তারেক মামলায় এফবিআইয়ের সাক্ষ্য

তারেক রহমান ছবির কপিরাইট focus bangla
Image caption তারেক রহমান বর্তমানে বিদেশে রয়েছেন

বাংলাদেশে বিরোধী নেত্রী খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের এক মামলায় মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই এর একজন কর্মকর্তা আগামীকাল বুধবার ঢাকার আদালতে সাক্ষ্য দেবেন৻

দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষ থেকে আদালতে তার সাক্ষ্য দেয়ার ব্যাপারে অনুমতি চাওয়া হলে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত আজ মঙ্গলবার সেই অনুমতি দিয়েছে৻

এই মামলায় সাক্ষ্য দেয়ার ব্যাপারে দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষ থেকে এফবিআইকে অনুরোধ জানালে মার্কিন এই সংস্থা তাতে রাজি হয়৻

মার্কিন কর্মকর্তার সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধান আইনজীবী আনিসুল হক মঙ্গলবার আদালতে আবেদন করেন।

আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না

আনিসুল হক বিবিসি বাংলাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন বাংলাদেশে দুর্নীতি করেছেন এমন রাজনীতিক ও সরকারি কর্মকর্তাদের বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকার যখন ব্যবস্থা গ্রহণ করছিলেন তখন তারা এফবিআইকে 'অ্যাসেট রিকভারি'র জন্য অনুরোধ করেন।

মিঃ হক বলেন বাংলাদেশ থেকে যারা দুর্নীতির মাধ্যমে যেসব সম্পদ বিদেশে পাচার করেছেন, অথবা বাংলাদেশে কোনো ব্যবসা পাইয়ে দেওয়ার জন্য বিদেশে অর্থ গ্রহণ করেছেন সেসব অর্থ বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনার জন্য ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন বা এফবিআইয়ের কাছে তত্ত্বাবধায়ক সরকার সহায়তা চেয়েছিল।

তিনি বলেন সেই সহায়তার আওতায় যেসব তথ্য তারা দিয়েছিলেন সেসব কথাই তারা তাদের সাক্ষ্যে তুলে ধরবেন।

কমিশনের পক্ষ থেকে তারেক রহমান এবং তার ব্যবসায়িক পার্টনার গিয়াসউদ্দিন আল মামুনের বিরুদ্ধে ২০ কোটি টাকার বেশি পরিমাণ অর্থ বিদেশে পাচারের অভিযোগে মামলাটি করা হয় ২০০৯ সালে৻

গত বছর জুলাই মাসে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।

তারেক রহমান বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে জামিন নিয়ে চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে যান।

এখনও তিনি বিদেশে রয়েছেন।

গিয়াসউদ্দিল আল মামুন বর্তমানে কারাগারে আছেন।