শত শত ওয়েবসাইটে হ্যাকারদের হানা

hacker

বাংলাদেশের কিছু ওয়েবসাইট সোমবার হ্যাকিংএর শিকার হবার পর আজ ভারতেও নতুন করে কয়েকশ‘ ওয়েবসাইট আজ হ্যাকারদের হাতে আক্রান্ত হয়েছে৻

কোলকাতা থেকে বিবিসির সংবাদদাতা অমিতাভ ভট্টশালী জানাচ্ছেন, আক্রান্ত ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের ওয়েবসাইটসহ সরকারি বেশ কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে৻

তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বাংলাদেশী ও ভারতীয় হ্যাকারদের মধ্যে তাদের ভাষায় ‘একটি অঘোষিত সাইবার যুদ্ধ‘ চলছে৻

বাংলাদেশ কম্পিউটার এমারজেন্সী রেসপন্স টিমের চেয়ারম্যান সুমন আহমেদ বিবিসিকে বলেন, মূলত ভারত এবং বাংলাদেশের কয়েকটি হ্যাকার গ্রুপের দ্বন্দ্বের প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশী হ্যাকাররা মহারাষ্ট্র পুলিশেও ওয়েবসাইট আক্রমণের মাধ্যমে ভারতীয় ওয়েবসাইট হ্যাক করা শুরু করে৻

ছবির কপিরাইট BBC World Service

ভারতীয় ওয়েবসাইটগুলো হ্যাক করার কৃতিত্ব দাবি করে ‘বাংলাদেশ সাইবার আর্মি ‘ নামে একটি কথিত হ্যাকার গ্রুপ আজ ইউটিউবে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে৻ এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ ওয়েবসাইট ফেসবুকে তাদের একটি ‘ফ্যান পেজে‘ হ্যাক করা ওয়েবসাইটগুলোর একটি দীর্ঘ তালিকা দেয়া হয়েছে৻

ওই হ্যাকাররা দাবি করে যে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গুলিবর্ষণে বাংলাদেশী বেসামরিক লোকদের নিহত হবার ঘটনাগুলোর প্রতিবাদ জানাতে এবং টিপাইমুখ বাঁধ নির্মাণ বন্ধের দাবিতেই তারা এ কাজ করেছে৻

এর একদিন আগে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার কর্মকর্তারা জানান, বিদেশী হ্যাকাররা কিছু বাংলাদেশী সরকারি ওয়েবসাইট হ্যাক করে৻

তবে সাইটগুলো কয়েক ঘন্টা পরই আবার চালু করা সম্ভব হয় বলে বাংলাদেশ সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক পরামর্শক এ আর হাজিমুল হক৻

কারা এই সাইবার আক্রমণ চালিয়েছে তা বাংলাদেশী কর্মকর্তারা সুনির্দিষ্টভাবে বলেন নি৻

তবে বাংলাদেশী সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্টকে উদ্ধৃত করে ঢাকা থেকে বিবিসির সংবাদদাতা জানিয়েছেন যে, ‘ইন্ডিয়ান সাইবার আর্মি ‘ নামে পরিচিত ভারতীয় হ্যাকারদের একটি গোষ্ঠী এই আক্রমণের জন্য দায়ী হতে পারে৻

ছবির কপিরাইট no
Image caption হ্যাকিংএর শিকার টিসিবির সাইট

সুমন আহমেদ বলেন, আক্রান্ত ওয়েবসাইটগুলো পরীক্ষা করেই বোঝা যায় যে তারা কোন দেশের, তা ছাড়া অনেকক্ষেত্রে তারা নিজেদের পরিচয় জানিয়ই হ্যাক করে৻ অনেক ওয়েবসাইটেই সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা না থাকায় সহজেই তারা হ্যাকারদের শিকার হয়৻

বিভিন্ন সুত্রে পাওয়া খবরে জানা যায় যে বেশ কিছু দিন ধরেই ভারত ও বাংলাদেশের শত শত ওয়েবসাইট হ্যাকারদের আক্রমণের শিকার হচ্ছে৻

সম্প্রতি কথিত বাংলাদেশী হ্যাকারদের হাতে আক্রান্ত হয় বেশকিছু ভারতীয় ওয়েবসাইট৻ এরই পাল্টা জবাব হিসেবে বাংলাদেশের সরকারী ওয়েবসাইটে হ্যাকিংএর ঘটনা ঘটানো হয়ে থাকতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা বলছেন৻

কথিত বাংলাদেশী হ্যাকার গোষ্ঠী আরও দাবী করছে যে ভারতীয় হ্যাকাররাই এই কথিত সাইবার যুদ্ধ শুরু করেছে এবং তারাই প্রথমে বাংলাদেশের কয়েকটি ওয়েবসাইট হ্যাক করেছিল৻

ভারতের তরফ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই তথাকথিত সাইবার যুদ্ধ সম্বন্ধে এখনও কিছু বলা হয় নি৻

তবে আরিফ আহমেদ নামে ভারতের একজন সাইবার সুরক্ষা বিশেষজ্ঞ বলছেন, বেশীরভাগ ওয়েবসাইট-ই ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের আর সেগুলিতে অতি স্পর্শকাতর কোনও তথ্য থাকারও কথা নয়৻

প্রচার করাই এই কথিত যুদ্ধের মূল উদ্দেশ্য বলে মনে করছেন সাইবার সুরক্ষা বিশেষজ্ঞরা৻