BBC navigation

সাভারে ধ্বংসস্তূপে জীবিত অবস্থায় কাউকে পাওয়ার আশা নেই

সর্বশেষ আপডেট সোমবার, 29 এপ্রিল, 2013 15:10 GMT 21:10 বাংলাদেশ সময়

ভারী যন্ত্রপাতি দিয়ে উদ্ধার কাজ চলছে

বাংলাদেশের সাভারে ধসে পড়া ভবনের ধ্বংসস্তূপ থেকে শাহিনা আক্তার নামে যে তরুণীকে জীবিত উদ্ধারের দীর্ঘ চেষ্টা আগুন লেগে ব্যর্থ হয়ে যায়, সোমবার বিকেলের দিকে তার মৃতদেহ সেখান থেকে বের করে আনা হয়েছে।

রাতেই তার মৃতদেহ স্বজনদের কাছে তুলে দেয়া হয়েছে। আজ তার দাফন হতে পারে বলে সংবাদদাতারা জানাচ্ছেন।

উদ্ধারকাজের সাথে জড়িত কর্মকর্তারা এখন বলছেন, দুর্ঘটনার ছ’দিন পর ধ্বংসস্তূপ থেকে আর কাউকে জীবিত উদ্ধারের আশা তারা কার্যত ছেড়ে দিচ্ছেন।

সেই যুক্তিতে গতরাত থেকে ধ্বংসস্তূপ সরাতে ভারী যন্ত্রপাতির ব্যবহার শুরু হয়েছে।

মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৮৭।

সোমবার পাঁচটি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

তবে এখনও পর্যন্ত কয়েকশো নারী পুরষের কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। উদ্ধার

অভিযানের ৬ষ্ঠ দিনে উদ্ধারকারী কর্মকর্তারা বলছেন, এ পর্যন্ত ২৪৩৭ জনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

তারা বলছেন, এখনো নিখোঁজ চারশো জনের মতো।

ভবন ধসের প্রায় এক সপ্তাহের মাথায় আর কাউকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধারের আশা ছেড়ে দিয়েছেন কর্মকর্তারা

উদ্ধারকারীরা ভারী যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে কংক্রিটের পাত সরানোর চেষ্টা করছেন।

এসময় কয়েকটি পাত উপর থেকে পড়ে যায়।

বিকেলের দিকে শাহীনা আক্তারের মরদেহ বের করে আনা হলে সেখানে একটা শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

রোববার তাকে সারাদিন ধরে বাঁচানোর চেষ্টা করা হয়েছিলো।

উদ্ধারকারীরা তার খুব কাছাকাছি পৌঁছাতে পারলেও রড কাটার সময় স্ফুলিঙ্গ থেকে আগুন ধরে গেলে তারা সেখান থেকে চলে আসতে বাধ্য হন।

তাকে উদ্ধারের চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পরই ভারী যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে উদ্ধার অভিযানের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়।

এর আগে, সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্ধার কাজ দেখতে গিয়েছিলেন।

তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতদের সাথে কথা বলে তাদের পুনর্বাসনের আশ্বাস দিয়েছেন।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻