তেল পাওয়া গেছে দুটি গ্যাসক্ষেত্রে

oilfield

বাংলাদেশ দুটি পুরোনো গ্যাসক্ষেত্র সিলেটের কৈলাসটিলা ও হরিপুরে তেলের মজুদের সন্ধ্যান পেয়েছে বলে জানাচ্ছেন বাংলাদেশ তেল গ্যাস ও খনিজ সম্পদ কর্পোরেশন বা পেট্রোবাংলা।

সংস্থাটি জানাচ্ছে, এই দুটি জায়গাতে তেলের মজুদের পরিমান ১৩৭ মিলিয়ন ব্যারেল হলেও উত্তোলন করা সম্ভব হবে ৫৫ মিলিয়ন ব্যারেল।

পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান হোসেন মনসুর বিবিসিকে জানিয়েছেন, সরকারের চলতি মেয়াদেই এই তেল উত্তোলনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করবে তারা।

সন্ধান পাওয়া তেলের মধ্যে ১০৯ মিলিয়ন ব্যারেল রয়েছে সিলেটের কৈলাসটিলা গ্যাসক্ষেত্রে। আর বাকি ২৮ মিলিয়ন ব্যারেল রয়েছে হরিপুর গ্যাসক্ষেত্রে।

১৯৮৭ সালে আবিষ্কৃত হরিপুর গ্যাসক্ষেত্র থেকে আগেও অবশ্য তেল উত্তোলন করা হতো। তখন পাওয়া যেতো দৈনিক ৫শ ব্যারেল করে। এক পর্যায়ে তা বন্ধ হয়ে যায়।

মি. মনসুর বলছেন, এ দুটি ক্ষেত্র থেকে সব মিলে ৫৫ মিলিয়ন ব্যারেলের মতো তেল উত্তোলন করা যাবে। তিনি আরো বলছেন, বর্তমানে বাংলাদেশের তেল উত্তোলন করার অভিজ্ঞতা না থাকায় প্রাথমিক ভাবে একটি কূপ বিদেশীদের সহায়তায় করা হবে। পরে অভিজ্ঞতা অর্জনের পর পুরো বিষয়টি দেখভাল করবে বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠানগুলো।

বলা হচ্ছে, প্রাপ্ত তেলের বর্তমান বাজারমূল্য ৪২ থেকে ৪৫ হাজার কোটি টাকার মতো।

বাইরে থেকে আমদানি করা হলে এই পরিমাণ জ্বালানী তেলে বাংলাদেশের দু-বছরের মতো চাহিদা পূরণ করা যাবে।

তবে হোসেন মনসুর বলছেন, সরকারের তেল অনুসন্ধান কর্মসূচী অব্যাহত থাকবে। ভবিষ্যতে আরো তেলক্ষেত্র পাওয়ার আশাও প্রকাশ করেন তিনি।