড়াই অব্যাহত রয়েছে৻

ত্রিপোলি থেকে বিবিসির সংবাদদাতা জানাচ্ছেন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পূবদিকে নতুন রণক্ষেত্রেও যুদ্ধ চলছে৻

ছবির কপিরাইট AP
Image caption কর্নেল গাদ্দাফির দপ্তরের ভেতরে বিদ্রোহীরা

রাজধানী দখলের লড়াই যখন চলছে তখন লিবীয় নেতা কর্নেল গাদ্দাফি ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের খোঁজও পুরোদমে চলছে৻

বিদ্রোহী যোদ্ধারা কর্নেল গাদ্দাফির সদরদপ্তরের দেয়াল ভেঙে মঙ্গলবার ভেতরে ঢুকে পড়ার পর কর্নেল গাদ্দাফির সমর্থক এক টিভিকেন্দ্র থেকে গাদ্দাফির কন্ঠে অনমনীয় দুটি ভাষণ প্রচার করা হয়েছে, যদিও কোথা থেকে তিনি কথা বলেছেন তা এখনও জানা যায় নি৻

বিদ্রোহীরা বলেছে কর্নেল গাদ্দাফিকে কেউ মৃত ধরে দিলে তাকে ক্ষমা করা হবে৻

বিদ্রোহী পরিষদের প্রধান মুস্তাফা আবদেল জলিল বলেছেন একজন লিবীয় ব্যবসায়ী ঘোষণা করেছেন কর্নেল গাদ্দাফিকে ধরিয়ে দিলে দশ লাখ ডলারের বেশি পুরস্কার দেয়া হবে৻

তিনি বলেছেন কর্নেল গাদ্দাফি নেতৃত্ব ছেড়ে দিতে রাজি হলে তাকে লিবিয়া ছেড়ে নিরাপদে বাইরে চলে যাবার সুযোগ দেওয়া হবে৻

বিদ্রোহীদের এক মুখপাত্র গুমা আল গামাতি বলছেন তারা কর্নেল গাদ্দাফিকে যত দ্রুত সম্ভব গ্রেপ্তার করতে চান৻

‘গাদ্দাফির গ্রেপ্তার লিবীয় জনগণ এবং গোটা বিশ্বকে আশ্বস্ত করবে৻ তাঁকে ধরা এখন শুধু সময়ের ব্যাপার৻ তিনি কতদিন পালিয়ে বেড়াবেন, লুকিয়ে থাকবেন? দেশ ছেড়ে পালিয়ে না গেলে, আজ না হোক কাল তাকে ধরা পড়তেই হবে, শুধু তাকেই নয়, তার ছেলে এবং ঘনিষ্ঠ সহযোগীদেরও৻‘ বলেছেন মি: গামাতি৻

বিবিসির নিরাপত্তা বিষয়ক সংবাদদাতা বলছেন পশ্চিমের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো আড়ি পেতে কথা শোনার প্রযুক্তি ব্যবহার করছে যাতে কর্নেল গাদ্দাফির কথাবার্তা শুনে তারা বুঝতে পারে তিনি কোথায় অবস্থান করছেন৻

লিবিয়ার বিদ্রোহী বাহিনীর জাতীয় অর্ন্তবর্তী পরিষদের আহমেদ জাব্রিল বলছেন তাদের কাছে কিছু তথ্য আছে যা থেকে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে কর্নেল গাদ্দাফি ত্রিপোলিতেই রয়েছেন, যদিও কেউ কেউ বলছে তিনি রাজধানী ছেড়ে সম্ভবত দেশের দক্ষিণাঞ্চলে পালিয়ে গেছেন৻

‘তবে আমার মনে হয়- গাদ্দাফি কোথায় আছেন সেটা এখানে বড় বিষয় নয়, আসল কথা হল কখন তাকে গ্রেপ্তার করা হবে৻ গাদ্দাফি এখন আর লিবিয়ার নেতা নেই৻ তিনি পলাতক এবং তাকে দ্রুত গ্রেপ্তার করা দরকার৻‘, মন্তব্য করেন মি: জাব্রিল৻

মি: জাব্রিল বলছেন ত্রিপোলির বেশিরভাগ অংশের নিয়ন্ত্রণই এখন বিদ্রোহীদের হাতে, কেবল কয়েকটি বিচ্ছিন্ন এলাকা বাদে৻

তিনি আরো বলছেন নির্বাহী পরিষদের সদস্যদের ত্রিপোলি যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে৻ তাদের কিছু কিছু সদস্য ইতিমধ্যেই ত্রিপোলি পৌঁছে গেছেন৻

এদিকে বিদ্রোহীরা রাজধানীর পুরো দখল প্রায় নিয়ে নিয়েছে বলে বললেও শহরে বিবিসির সংবাদদাতারা বলছেন কিছু কিছু এলাকায় দুপক্ষের মধ্যে তুমুল যুদ্ধ চলছে৻

বুধবার সকালেও নেটোর বিমানবহর ত্রিপোলিতে কর্নেল গাদ্দাফি বাহিনীর শক্ত নিয়ন্ত্রণ রয়েছে এমন কিছু এলাকায় বোমা ফেলেছে৻

কর্নেল গাদ্দাফির অঙ্গীকার

কর্নেল গাদ্দাফি সমর্থক টিভি স্টেশন আল-উরুবাতে সম্প্রচারিত কর্নেল গাদ্দাফির ভাষণে তিনি এমন ধারণা দিয়েছেন যে পরিস্থিতি এখনও তার নিয়ন্ত্রণে৻

তিনি বলেছেন ছদ্মবেশে তিনি ত্রিপোলিতে ঘুরেছেন, এবং দেখেছেন লিবিয়ার তরুণরা না বুঝে লড়াই করছে৻

ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption আমৃত্যু লড়াইয়ের অঙ্গীকার করেছেন কর্নেল গাদ্দাফি

তিনি রাজধানীর বাব আল-আজিজিয়ায় তাঁর সদরদপ্তর ছেড়ে যাবার পক্ষে যুক্তি দিয়ে বলেছেন তিনি তাঁর দপ্তর ছেড়ে গেছেন কৌশলগত কারণে৻ যদিও ত্রিপোলিতে বিবিসি সংবাদদাতা বলছেন, তাঁর এই কথা কেউই বিশ্বাস করছে না৻

কর্নেল গাদ্দাফি তাঁর ভাষণে আহ্বান জানিয়েছেন,

‘বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মানুষকে মাথা তুলে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি৻ ত্রিপোলিবাসীকে বলছি হাতে অস্ত্র তুলে নিয়ে গুন্ডাদলের হাত থেকে শহর রক্ষা করতে৻ দেশের সব প্রান্ত থেকে ছেলে বুড়ো, নারী সবাইকে ত্রিপোলি রক্ষার লড়াইয়ে সামিল হতে বলছি৻‘

লিবীয় নেতা কর্নেল মুয়াম্মার গাদ্দাফি, তাঁর ভাষায়, আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে হয় বিজয়ী নয়তো শহীদ হওয়ার অঙ্গীকার করেছেন৻

গাদ্দাফি সমর্থক টিভি স্টেশন আল উরুবা কর্নেল গাদ্দাফির এক মুখপাত্র মুসা ইব্রাহীমের সাক্ষাতকারও প্রচার করেছে যাতে তিনি হুশিয়ারি দিয়েছেন সরকারের সমর্থক ১২ হাজার উপজাতিয় ত্রিপোলির চারপাশে জড়ো হচ্ছে৻

সংবাদদাতারা বলছেন কর্নেল গাদ্দাফির দপ্তরের ভেতরে তার অনুগত কিছু সেনা এখনও লুকিয়ে রয়েছে৻

বাইরে থেকে গাদ্দাফি বাহিনীর অনুগত সেনারা বিক্ষিপ্তভাবে মর্টারের গোলাবর্ষণ করছে৻