BBC navigation

সংঘর্ষ আর বোমাবাজিতে চলছে শিবিরের হরতাল: খুলনায় একজন নিহত

সর্বশেষ আপডেট বৃহষ্পতিবার, 11 এপ্রিল, 2013 07:52 GMT 13:52 বাংলাদেশ সময়

সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে চলছে শিবিরের ডাকে হরতাল-ফাইল ফটো

যানবাহনে আগুন, ভাংচুর, বোমাবাজি আর বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে চলছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের ডাকে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল।

দলটির কেন্দ্রীয় সভাপতি দেলাওয়ার হোসেনের মুক্তির দাবিতে তারা এই হরতাল করছে।

এই নিয়ে এই একপ্তাহেই চতুর্থ হরতাল করা হচ্ছে।

হরতালের শুরুতেই সকালে খুলনার ডুমুরিয়ায় পুলিশের সাথে সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন।

পুলিশ বলছে, সকালে জামায়াত শিবির কর্মীরা নাশকতা করার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ গুলি ছুড়তে বাধ্য হয়েছে।

সংঘর্ষে পুলিশসহ কমপক্ষে পচিশজন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে চট্টগ্রামে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে দুই শিবির কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। পুলিশ বলছে, ভোররাতে পুলিশ একটি অভিযান চালানোর সময় তাদের উপর বোমা হামলা করা হয়। আত্মরক্ষার জন্য পুলিশ গুলি চালালে এই ঘটনা ঘটে।

আগ্নেয়াস্ত্র, হাতবোমাসহ নগরীর বিভিন্ন স্থান থেকে আটজন শিবির কর্মীকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ঢাকায় সকাল থেকেই বিভিন্ন স্থানে যানবাহনে আগুন আর ভাংচুর করেছে শিবিরের পিকেটাররা। যাত্রাবাড়ী, শনির আখড়া, মিরপুর আর পুরান ঢাকায় শিবির কর্মীরা মিছিল আর ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। এ সময় সেখানে বেশ কয়েকটি বাসে ভাংচুর আর আগুন লাগিয়ে দেয়া হয়।

পুলিশ ঢাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে বেশ কয়েকজন পিকেটারকে গ্রেপ্তার করেছে।

তবে ঢাকায় তুলনামুলকভাবে যানবাহন চলাচল বেড়েছে। অনেক দোকানপাট খোলা রয়েছে। তবে অন্যান্য হরতালের দিনের মতোই আজও দুরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

গণজাগরণ মঞ্চের কালো পতাকা মিছিল

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের ডাকা এই হরতাল প্রত্যাখ্যান করে কালো পতাকা মিছিল করেছে শাহবাগের গণজাগরণ মঞ্চ।

বেলা সোয়া ১২টার দিকে শাহবাগ থেকে মিছিলটি শুরু হয়। এটি বাংলামটর, মগবাজার হয়ে আবার শাহবাগে ফিরে আসে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻