BBC navigation

নিহতের সংখ্যা ৩৫১, তিন মালিক গ্রেপ্তার, হরতাল

সর্বশেষ আপডেট রবিবার, 28 এপ্রিল, 2013 03:00 GMT 09:00 বাংলাদেশ সময়

চাপা পড়া মানুষগুলোর কাছে ওপর থেকে পাইপে অক্সিজেন পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন উদ্ধার কর্মীরা

বাংলাদেশের সাভারে বুধবার ধসে পড়া বহুতল ভবনটি থেকে এখন পর্যন্ত ৩৫১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে রানা প্লাজার দুটি পোশাক কারখানার মালিক-- মাহবুবুর রহমান তাপস ও বজলুল সামাদ আদনান ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে। পরে শনিবার রাতে ঐ ভবনের অপর একটি পোষাক কারখানা ফ্যান্টম অ্যাপারেলসের মালিক মো. আমিনুল ইসলামকে রমনা থানা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এছাড়া আটক করা হয়েছে সাভার পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী ইমতেমাম হোসেন ও সহকারী প্রকৌশলী আলম মিয়াকে।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার মুখার্জী বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, রোববার সকালে আরো দুইজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, আজ সকালে উদ্ধার প্রক্রিয়ায় একটি বড় ধরনের তৎপরতা চালানোর জন্য ঐ এলাকাটিতে মোতায়েন করা হয়েছে সরকারী সকল বাহিনী সদস্যদের।

এছাড়া, উদ্ধার অভিযানের পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সকাল আটটায় একটি সমন্বয় বৈঠক হবার কথা রয়েছে, বলে জানিয়েছেন মি. মুখার্জী। এই বৈঠকে পরবর্তী উদ্ধার প্রক্রিয়া ঠিক করা হবে বলে তিনি জানান।

বুধবার সাভারে একটি বহুতল ভবন ধ্বসে পড়ার পর আজ পঞ্চমদিনের মত সেখানে উদ্ধার কাজ চলছে।

রোববার সকালেও ভবনটির ধ্বংসস্তুপে আটকে থাকা জীবিত মানুষের সন্ধান পাওয়া গেছে। তাদের উদ্ধারে চেষ্টা করছেন উদ্ধারকর্মীরা।

এদিকে সাভারের ভবন ধ্বসের ঘটনাটিকে একটি হত্যাকান্ড বলে আখ্যায়িত করে বৃহস্পতিবার হরতালের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট। শনিবার রাতে জোটের এক বৈঠকের পর এই ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

একই দাবিতে এর আগে বামপন্থী দলগুলোও একই দিন হরতালের ঘোষণা দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার সারাদেশে সকাল সন্ধ্যা এই হরতাল করা হবে।

পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভের মুখে গত তিনদিন বাংলাদেশে তৈরি পোশাক কারখানাগুলো বন্ধ থাকার পরে, সোমবার থেকে সেগুলো খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তৈরি পোশাক কারখানাগুলোর মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ এই ঘোষণা দিয়েছে।

তবে এই হতাহতের প্রতিবাদে আজ বিক্ষোভ করার কর্মসূচী রয়েছে শ্রমিক সংগঠনগুলোর।

শ্রমিক নেত্রী মোশরেফা মিশু বিবিসিকে জানিয়েছেন, আজকের কর্মসূচী শেষ হলে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে তারা পরবর্তী করনীয় ঠিক করবেন।

গত বুধবার ধ্বসে যাওয়া ভবন রানা প্লাজা থেকে একশ জনেরও বেশি মানুষ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ভবনটির বিভিন্ন স্থানে সুরঙ্গ তৈরি করে জীবিতদের উদ্ধার করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তারা জানিয়েছেন, কংক্রিট কেটে সুড়ঙ্গ করে সেখান থেকে এদের বের করে আনার জন্য এখন মরিয়া চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

গত বুধবার ঢাকার কাছে সাভারে নয় তলা ভবনটি ধসে পড়ে। বাংলাদেশের পোশাক শিল্পে এটি এযাবতকালের সবচেয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। নিহতের সংখ্যা ইতোমধ্যে সাড়ে তিনশো ছাড়িয়ে গেছে। কিন্তু আরও বহু মানুষ এখনো ভবনের নিচে চাপা পড়ে আছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

উদ্ধার কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, যতক্ষণ পর্যন্ত সব জীবিত মানুষকে উদ্ধার করা সম্ভব না হচ্ছে, ততক্ষণ তারা ধ্বংসস্তূপ সরাতে ভারী যন্ত্রপাতি ব্যবহারের ঝুঁকি নেবেন না।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻