BBC navigation

ভারতে আফজাল গুরুর মৃত্যুদন্ড কার্যকর

সর্বশেষ আপডেট শনিবার, 9 ফেব্রুয়ারি, 2013 11:20 GMT 17:20 বাংলাদেশ সময়

ভারতের পার্লামেন্ট ভবনের ওপর সন্ত্রাসবাদী হামলার ষড়যন্ত্রের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত মোহাম্মদ আফজাল গুরুর মৃত্যুদন্ড আজ কার্যকর করা হয়েছে।

২০০১ সালে দিল্লিতে পার্লামেন্ট ভবনের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার দায়ে আফজাল গুরুকে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়েছিল।

ঐ হামলায় ছয় জন নিরাপত্তা রক্ষী এবং এবং পার্লামেন্টের বাগানের এক মালি নিহত নিহত হন। একই সঙ্গে মারা যান হামলাকারি পাঁচ জঙ্গী।

ভারত শাসিত কাশ্মীরের বাসিন্দা মোহাম্মদ আফজাল গুরু ছিলেন এক ফল বিক্রেতা।

দিল্লির পার্লামেন্ট ভবনে হামলার ষড়যন্ত্র জড়িত থাকার দায়ে যে দুজনকে আদালত দোষী সাব্যস্ত করে, তিনি তাদের একজন। আদালত দুজনকেই মৃত্যুদন্ড দিয়েছিল।

কিন্তু অপরজন শওকত হোসেনের আপীল আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তার মৃত্যুদন্ড কমিয়ে দশ বছরের সাজা দেয়। কিন্তু বহাল থাকে আফজাল গুরুর মৃত্যুদন্ড।

একজন ভারতীয় কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আফজাল গুরুর প্রাণভিক্ষার সর্বশেষ আবেদন নাকচ হয়ে যাওয়ার পর তাঁর মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়।

আফজাল গুরু আগাগোড়াই এই হামলার সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা অস্বীকার করেছেন, তবে কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী জঙ্গীদের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল বলে তিনি জানিয়েছেন।

মানবাধিকার সংগঠনগুলো অভিযোগ করেছে যে, আফজাল গুরু ন্যায়বিচারের সুযোগ পাননি। তাকে যথাযথ আইনি সহায়তা দেয়া হয়নি।

তাদের আরও অভিযোগ, পুলিশের অনেক সাক্ষী-প্রমাণই ছিল সাজানো।

ভারতে গত আট বছরের মধ্যে আফজাল গুরু হচ্ছেন, দ্বিতীয় ব্যক্তি, যার মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হলো।

এর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর কাশ্মীরে তার নিজ শহরে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুরো কাশ্মীর অঞ্চল জুড়ে সান্ধ্য আইন জারি করা হয়েছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻